Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ফেভারিট তো ওরাই, পাল্টা চাল রাহানের

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৪:২৮

আসন্ন টেস্ট সিরিজে অস্ট্রেলিয়াই ফেভারিট, হঠাৎই এমন মন্তব্য করে বসলেন অজিঙ্ক রাহানে। অ্যাডিলেডে সিরিজ শুরু হওয়ার আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে ভারতীয় টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক বলে দিলেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়া ঘরের মাটিতে খেলছে। যে কোনও দলই নিজেদের দেশে খেলার সময়ে এগিয়ে থাকে। আমি তাই মনে করি টেস্ট সিরিজ জেতার ব্যাপারে অস্ট্রেলিয়াই ফেভারিট।’’

রাহানের মন্তব্য নিয়ে জলঘোলা শুরু হয়েছে কারণ অনেক বিশেষজ্ঞই বলেছেন, স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওয়ার্নার না থাকায় এ বারে কোহালির ভারত অনেক এগিয়ে। সেখানে রাহানে কেন উল্টো সুর ধরলেন? মনে করা হচ্ছে, প্রথম টেস্ট শুরুর আগে এটা চাপ কমানোর কৌশল। যত পারো ফেভারিট তকমা প্রতিপক্ষের ঘাড়ে চাপিয়ে দাও। রাহানে যদিও মানছেন, ‘‘স্টিভ স্মিথ আর ডেভিড ওয়ার্নারের অভাব ওরা অনুভব করবে ঠিকই।’’ কিন্তু দ্রুত যোগ করছেন, ‘‘তা বলে ওদের হাল্কা ভাবে নেওয়ার কোনও কারণ নেই।’’

এর পরেও যাঁরা বিশ্বাস করতে পারছেন না অস্ট্রেলিয়াই ফেভারিট, রাহানে তাঁদের অনুরোধ করছেন প্রতিপক্ষ বোলিং বিভাগের দিকে তাকাতে। ‘‘ওদের বোলিং আক্রমণ দারুণ। আমার মনে হয়, টেস্ট ম্যাচ জিততে গেলে সবার প্রথমে বোলিং বিভাগটা ভাল হওয়া দরকার। অস্ট্রেলিয়ার সেটা আছে।’’ তার পরেই আবার সেই এক কথা আউড়ে গেলেন, ‘‘আমি তাই মনে করি, অস্ট্রেলিয়াই ফেভারিট।’’

Advertisement

গত অস্ট্রেলিয়া সফরে অধিনায়ক বিরাট কোহালি চারটি টেস্টে চারটি সেঞ্চুরি করেছিলেন। কোহালির মতো ৬৯২ রান করতে না পারলেও বেশ ভাল সফর গিয়েছিল রাহানের। ৬৭ ব্যাটিং গড়ে তিনি চার টেস্টে মোট করেছিলেন ৩৯৯ রান। ভারত সিরিজ হেরে যায় ০-২ ফলে কিন্তু কোহালিদের আগ্রাসী ক্রিকেট মন জয় করে নিয়েছিল ক্রিকেটপ্রেমীদের। গত সফরের কথা মনে করে রাহানে বলে দিচ্ছেন, ‘‘দল হিসেবে ভাল করতে পারলে অন্য রকম একটা সুন্দর অনুভূতি হয়। ক্রিকেট তো টিম স্পোর্ট, তাই না? আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব দলের প্রতি অবদান রাখা।’’

আরও পড়ুন: মিশন অস্ট্রেলিয়া, অ্যাডিলেডে কেমন হতে পারে ভারতের প্রথম একাদশ

তাঁর মতে, ভারতকে সাফল্য পেতে হলে বড় পার্টনারশিপ গড়ার দিকে নজর দিতে হবে। ২০১৪-’১৫ সিরিজে বক্সিং ডে টেস্ট ম্যাচের প্রথম ইনিংসে কোহালির সঙ্গে তাঁর ২৬২ রানের পার্টনারশিপের উদাহরণ টেনে আনেন রাহানে। সেই ইনিংসে কোহালি করেছিলেন ১৬৯, রাহানে ১৪৭। বলেন, ‘‘আমরা সত্যিই শেষ বারের সফরটা খুব উপভোগ করেছিলাম। বিরাটকে আউট করার জন্য মিচেল জনসন একেবারে ক্ষেপে গিয়েছিল। অন্য দিক থেকে আমি নিজের খেলা খেলছিলাম। বিরাট খুবই আক্রমণাত্মক খেলছিল। আমি একদম ওর বিপরীত ভঙ্গিতে এগোচ্ছিলাম।’’

দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ড সিরিজে ব্যর্থতার জন্য ভারতীয় ব্যাটিং প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছিল। একমাত্র বিরাট কোহালি ছাড়া কেউ তেমন সফল হননি। সেই প্রসঙ্গ তোলা হলে রাহানে বলছেন, ‘‘মানুষ হয় প্রশংসা করবে না হলে সমালোচনা। তবে আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হল, কঠিন সময়ে একজোট থাকা। ইংল্যান্ডে পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া খুব কঠিন হয়ে উঠেছিল। এমনকি, ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদেরও মানাতে যথেষ্ট সমস্যায় পড়তে হচ্ছিল। শেষ টেস্টে অ্যালেস্টেয়ার কুকের ইনিংস ছাড়া ওদের আর কোনও ব্যাটসম্যান কিন্তু খুব বড় রান পায়নি।’’

এ বার সামনে স্মিথ এবং ওয়ার্নার ছা়ড়া অস্ট্রেলিয়া। প্রতিপক্ষ ব্যাটিং নিয়ে ভারতের সহ-অধিনায়কের বিশ্লেষণ, ‘‘নিশ্চিত ভাবে স্মিথ আর ওয়ার্নার খুব ভাল ক্রিকেটার। আমি সেটা মাথায় রেখেও বলছি যে কোনও দিন কেউ বড় রান করতেই পারে। উসমান খোয়াজা এবং অ্যারন ফিঞ্চও একই রকম বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান এই পরিবেশে। ওরা জানে এই পিচে কী ভাবে খেলতে হয়।’’

সোমবার বিশ্রাম নেওয়ার পরে মঙ্গলবার প্রথম টেস্টের প্রস্তুতিতে নেমে পড়তে দেখা যায় ভারতীয় দলকে। প্রধান ব্যাটসম্যানেরা সকলেই নেটে পড়ে থাকলেন প্রস্তুতি সারতে। প্রথম টেস্টে ছয় নম্বরে রোহিত শর্মাকে খেলানো হবে না কি হনুমা বিহারীকেই ধরে রাখা হবে, সেটাই এখন দেখার। বোলিং বিভাগে তিন পেসারের সঙ্গে এক স্পিনার নিয়ে নামার সম্ভাবনাই বেশি।

আরও পড়ুন

Advertisement