Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

নিজেদের ভুল বুঝে ফক্সের উপর নির্বাসন তুলে নিল ফেডারেশন

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৯ জানুয়ারি ২০২১ ১২:৪১
শনিবারই নামতে পারবেন ফক্স। ফাইল ছবি

শনিবারই নামতে পারবেন ফক্স। ফাইল ছবি

চলতি আইএসএলে ভুল রেফারিং নিয়ে আগেই নড়েচড়ে বসেছিল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ)। সেই সূত্রেই এ বার এসসি ইস্টবেঙ্গলের অধিনায়ক ড্যানি ফক্সের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নিল তারা। ফলে শনিবার ফতোরদা স্টেডিয়ামে বেঙ্গালুরু এফসি-র বিরুদ্ধে এই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডারের খেলতে কোনও বাধা রইল না। শনিবার সকালে আরও একবার গত ম্যাচের ভিডিয়ো ফুটেজ দেখতে বসেন ফেডারেশন কর্তারা। দেখা যায়, ফক্সের ট্যাকল কোনওমতেই ‘ফাউল’ নয়। তাই লাল কার্ড দেখানোর প্রশ্ন ছিল না। অতঃপর নিজেদের ‘ভুল’ বুঝতে পেরে ফক্সের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এআইএফএফ। যদিও হেড কোচ রবি ফাওলারের এক ম্যাচের নির্বাসন বহাল রয়েছে। তাঁর পরিবর্তে সুনীল ছেত্রীদের বিরুদ্ধে বেঞ্চে বসবেন দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর টনি গ্রান্ট।

লাগাতার ভুল সিদ্ধান্তের জন্য আগেই দুই রেফারিকে শাস্তি দিয়েছিল ফেডারেশন। তাই আইএসএলের দ্বিতীয় পর্বে আর রেফারিং করতে পারবেন না ওই দুই রেফারি। প্রথম পর্বের ৫০টি ম্যাচে ১৩ জন রেফারি ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। তার মধ্যে একটি ম্যাচ পরিচালনা করেই চোটের কবলে পড়েন আর ভেঙ্কটেশ। বায়ো বাব্‌লের বাইরে চলে যান তিনি। এবার তার সঙ্গে যুক্ত হলেন আরও দুই রেফারি। পাশাপাশিই ভুল বুঝে ফক্সের উপর থেকে নির্বাসনও তুলে নেওয়া হল। ফলে বেঙ্গালুরু এফসি-র বিরুদ্ধে ৯০ মিনিটের যুদ্ধে নামার আগে মাঠের বাইরে একটা ম্যাচ জিতল লাল-হলুদ বাহিনী। ফক্সের উপর নির্বাসন তুলে নেওয়ার পাশাপাশি দুই রেফারিকে শাস্তি দেওয়া হলেও ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস কিন্তু রেফারিদের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে রাজি নন। বরং তিনি বলছেন, ‘‘রেফারিরা ভালভাবে ম্যাচ পরিচালনা করার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। জৈব বলয়ের মধ্যে থেকে থেকে ওঁরা লাগাতার ম্যাচ খেলাচ্ছেন। সেটাও মাথায় রাখা উচিত।’’

শুধু এফসি গোয়া ম্যাচ নয়। চলতি আইএসএলে একাধিক ম্যাচে রেফারিংয়ের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন ফাওলার। মরসুমের শুরুতে হারের হ্যাটট্রিক করার পর শক্তিশালী জামশেদপুর এফসি-র বিরুদ্ধে ১০ জন হয়ে যাওয়ার পরেও ম্যাচ ড্র করেছিলেন জ্যাক মাঘোমা-অ্যান্টনি পিলকিংটনরা। সেই ম্যাচে ইউজেনসিং লিংডোকে অদ্ভুতভাবে জোড়া হলুদ কার্ড দেখিয়ে (যার জেরে লাল কার্ড) মাঠ ছাড়তে বাধ্য করেন রেফারি রাহুল কুমার গুপ্ত। নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে দু’বার ন্যায্য পেনাল্টি থেকেও ইস্টবেঙ্গলকে বঞ্চিত করা হয়। এর মধ্যে মাঘোমার একটা গোল ছিল। ফলে একাধিক ম্যাচের শেষে রবি ফাওলার বলছিলেন, ‘‘আমরা তো ১২ জনের বিরুদ্ধে খেলেই চলছি!’’ শুধু ইস্টবেঙ্গল নয়, কলকাতার আরও এক প্রধান এটিকে মোহনবাগান কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাসও খুশি নন রেফারিং নিয়ে। রেফারিং নিয়ে অসন্তোষ দেখা গিয়েছে এফসি গোয়া, জামশেদপুর এফসি শিবিরেও। প্রকাশ্যে এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন জামশেদপুর কোচ ওয়েন কোয়েল এবং এফসি গোয়ার কোচ হুয়ান ফেরান্দো।

Advertisement

আরও খবর: ভুল রেফারিংয়ের জন্য দ্বিতীয় পর্বের আইএসএল থেকে বাদ পড়লেন দুই রেফারি

আরও খবর: মাঠে ঋদ্ধি, কনুইয়ে চোট পেলেন ঋষভ পন্থ

অন্যদিকে, শনিবার থেকেই শুরু হচ্ছে আই লিগ। আবার ১২ জানুয়ারি, মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়ে যাবে দ্বিতীয় পর্বের আইএসএল। এমতাবস্থায় অবস্থায় ভাল মানের রেফারি পাওয়া নিয়ে চিন্তায় ফেডারেশন। শনিবার থেকে আই লিগ শুরু হওয়ায় দ্বিতীয় পর্বের আইএসএলের জন্য নতুন কোনও রেফারি পাওয়া নিয়ে সমস্যায় পড়তে পারে এআইএফএফ।

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement