Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
India vs Australia

কী ভাবে ফিনিশার হয়ে উঠলেন, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দলকে জিতিয়ে জানালেন কার্তিক

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের শেষ ওভারে ড্যানিয়েল স্যামসের প্রথম দুই বলে ছয় এবং চার মেরে চার বল বাকি থাকতেই দলকে জিতিয়ে আরও এক বার ফিনিশার হিসাবে নিজেকে প্রমাণ করলেন দীনেশ কার্তিক। ম্যাচের পর কথা বললেন তিনি।

সাংবাদিক বৈঠকে দীনেশ কার্তিক।

সাংবাদিক বৈঠকে দীনেশ কার্তিক। ছবি বিসিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:১৬
Share: Save:

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ়ে সমতা ফেরাতে শেষ ওভারে ভারতের দরকার ছিল ১০ রান। ড্যানিয়েল স্যামসের প্রথম দুই বলে ছয় এবং চার মেরে চার বল বাকি থাকতেই দলকে জিতিয়ে আরও এক বার ফিনিশার হিসাবে নিজেকে প্রমাণ করলেন দীনেশ কার্তিক।

Advertisement

তাঁর ফিনিশার হয়ে ওঠার পিছনে রহস্য কী? কতটা পরিশ্রম লাগে চাপের মুহূর্তে মাথা ঠান্ডা রেখে ম্যাচ শেষ করতে? শুক্রবার ম্যাচের পর কার্তিক বলেছেন, “অনুশীলনে এই ধরনের বিভিন্ন পরিস্থিতি তৈরি করে সেই অনুযায়ী খেলার চেষ্টা করি। অনেক দিন ধরেই এটা করছি। আরসিবি-র পরে ভারতীয় দলেও একই কাজ করছি। এখন আমার দৈনন্দিন কাজের অংশ হয়ে গিয়েছে এটা। রাহুল (দ্রাবিড়) ভাই এবং বিক্রম (রাঠৌর) ভাই আমাকে অনেক সাহায্য করেন। কী ভাবে আমার অনুশীলন করা দরকার, কোন শট খেলা দরকার, সব বলে দেয়।” কার্তিক যোগ করেছেন, “নির্দিষ্ট বিষয় নিয়ে অনুশীলন করতে ভালবাসি। একটানা বেশি ক্ষণ অনুশীলন করা আমার ধাতে নেই। বিশেষ কিছু বিষয়ে জোর দেওয়ার চেষ্টা করি।”

প্রথম ম্যাচে অক্ষর পটেলের পর ব্যাট করতে এসেছিলেন তিনি। শুক্রবার তাঁকে আগে পাঠানো হল। কী ছিল দলের পরিকল্পনা? কার্তিক বলেছেন, “আমরা ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানোর চেষ্টা করছি। এমন অনেক ম্যাচ গিয়েছে, যেখানে শেষ দিকে দু’ওভার স্পিনারদের পিটিয়ে রান তুলে দিয়েছে অক্ষর। ম্যাচের কী পরিস্থিতি রয়েছে, সেই অনুযায়ী আমরা ঠিক করি কে কখন নামবে।”

প্রথম ম্যাচে ঋষভ পন্থকে রাখা হয়নি প্রথম একাদশে। দ্বিতীয় ম্যাচে আউটফিল্ড ভিজে থাকার কারণে ওভার কমে যাওয়ায় দলে নেওয়া হয় পন্থকে। সেই প্রসঙ্গে কার্তিক বলেছেন, “আজ আমাদের চার জন বোলারই দরকার ছিল। কারণ প্রত্যেকে দু’ওভারের বেশি করতে পারত না। পঞ্চম বোলার হিসাবে হার্দিক ছিলই। তাই পন্থকে খেলানো হয়েছে। হার্দিকের মতো ক্রিকেটার থাকলে যে কোনও দলেরই চিন্তা কমে যায়। দলে ভারসাম্য আসে। এক জন অতিরিক্ত ক্রিকেটারকে খেলানোর সুযোগ চলে আসে।”

Advertisement

রান তাড়া করতে নেমে ভারত চার উইকেট হারালেও শেষ পর্যন্ত টিকে ছিলেন রোহিত শর্মা। অধিনায়কের প্রশংসায় পঞ্চমুখ কার্তিক। বলেছেন, “কী অসাধারণ ব্যাটিং করল! এই পিচে নতুন বলে আক্রমণ করা সহজ কাজ নয়। শুধু ভারতীয় ক্রিকেট নয়, বিশ্ব ক্রিকেটে কেন ও অন্যতম সেরা ক্রিকেটার, সেটা আর এক বার বোঝাল।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.