Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
BCCI

CWG 2022: ম্যাকগ্রার কোভিড-বিতর্ক ধামাচাপা দিতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া, হরমনের মুখে ‘খেলোয়াড়ি মানসিকতা’

কোভিড নিয়েই ফাইনালে খেলেছেন টালিয়া ম্যাকগ্রা। অস্ট্রেলিয়া যেখানে বিতর্ক এড়াতে চাইছে, সেখানে মানবিকতা দেখাল ভারত।

টালিয়া ম্যাকগ্রা।

টালিয়া ম্যাকগ্রা। ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৮ অগস্ট ২০২২ ১৬:১০
Share: Save:

কমনওয়েলথ গেমস ক্রিকেটের ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে কোভিড নিয়েই খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার টালিয়া ম্যাকগ্রা। গোটা বিশ্বে তা নিয়ে চূড়ান্ত সমালোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে। সবারই প্রশ্ন, কোভিড নিয়ে কী ভাবে ম্যাচ খেলার অনুমতি দেওয়া হল ম্যাকগ্রাকে? সেই সমালোচনার পাল্টা অদ্ভুত যুক্তি দেওয়া হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার তরফে।

রবিবার টস ১২ মিনিট দেরিতে হয়। তখনই কারণ জানা যায়নি। ম্যাচ চলাকালীন বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। জানা যায়, ম্যাকগ্রা করোনা আক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও তাঁকে খেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় শিবির এতে হকচকিয়ে যায়। তবে কমনওয়েলথ গেমসের আয়োজকরা অনুমতি দেওয়ায় মেনে নেওয়া ছাড়া কিছু করার উপায় ছিল না। অস্ট্রেলিয়ায় এই প্রতিযোগিতা হলে ম্যাকগ্রা হয়তো খেলার অনুমতি পেতেন না। কমনওয়েলথে কোভিড-সংক্রান্ত নিয়ম অনেক বেশি শিথিল। তাই জন্যেই ম্যাকগ্রার কোভিড হওয়া সত্ত্বেও বেশি অসুস্থ না থাকায় তাঁকে খেলার অনুমতি না দেওয়া হয়।

ম্যাকগ্রা গোটা দলের থেকে নিজেকে আলাদা করে রেখেছিলেন। ব্যাট করার আগে ও পরে মাস্ক পরে বসেছিলেন। তবে ব্যাটিং এবং ফিল্ডিংয়ের সময় তাঁকে মাস্ক পরতে দেখা যায়নি। একটি ক্যাচ নেওয়ার পরেও সতীর্থদের বারণ করেন তাঁর দিকে ছুটে এসে উচ্ছ্বাস করতে। অন্য সময় দলের উচ্ছ্বাসেও তিনি অংশ নেননি।

এত সবের পরেও বিতর্ক এড়ানো যাচ্ছে না। অস্ট্রেলিয়া নেমে পড়েছে গোটা ঘটনাটিকে ধামাচাপা দিতে। অধিনায়ক মেগান শুট ম্যাচের পর বলেছেন, “ও খেলেছে এটা দেখে আমরা সবাই খুশি। শরীর একদম ঠিক ছিল ওর। কোভিড পজিটিভ হওয়ায় একটু চমকে গিয়েছিল। তবে এখন তো আমাদের সবাইকেই কোভিড নিয়েই বেঁচে থাকতে হচ্ছে তাই না? তাই ব্যাপারটা নিয়ে বেশি ভাবছি না।”

শুট এ-ও বলে দিয়েছেন, ম্যাকগ্রার থেকে তাঁদেরও যদি করোনা হয়ে যায় তাতেও আপত্তি নেই। শুটের কথায়, “ক্রিকেটের মতো উত্তেজক একটা খেলায় ম্যাকগ্রার দলে থাকা দরকার ছিল। আমরা সবাই মিলেই উচ্ছ্বাস করতে চাই। কোভিড হয়ে গেলে তাতেও সমস্যা হবে না।”

ভারতের তরফে অবশ্য বিষয়টি নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করা হয়নি। ম্যাচের পর ভারতের অধিনায়ক হরমনপ্রীত বলেছেন, “টসের ঠিক আগে ব্যাপারটা জানতে পারলাম। আমাদের নিয়ন্ত্রণে কিছুই ছিল না। কমনওয়েলথ আয়োজকরাই ওকে খেলার অনুমতি দিয়েছিলেন। ম্যাকগ্রা অসুস্থ নয় দেখে আমরাও আপত্তি করিনি। আমরা খেলোয়াড়ি মানসিকতার পরিচয় দিতে চেয়েছি। ম্যাকগ্রার খেলতে না দেওয়ার অনুরোধ করিনি। কারণ, ফাইনালের মতো ম্যাচে সবাই খেলতে চায়। ও আরও দুঃখ পেত।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.