Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
Anti-Corruption Unit

বিশ্বকাপ ফাইনালে গড়াপেটা নিয়ে এ বার মুখ খুললেন বিসিসিআই দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান

দুর্নীতি নিয়ে কোনও তদন্ত শুরু হলে তা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলেরই করা উচিত বলে মনে করেন বিসিসিআইয়ের দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান অজিত সিংহ।

২০১১ বিশ্বকাপ জেতার পর সচিনদের উচ্ছ্বাস। প্রশ্ন উঠেছে এই ম্যাচ নিয়েই। ছবি: রয়টার্স।

২০১১ বিশ্বকাপ জেতার পর সচিনদের উচ্ছ্বাস। প্রশ্ন উঠেছে এই ম্যাচ নিয়েই। ছবি: রয়টার্স।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ জুলাই ২০২০ ১৫:০২
Share: Save:

২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ গড়াপেটার অভিযোগ নিয়ে তদন্ত করছে শ্রীলঙ্কা সরকার। কিন্তু, সেই ম্যাচের প্রায় এক দশক পর সঠিক তথ্য বেরিয়ে আসা কঠিন বলে মনে করছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের দুর্নীতি দমন শাখা।

Advertisement

শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী মহিন্দনন্দ অতুলগামাগে সম্প্রতি বলেছেন, ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ গড়াপেটা করেছিল শ্রীলঙ্কা। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে ক্রিকেটমহলে। সেই অভিযোগ নিয়েই তদন্ত শুরু করেছে শ্রীলঙ্কা পুলিশ। ওই সময় শ্রীলঙ্কার জাতীয় নির্বাচক কমিটির দায়িত্বে থাকা অরবিন্দ ডি’সিলভাকে শনিবার টানা ছয় ঘণ্টা জেরা করা হয়েছে। জেরার মুখে পড়েছেন বিশ্বকাপ দলে থাকা উপুল থরঙ্গাও।

আরও পড়ুন: দলে নেই গেল-নারিন-মালিঙ্গা! আইপিএলে সর্বকালের সেরা একাদশ বেছে চমক ডেভিলিয়ার্সের

আরও পড়ুন: ঋদ্ধি-পন্থ-রাহুল, কোন ফর্ম্যাটে কাকে খেলানো উচিত? ব্যাখ্যা করলেন হগ

Advertisement

এই বিষয়েই মুখ খুলেছেন বিসিসিআইয়ের দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান অজিত সিংহ। ‘দ্য উইক’-এ তিনি বলেছেন, “১০ বছর পর এই বিষয়টি উঠে আসায় আমি অবাক। আমার অভিজ্ঞতা বলে, তদন্ত করতে যত দেরি হবে প্রমাণ মিলতে তত দেরি হবে।”

দুর্নীতি নিয়ে কোনও তদন্ত শুরু হলে তা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলেরই করা উচিত বলে মনে করেন তিনি। তাঁর যুক্তি, “বিশ্বকাপ খেলা হচ্ছিল আইসিসির অধীনে। তাই দুর্নীতি সংক্রান্ত যদি কোনও অভিযোগ ওঠে তবে তা আইসিসিরই তদন্ত করা উচিত। আর ভারতে ওই ম্যাচ নিয়ে কোনও প্রশ্ন ওঠেনি।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.