×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ মে ২০২১ ই-পেপার

মেয়াদ উত্তীর্ণ ভিসা, কলকাতা বিমানবন্দরে জরিমানা বাংলাদেশের ক্রিকেটারের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৮ নভেম্বর ২০১৯ ১৬:৪১
ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট দলে থাকলেও খেলেননি সইফ। ছবি ফেসবুক থেকে নেওয়া।

ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট দলে থাকলেও খেলেননি সইফ। ছবি ফেসবুক থেকে নেওয়া।

ভিসার মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ার পরও ছিলেন কলকাতায়। আর সেই কারণে কলকাতা বিমানবন্দরে আটকে পড়েন বাংলাদেশের ওপেনার সইফ হাসান। দেশে ফেরার জন্য ২১,৬০০ টাকা জরিমানাও দিতে হয়েছে তাঁকে।

বাংলাদেশ দলের সঙ্গে টেস্ট সিরিজের বিকল্প ওপেনার হিসেবে ভারতে এসেছিলেন সইফ। কিন্তু কোনও টেস্টেই তিনি খেলেননি। ইডেনে গোলাপি বলের টেস্টে চোটের জন্য ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। দলের সঙ্গেই কলকাতায় থেকে গিয়েছিলেন তিনি। বুঝতেই পারেননি যে তাঁর ছয় মাসের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে।

বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনার তৌফিক হাসান বলেছেন, “হাসানের ভিসা দুই দিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছিল। আর এটা ও উপলব্ধি করে বিমানবন্দরে। ফলে ও বুকিং হওয়া ফ্লাইটে উঠতে পারেনি। বেশি সময় থাকার জন্য নতুন নিয়মে জরিমানা হয়েছে ওর। সৌভাগ্যবশত, ভারতীয় হাই কমিশন ওঁর ভিসার ব্যাপারে ক্লিয়ারেন্স দেওয়ায় বুধবার ও দেশে ফিরেছে।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘অতীতকে ভুলে যাওয়া ঠিক হবে না’, গাওস্করের সুরেই আক্রমণাত্মক কারসন ঘাউড়ি​

আরও পড়ুন: কুম্বলের সঙ্গে ছবি পোস্ট! সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের ট্রোলড হলেন শাস্ত্রী​

ইডেনে ভারতের কাছে ইনিংস ও ৪৬ রানে হারের পর বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা একসঙ্গে দেশে ফেরেননি। কয়েকজন রবিবার রাতেই ফিরে যান। সইফ সহ বাকি ক্রিকেটারদের দেশে ফেরার কথা ছিল সোমবার কিন্তু, বিমানবন্দরে আটকে দেওয়া হয় তাঁকে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পুরো দলেরই ভিসা ঠিক করেছিল। কিন্তু সইফের আগেই ভারতের ভিসা থাকায় তাঁকে বাদ দিয়ে বাকি দলের ভিসা করা হয়। তাঁর ভিসা ইস্যু করা হয়েছিল জুনে। কিন্তু সইফ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, কারওরই খেয়াল ছিল না যে সইফের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে এর মধ্যেই। এই কারণেই ভুগতে হল তাঁকে।

Advertisement