Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

একই ম্যাচে জোড়া রেকর্ডে অস্ট্রেলিয়া ও গাপ্তিল

অকল্যান্ডের মাঠ ছোট হওয়ায় আশা করাই হয়েছিল হাই স্কোরিং ম্যাচ হতে চলেছে এটি। যেমন ভাবা, তেমনই ফল।

নিজস্ব সংবাদদাতা
অকল্যান্ড ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৯:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
ম্যাচ জিতে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের উচ্ছ্বাস। ছবি: এএফপি।

ম্যাচ জিতে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের উচ্ছ্বাস। ছবি: এএফপি।

Popup Close

অকল্যান্ডের মাঠে নয়া নজির গড়ল অস্ট্রেলিয়া। টি২০ ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বাধিক রান তাড়া করে ম্যাচ জয়ের নজির ডেভিড ওয়ার্নারের দলের। শুক্রবার অকল্যান্ডে ট্রাই সিরিজের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দুই প্রতিবেশি দেশ নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। অকল্যান্ডের মাঠ ছোট হওয়ায় আশা করাই হয়েছিল হাই স্কোরিং ম্যাচ হতে চলেছে এটি। যেমন ভাবা, তেমনই ফল।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড।

কিউই ইনিংসের প্রথম থেকেই স্ব-মেজাজে ধরা দেন মার্টিন গাপ্তিল। ৪৯ বলে সেঞ্চুরি করেন মার্টিন। তার আগেই করে ফেলেছেন বিশ্ব রেকর্ড। নিজের দেশেরই ব্রেন্ডন ম্যাকালামের টি২০ তে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছেন। ৭০ ম্যাচে ২১৪০ রান করেছিলেন ম্যাকালাম। এ দিন ব্যাক্তিগত ৫৮ রান করতেই ম্যাকালামের সেই রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়লেন গাপ্তিল। যখন থামলেন তাঁর নামের পাশে ২১৮৮ রান। এই সেঞ্চুরির সৌজন্যে আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ডের হয়ে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডও গড়েন তিনি। ভেঙে দিলেন ৫০ বলে করা ব্রেন্ডন ম্যাকালামের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড। ৫৪ বলে ১০৫ রানের ইনিংস খেলেন মার্টিন। গাপ্তিলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৯টি ছয় এবং ৬টি চার দিয়ে। আইপিএলে দল না পাওয়া মার্টিন নিঃসন্দেহে এ দিন বুঝিয়ে দিলেন তাঁকে দলে না নিয়ে কত বড় ভুল করেছেন আইপিএলের ফ্যাঞ্চাইজিগুলি।

Advertisement

আরও পড়ুন: বিরাট আসলে সৌরভের উন্নততর সংস্করণ: সহবাগ

আরও পড়ুন: ‘আইপিএল-এর টাকা ক্রিকেটারদের ভাল খেলতে অনুপ্রাণিত করে’

গাপ্তিল ছাড়া রান পান কলিন মুনরো(৭৬)। ৩৩ বলে ৭৬ রানের ইনিংস খেলেন মুনরো। মুনরোর ইনিংসে ছিল ৬টি ছয় এবং ৬টি চার। গাপ্তিল-মুনরো জুটি ছাড়াও নিউজিল্যান্ডতে বড় রানে পৌঁছতে সাহায্য করেন রস টেলর, মার্ক চ্যাপম্যানরা। নির্ধারিত ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৪৩ রান তোলে নিউজিল্যান্ড।

গ্যালারিতে উপস্থিত কিউই সমর্থকরা হয়ত ধরেই নিয়েছিলেন এই ম্যাচ সহজেই জিতে যাবে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু ক্রিকেটে যে কোনও কিছুই অসম্ভব নয়, তা প্রমাণ করে দিল অস্ট্রেলিয়া।

২৪৪ রানের লক্ষ্যমাত্র তাড়া করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ওভারের থেকে ৭ বল কম খেলে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় অস্ট্রেলিয়া। ১৮.৫ ওভারে অস্ট্রেলিয়া ২৪৫/৫। অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার একাই খেলেন ৫৯ রানের ইনিংস। ওয়ার্নারের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৫টি ছয় এবং ৪টি চার দিয়ে। তবে, ওয়ার্নার নন, এ দিন কিউই বধের নায়ক ডি আরসি শর্ট। ৩টি ছয় এবং ৮টি চারের সৌজন্যে ৪৪ বলে ৭৬ রান করেন এই বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান। ম্যাচের সেরাও নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ওয়ার্নার এবং শর্ট ছাড়াও অস্ট্রেলিয়াকে এই রেকর্ড করতে সাহায্য করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল(৩১) এবং অ্যারন ফিঞ্চ(৩৬)।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement