এশিয়ার প্রথম দল হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট সিরিজ জিতল শ্রীলঙ্কা। শনিবার পোর্ট এলিজাবেথে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট আট উইকেটে জিতল তারা। এর আগে ডারবানে সিরিজের প্রথম টেস্ট নাটকীয় ভাবে এক উইকেটে জিতেছিল দিমুথ করুণারত্নের দল। এ দিনের জয়ের ফলে টেস্ট সিরিজ দাপটে ২-০ করে পকেটে পুরল শ্রীলঙ্কা।

জেতার জন্য চতুর্থ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ১৯৭ রান। দুই উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় তারা। ৩৪ রানে দুই উইকেট পড়ার পর অবিচ্ছিন্ন তৃতীয় উইকেটে ১৬৩ রান যোগ করেন কুশল মেন্ডিস এবং ওশাদা ফার্নান্দো। চার নম্বরে নেমে ৮৪ রানে অপরাজিত থাকেন কুশল। তাঁর ইনিংসে ছিল ১৩ বাউন্ডারি। তিন নম্বরে নেমে ওশাদা অপরাজিত থাকেন ৭৫ রানে। তাঁর ইনিংসে ছিল ১০টি চার ও দুটো ছয়।

ঘরের মাঠে গত আট টেস্ট সিরিজে হারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা। শ্রীলঙ্কার আগে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ জিতেছে দক্ষিণ আফ্রিকায় এসে। ১৯৯৭, ২০০২, ২০০৬, ২০০৯ ও ২০১৪ সালে এদেশে এসে টেস্ট সিরিজ জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। আর ইংল্যান্ড ২০০৪-০৫ ও ২০১৫-১৬ মরসুমে দক্ষিণ আফ্রিকায় এসে   জিতেছিল টেস্ট সিরিজ।

আরও পড়ুন: গাপ্টিল, গেলের রেকর্ড ভাঙার হাতছানি রোহিত শর্মার সামনে​

আরও পড়ুন: বিগ ব্যাশ লিগে খেলার সুবিধা পাবে অস্ট্রেলিয়া, হুঙ্কার ক্যারের​

শনিবার দুই উইকেটে ৬০ রান নিয়ে শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। ডেল স্টেন, কাগিসো রাবাদারা ছিলেন বিপক্ষের আট উইকেটের লক্ষ্যে। আর শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ১৩৭ রান। সেই লক্ষ্যে অনায়াসেই পৌঁছে যায় তারা। ম্যাচের সেরা কুশল মেন্ডিস বলেন,“দলের কাজে আসতে পেরে খুশি।” শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক করুণারত্নে বলেন, “দক্ষিণ আফ্রিকায় এসে টেস্ট সিরিজ জেতা কোনও ভাবেই সহজ নয়। আমরা খুব ভাল খেলেছি বলেই ইতিহাস তৈরি করেছি।” অন্য দিকে, প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডুপ্লেসি বলেন,“খুব হতাশ। ব্যক্তিগত ভাবে এটা আমার সবচেয়ে হতাশাজনক সিরিজ হারের মধ্যে থাকবে।”

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল, টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)