Advertisement
২১ মে ২০২৪
India vs England 2024

ঈশানদের জন্য ভারতীয় দলের দরজা কি বন্ধ হয়ে গেল? সিরিজ়‌ জিতেই জবাব দিয়ে দিলেন রোহিত

রাঁচী টেস্ট জিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ়‌ পকেটে পুরেই ঈশান কিশনদের নিয়ে মুখ খুললেন রোহিত শর্মা। স্পষ্ট বার্তা দিলেন ভারত অধিনায়ক। ঈশানেরা কি আর জাতীয় দলে সুযোগ পাবেন?

cricket

রোহিত শর্মা। ছবি: পিটিআই।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৮:৪৮
Share: Save:

রাঁচী টেস্ট জিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ়‌ পকেটে পুরেই ঈশান কিশনদের বিষয়ে মুখ খুললেন রোহিত শর্মা। স্পষ্ট বার্তা দিয়ে জানালেন, কয়েক জন তরুণ ক্রিকেটারের মধ্যে জাতীয় দলের হয়ে খেলার মতো খিদে নেই। তাঁদের জাতীয় দলে খেলানোর কোনও অর্থ নেই।

দেশের মাটিতে টানা ১৭টি টেস্ট সিরিজ়‌ জিতল ভারত। রাঁচীতে পাঁচ উইকেটে জিতেছে তারা। সরফরাজ় খান, ধ্রুব জুরেল, যশস্বী জয়সওয়াল এবং আকাশ দীপের মতো তরুণ ক্রিকেটারেরা এই টেস্টে ভাল খেলেছেন। তাতে রোহিত যেমন খুশি, তেমনই ঈশানদের মতো ক্রিকেটারেরা যে ভাবে দলকে ব্রাত্য করে রেখেছেন, তাতে খুশি নন তিনি।

রোহিত বলেছেন, “যাদের মধ্যে খিদে রয়েছে তাদেরই সুযোগ দেওয়া হবে। খিদে না থাকলে সুযোগ দিয়ে কোনও লাভ নেই।” ফলে আগামী দিনে ঈশানদের জন্য জাতীয় দলের দরজা বন্ধ হয়ে গেল কি না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কিছু দিন আগেই বোর্ড সচিব জয় শাহ ক্রিকেটারদের উদ্দেশে চিঠি লিখে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তার পরেই এল রোহিতের মন্তব্য।

ভারত অধিনায়ক আরও বলেছেন, “এই দলে এমন কেউ নেই যার মধ্যে খিদে নেই। যারা এখানে আছে এবং যারা নেই, প্রত্যেকে খেলতে চায়। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে সুযোগ খুব কমই পাওয়া যায়। যদি সেটা কেউ কাজে না লাগায় সে হারিয়ে যাবে।”

রঞ্জি না খেললেও আইপিএলের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন ঈশান। তা হলে কি টি-টোয়েন্টি লিগই কি তরুণদের আকর্ষণের আসল কারণ? নাম না করে রোহিত বলেছেন, “টেস্ট ক্রিকেট সবচেয়ে কঠিন ফরম্যাট। যদি আপনি এই ফরম্যাটে উন্নতি এবং সাফল্য চান, তা হলে খিদে থাকতেই হবে। আমরা জানি কাদের মধ্যে খিদে রয়েছে আর কাদের নেই। যাদের খিদে রয়েছে, যারা কঠিন পরিস্থিতিতে খেলতে চায়, তা হলে প্রাধান্য দেওয়া হবে।”

আইপিএল নিয়ে রোহিত বলেছেন, “আইপিএল খুব ভাল ফরম্যাট। কিন্তু টেস্ট কঠিনতম ফরম্যাট। জিততে গেলে আপনাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। শেষ তিনটে জয় সহজে আসেনি। বোলারদের লম্বা স্পেলে বল করতে হয়েছে। ব্যাটারদের ক্রিজ কামড়ে পড়ে থাকতে হয়েছে।”

তরুণেরা শুধু পরিশ্রমই করেননি, যে ভাবে সাফল্যের জন্য পরিশ্রম করেছেন সেটাও ভাল লেগেছে রোহিতের। বলেছেন, “আমাদের খেলার স্টাইলের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য ওরা খোলা মানসিকতা নিয়ে খেলতে আসেন। এ রকম ক্রিকেটারদেরই চাই। নিজের আগে দলকে এগিয়ে দিতে হবে। আগামী দিনে আমাদের জন্য এই ক্রিকেটারেরা গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। এই ফরম্যাটে সাফল্য পাওয়ার ক্ষমতাও ওদের রয়েছে।”

এ দিকে, রাঁচীর পিচ নিয়ে অনেক কথাই হয়েছে। রোহিত সে সব উড়িয়েই দিয়েছেন। বলেছেন, “একজন শতরান করল। আর এক জন ৯০ করল। আরও দু’জন পঞ্চাশের বেশি রান করল। পিচ দেখে কী মনে হয় তাতে পাত্তা দিই না। কেমন খেলা হয়েছে সেটাই আসল। চার দিনই দুটো দলের কাছে জয়ের সুযোগ ছিল। ভারতের পিচে তো বল ঘুরবেই। নতুন কিছু তো নয়, গত ৫০ বছর এই জিনিস দেখছেন আপনারা।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE