Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বঙ্গযোদ্ধাদের গানে কোমর দোলাবেন অক্ষয়কুমার

গানের কথা জানতে চাইলে নিজেই দু’কলি গেয়ে দিলেন সন্দীপ। ‘‘লে চুনৌতি হম সে তু, কিতনা দম দে দিখলা দে। খেলে হাম জি জান সে, রোখ সকে তো রোখ লে...।’

দেবাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়
মুম্বই ০১ জুন ২০১৮ ০৩:৫৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
নায়ক: বঙ্গযোদ্ধাদের সঙ্গে শুটিং করবেন অক্ষয়কুমার। ফাইল চিত্র

নায়ক: বঙ্গযোদ্ধাদের সঙ্গে শুটিং করবেন অক্ষয়কুমার। ফাইল চিত্র

Popup Close

ইন্ডিয়ান সুপার লিগ ও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ট্রফি কলকাতায় এসেছে। কিন্তু প্রো-কবাডি লিগের ট্রফি এখনও আসেনি কলকাতায়। তাই আক্ষেপের শেষ নেই টুর্নামেন্টে বাংলার দল ‘বেঙ্গল ওয়ারিয়র্স’-এর চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) সন্দীপ তারকাশের। তাই ট্রফি জিততে কোমর বেঁধে এ বার তিনি ঝাঁপাচ্ছেন বঙ্গযোদ্ধাদের নিয়ে।

তার জন্য প্রচেষ্টার কমতি নেই তাঁর। দু’মাস আগে কেরলের কাসরগড়ে গিয়ে গত বছরের ধরে রাখা খেলোয়াড়দের নিয়ে আবাসিক শিবির করেছেন। কিন্তু এ বার দলের মনোবল চাঙ্গা করতে গত বাহাত্তর ঘণ্টায় তৈরি করে ফেলেছেন দুরন্ত এক ‘থিম সং’। সেপ্টেম্বর মাস থেকে দক্ষিণ কলকাতার টলি ক্লাবে বঙ্গযোদ্ধাদের প্রস্তুতি শিবিরে বাজবে যে গান।

জুলাই মাসে মুম্বইয়ে বঙ্গযোদ্ধাদের সিনিয়র খেলোয়াড়দের নিয়ে শুট হবে সেই মিউজিক ভিডিয়োর। প্রো-কবাডি লিগে খেলোয়াড় নিলামের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার এই তথ্য দিয়ে সন্দীপ বললেন, ‘‘সবার আগে টিমের মনোবল চাঙ্গা করতে হবে। তাই গানটা তৈরি করে নিলাম। সপ্তাহখানেকের মধ্যেই গানের রেকর্ডিং হয়ে যাবে। জুলাই মাসে মিউজিক ভিডিয়োর শুটিং। তখন হাজির থাকবেন, দলের অন্যতম মালিক বলিউড অভিনেতা অক্ষয়কুমার। গানের সঙ্গে কোমর দোলাতে দেখা যাবে অক্ষয়কে।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘ছবির শুটিংয়ে এই মুহূর্তে বিদেশে রয়েছেন অক্ষয়। আজ সকালেই কথা হল ওঁর সঙ্গে। দলের কথা শুনলেন। খুব খুশি। অক্ষয়ও বললেন, থিম সং থেকে ম্যাচ—সব জায়গাতেই সেরা হতে হবে বেঙ্গল ওয়ারিয়র্সকে। গত বছর অল্পের জন্য চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি। এ বার ট্রফি পেতেই হবে। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে যখন খেলা হবে তখন কলকাতায় আসতে পারেন অক্ষয়।’’

Advertisement

গানের কথা জানতে চাইলে নিজেই দু’কলি গেয়ে দিলেন সন্দীপ। ‘‘লে চুনৌতি হম সে তু, কিতনা দম দে দিখলা দে। খেলে হাম জি জান সে, রোখ সকে তো রোখ লে...।’’

মধ্যাহ্নভোজনের আগে সন্দীপের পাশে দাঁড়িয়ে এই গান শুনছিলেন জয়পুর পিঙ্ক প্যান্থার্সের মালিক অভিষেক বচ্চন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর খুনসুটি, ‘‘অক্ষয় আমার বড় ভাই। ওঁর সঙ্গে আমারও কথা হয়েছে। তবে এই গানটার কথা জানতাম না। ঠিক আছে, তোমরা তা হলে ভাল করে নাচা-গানা করো। আমরা বরং ট্রফিটা নেওয়ার জন্য তৈরি হই।’’ এ কথা বলেই হাসতে হাসতে হাত মেলালেন বঙ্গযোদ্ধাদের কর্তার সঙ্গে।

তবে গানের পাশাপাশি পারফরম্যান্সেও জোর দিচ্ছেন প্রো-কবাডি লিগে বাংলার দলের কোচ কেকে জগদীশ। ভারতীয় সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রাক্তন সেনাকর্মী এই কোচ, গত দু’দিন ধরে দলের ভিডিয়ো অ্যানালিস্টকে নিয়ে পড়ে রয়েছেন মুম্বইয়ে। নিলামেও অংশ নিয়েছেন। বলছেন, ‘‘গত বছর লেফ্ট্ কভার এবং রাইট কর্নার বিভাগে দক্ষ খেলোয়াড় না থাকায় চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি। এ বার কোটি টাকা দিয়ে খেলোয়াড় না নিলেও, পুরনোদের সঙ্গে নতুন কিছু খেলোয়াড় নিয়ে কার্যকরী দল গড়েছি আমরা। দল গঠনে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে লেফ্ট্ রেইডার, লেফ্ট্ কভার এবং অলরাউন্ডার বিভাগে। নজর দিয়েছিলাম জাতীয় জুনিয়র কবাডি চ্যাম্পিয়নশিপ এবং ফেডারেশন কাপ কবাডিতে। সেখান থেকেই প্রতিভাবান কয়েক জন খেলোয়াড়কে বেছে নিলামে ঘরে তুলেছি আমরা।’’

বঙ্গযোদ্ধাদের দলে রয়েছেন এ বার দুই বঙ্গসন্তান।

প্রথম জন বনগাঁর অমরেশ মণ্ডল গত বছরই দলে ছিলেন। এ বার সংযোজন হলেন, ওপার বাংলার জিয়াউর রহমান। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জওয়ান জিয়াউরকে বেঙ্গল ওয়ারিয়র্স কিনেছে ৩৩ লক্ষ টাকা দিয়ে। বিকেলে মুম্বই থেকে রংপুরের ছেলেকে ফোনে ধরা হলে বললেন, ‘‘ক্রিকেটে শাকিব-আল-হাসান, মাশরফি মর্তুজারা আগে কলকাতার দলে খেলেছে। আমাদের কাছে কলকাতা মানে তো ঘরের বাইরে আর একটা ঘর। দারুণ লাগছে কলকাতায় খেলতে পারব ভেবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement