ইংল্যান্ডের মাটিতে পা রেখেই শোচনীয় ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়েছে ভারতকে। ৩৯.২ ওভারে ১৭৯ রানে শেষ হয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া। ভারতের হতশ্রী ব্যাটিং পারফরম্যান্স দেখে আশঙ্কিত সমর্থকরা।

শুরুতেই যদি কঙ্কাল বেরিয়ে পড়ে, তা হলে বিশ্বকাপ শুরু হলে কী হবে? এমন প্রশ্নও ঘোরাফেরা করছে ক্রিকেটমহলে। রবীন্দ্র জাদেজা ৫০ বলে ৫৪ রান করায় দলের স্কোর কিছুটা ভদ্রস্থ দেখায়। না হলে আরও অল্প রানে শেষ হয়ে যেতে পারত ভারত। প্রথম ওয়ার্ম আপ ম্যাচে দলের ব্যাটিং ভরাডুবির পরে ভক্তদের আশ্বস্ত করছেন জাদেজা। তিনি বলছেন, ‘‘চিন্তার কোনও কারণ নেই।’’

প্রায় দেড় মাসের কাছাকাছি আইপিএল খেলে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ অভিযানে গিয়েছেন বিরাট কোহালিরা। বিশেষজ্ঞরা অবশ্য আগেই বলেছিলেন, ইংল্যান্ডের পরিবেশ ও উইকেটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সময় লাগবে ভারতীয়দের। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে নামার আগে হাতে আরও ক’দিন সময় পাওয়া  যাবে। ফলে নিজেদের গুছিয়ে নেওয়ার সময় পাওয়া যাবে। জাদেজা বলছেন, ‘‘এটাই আমাদের প্রথম ম্যাচ ছিল। একটা বাজে  ইনিংস বা একটা খারাপ ম্যাচের প্রেক্ষিতে আমরা কোনও কিছুর সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারি না। ব্যাটিং বিভাগ নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ রয়েছে বলে মনে করি না।’’

আরও খবর: বিরাট নির্ভরতা ভুলে রান করতে হবে রাহুলদেরও

আরও খবর:  বিজয়কে নিয়ে স্বস্তি ভারতীয় শিবিরে

উপমহাদেশের পিচ ও ইংল্যান্ডের বাইশ গজের মধ্যে জমিন-আসমান পার্থক্য। ভারতের মাটিতে ফ্ল্যাট উইকেটে খেলতে হয়। সেখানে ইংল্যান্ডের উইকেটের চরিত্র ভিন্ন। জাদেজা মনে করেন, উইকেটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে বেশ খানিকটা সময় লাগবে ভারতীয়দের। ভারতের বাঁ হাতি অলরাউন্ডার বলছেন, ‘‘ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরিশ্রম করতে হবে। প্রত্যেকেরই অভিজ্ঞতা রয়েছে।’’ বিশ্বকাপে উইকেট ভাল পাওয়া যাবে বলেই মনে করছেন তিনি। ইংল্যান্ডের উইকেটের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নেওয়াটাই এখন ভারতের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।