বিশ্বকাপটা মোটেও ভাল যায়নি শিখর ধবনের। মাত্র দু’টি ম্যাচ খেলার পরেই তাঁকে ছিটকে যেতে হয়। তার মধ্যে ছিল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি।

অজিদের বিরুদ্ধে খেলার সময়ে কুল্টার নাইলের হঠাৎ লাফিয়ে ওঠা একটা ডেলিভারি এসে আছড়ে পড়ে ধবনের বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলে। এক্স রে করে দেখা যায়, তাঁর বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলে চিড় ধরেছে। সেই চোট তাঁকে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দেয়। চোট সারিয়ে ক্যারিবিয়ান সফরে দলে ফিরলেও ধবনের ব্যাটে রান নেই।

ধর্মশালায় অনুষ্ঠিত প্রথম টি টোয়েন্টি ম্যাচ বৃষ্টির জন্য পরিত্যক্ত হয়ে যায়। মোহালির দ্বিতীয় ম্যাচে রানে ফেরাই লক্ষ্য ধবনের। হরভজন সিংহ মনে করেন, সাদা বলের ক্রিকেটে ধবনের অবদান ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি বা সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মার মতোই সমান গুরুত্বপূর্ণ। ভাজ্জি বলেছেন, ‘‘ধবন ও রোহিত শর্মা ভারতের অন্যতম সেরা শিল্পী ক্রিকেটার। এই মুহূর্তে দেশের সেরা ওপেনিং জুটি। শিখর ধবনের অবদান রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহালির মতোই গুরুত্বপূর্ণ।” ধবনের ব্যাট চলতে শুরু করলে তাঁকে থামায় কার সাধ্যি! বড় ইনিংস খেলার ক্ষমতা ধরেন এই বাঁ হাতি ওপেনার। 

আরও পড়ুন- মোহালিতে আজ নজরে সেই ঋষভ

আরও পড়ুন- নেতৃত্বের চাপ নিতে তৈরি ডি কক

ধবন প্রসঙ্গে ভারতের প্রাক্তন অফ স্পিনার বলছেন, “টি টোয়েন্টি হোক বা ওয়ানডে ফরম্যাট, শিখর দারুণ। রোহিতের সঙ্গে ওপেনার হিসেবে ধবনের থেকে ভাল কেউ নেই। আগামী ২-৩ বছর যদি ফিটনেস নিয়ে ধবন খাটেন, তা হলে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠবে।” ঘরের মাঠে হারানো ফর্ম খুঁজে পাওয়ার জন্য নামবেন ধবন।