• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দেশের হয়ে সাদা জার্সিতে ওকে দেখতে না পাওয়া টিম ইন্ডিয়ারই ক্ষতি, বললেন শাস্ত্রী

Amol Muzumdar
অমল মুজুমদার দুই দশক ঘরোয়া ক্রিকেটে দাপট দেখিয়েছেন। —ফাইল চিত্র।

একসময় ধরা হত দেশের সেরা প্রতিশ্রুতিবানদের তালিকায়। মনে করা হত, জাতীয় দলের হয়ে খেলবেন দীর্ঘ দিন। কিন্তু, টিম ইন্ডিয়ার হয়ে খেলা হয়ে ওঠেনি অমল মুজুমদারের

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে না খেললেও ঘরোয়া ক্রিকেটে টন টন রান করে গিয়েছেন তিনি। একসময় রঞ্জি ট্রফিতে সর্বাধিক রানের রেকর্ডের মালিকও ছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত রঞ্জি ট্রফিতে ৪৮.১৩ গড়ে ১১ হাজার ১৬৭ রানে থেমেছেন মুম্বইকর। খেলেছেন ১১৩ লিস্ট এ ম্যাচ। ৩৮.২০ গড়ে করেছেন ৩২৮৬ রান। কিন্তু তার পরও জাতীয় দলের মিডল অর্ডারে তাঁর জায়গা হয়নি। রথী-মহারথীদের ভিড়ে বাইরেই থাকতে হয়েছে তাঁকে।

আর এটাকে টিম ইন্ডিয়ারই ক্ষতি বলে মনে করছেন জাতীয় দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। তিনি অমলের সঙ্গে নিজের ছবি দিয়ে টুইট করেছেন, “রঞ্জি ট্রফির এক কিংবদন্তির সঙ্গে। আমার শেষ মরসুম ছিল অমলের প্রথম। এখনও বিশ্বাস করি যে, দেশের হয়ে সাদা জার্সিতে ওকে দেখতে না পাওয়া টিম ইন্ডিয়ারই ক্ষতি।” 

আরও পড়ুন: ‘চেন্নাইতে খেললে ক্রিকেটারের কেরিয়ার জীবন্ত হয়ে ওঠে’

আরও পড়ুন: হার্দিককে নিয়ে কী চিন্তাভাবনা? বিজয় শঙ্কর বললেন...​

অমল মুজুমদারও এর পরিপ্রেক্ষিতে টুইট করেছেন, “বেড়ে ওঠার দিনগুলোয় শাস্ত্রী ছিল আমার হিরো। ১৯৯৩-’৯৪ মরসুমে ওয়াংখেড়েতে রঞ্জি ট্রফি জেতার পর বলেছিলে, ‘ওয়েল ডান ইয়ং ম্যান।’ সেই স্মৃতি এখনও আমার মনে টাটকা। স্কিপার, তোমাকে ধন্যবাদ। তুমিই জিততে শিখিয়েছিলে।” 

১৯৯৩-’৯৪ মরসুমে রঞ্জি ট্রফির দ্বিতীয় প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে হরিয়ানার বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল অমলের। মুম্বইয়ের অধিনায়ক তখন শাস্ত্রী। অভিষেকেই ২৬০ রান করেছিলেন অমল। ২৪ বছর ধরে যা অভিষেকে সর্বাধিক ইনিংসের রেকর্ড হয়ে ছিল। ২০১৮-’১৯ মরসুমে মধ্যপ্রদেশের অজয় রোহেরা এই রেকর্ড ভেঙেছিলেন। হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে রঞ্জি অভিষেকে তিনি করেছিলেন ২৬৭। প্রায় দুই দশক খেলার পর ২০১৪ সালে পেশাদার ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন অমল। ৪৫ বছর বয়সি এখন ধারাভাষ্যকার।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন