তিনি নাকি দেশের আক্রমণের ভরসা। তিনি অলিভার জিরু। বিশ্বকাপে তাঁর দেশ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। কিন্তু তাঁর পা থেকে আসেনি একটিও গোল। শুধু কী তাই, পুরো বিশ্বকাপে গোলমুখি কোনও শটও নেই জিরুর। ৫৪৬ মিনিট তিনি গোলে কোনও শটই নেননি। এই পরিসংখ্যান রীতিমতো চমকে যাওয়ার মতো।

বিশ্বকাপ ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ৪-২ গোলে জয়ের ম্যাচে ৮১ মিনিট মাঠে ছিলেন তিনি। সারাক্ষণ তাঁকে প্রতিপক্ষের বক্সের সামনে দেখা গিয়েছে। কিন্তু না, গোলে শট একটিও নেননি। চেলসি স্ট্রাইকারের এমন বিশ্বকাপ ইতিহাস তাঁর ক্লাব ভবিষ্যতকেও সমস্যায় ফেলতে পারে। ফ্রান্সের হয়ে প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি অলিভার। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচেই পেরুর বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে ঢুকে পড়েন তিনি। কিন্তু পুরো টুর্নামেন্টে নিজের পজিশনের সুবিধে নিতে পারেননি তিনি।

কিন্তু তাঁর না পারা ও তাঁর উপস্থিতির মধ্যেই বিশ্বকাপের বাজিমাত করেছেন কেলিয়ান এমবাপে ও অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান। পুরো বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষের রক্ষণকে সারাক্ষণ সচল রেখেছেন এই দুই ফুটবলার। ফাইনালেও গোল এসেছে এই দু’জনের পা থেকে। কিন্তু অনেক রেকর্ডের মধ্যে এই রেকর্ডটাও বয়ে বেড়াতে হবে ফ্রান্সকে তথা অলিভার জিরুকে।

আরও পড়ুন
মাঠ থেকে ফ্রান্সের জয়ের উৎসব পৌঁছল লকার রুমে