ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো স্বীকার করলেন, লিয়োনেল মেসির সঙ্গে তাঁর দীর্ঘ দিনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা ফুটবলার হিসেবে তাঁকে আরও উন্নত করেছে। এবং এই প্রতিযোগিতাকে তিনি ‘স্বাস্থ্যকর’ মনে করেন। উপভোগও করেন। রোনাল্ডো অবশ্য এ-ও স্বীকার করলেন যে বছরের পর বছর স্পেনে দু’জনই খেললেও সামাজিক ভাবে তাঁরা কখনও কাছাকাছি আসতে পারেননি।

পর্তুগালের টিভি চ্যানেল দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে  রোনাল্ডো বললেন, ‘‘আমি সত্যিই ওর (মেসির) ফুটবল জীবনকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার চোখে দেখি। তা ছাড়া আমি স্পেন ছেড়ে চলে আসার সময় ও কিন্তু আমাদের মধ্যেকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা শেষ হয়ে গেল বলে নিজের হতাশার কথা জানিয়েছিল।’’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘‘আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা খুব ভাল একটা ব্যাপার। তবে তাকে অনন্য বলাটা বাড়াবাড়ি। বাস্কেটবলে মাইকেল জর্ডনের সঙ্গেও এ রকম ছিল। বা ফর্মুলা ওয়ানে আয়ার্টন সেনা এবং অ্যালায়েন প্রুস্টের মধ্যে। কিন্তু আমাদের সবার ক্ষেত্রেই সেটা স্বাস্থ্যকর একটা ব্যাপার।’’

রোনাল্ডো ও মেসি— দু’জনই পাঁচ বার করে ব্যালন ডি’ওর জিতেছেন। রোনাল্ডো মনে করেন, তাঁদের মধ্যে তৈরি হওয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতার মানসিকতা দু’জনকেই ফুটবলার হিসেবে আরও উন্নত করেছে। রোনাল্ডো কথায়, ‘‘এ ব্যাপারে আমার মধ্যে কোনও সন্দেহই নেই যে মেসি আমাকে আরও ভাল ফুটবলারে পরিণত করেছে। মনে হয় মেসির ক্ষেত্রেও সেটাই সত্যি। আমি ট্রফি জিতলে ও নিশ্চয়ই দংশন বোধ করেছে। আর ও জিতলে আমারও সেটা হয়।’’ মেসির সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে রোনাল্ডো বলেছেন, ‘‘আমাদের মধ্যে খুবই পেশাদার সম্পর্ক রয়েছে। কারণ ১৫ বছর ধরে আমরা দু’জন একই মঞ্চে ফুটবলটা খেলেছি। তবে আমরা কখনও একসঙ্গে নৈশভোজ করিনি। তার মানে এই নয় যে ভবিষ্যতে কখনও সেটা করব না। এটা নিয়ে আমার অন্তত কোনও সমস্যা নেই।’’   

এ দিকে,  বুধবার মেসি অনুশীলন করেছেন। পায়ে চোট থাকায় আর্জেন্টাইন তারকা প্রাক্-মরসুম কোনও ম্যাচ খেলেননি। বুধবার সকালে তিনি একাই অনুশীলন করেন। বিকেলে দলের সঙ্গে অনুশীলনেও তাঁকে দেখা যায়। পরিস্থিতি যে দিকে যাচ্ছে তাতে রবিবার লা লিগায় রিয়াল বেতিসের বিরুদ্ধে মেসির খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।