Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
kuldeep yadav

IPL: কেকেআরে সুযোগ পাচ্ছিলাম না, বলে দিলেন কুলদীপ

কলকাতা নাইট রাইডার্সে থাকাকালীন সুযোগের অভাবে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন কুলদীপ।

ক্ষোভ: প্রত্যাবর্তন নিয়ে চিন্তায় ছিলেন কুলদীপ। ফাইল চিত্র

ক্ষোভ: প্রত্যাবর্তন নিয়ে চিন্তায় ছিলেন কুলদীপ। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ জুন ২০২২ ০৮:০০
Share: Save:

কলকাতা নাইট রাইডার্স শিবিরে ছিলেন আট বছর। শুরুর কয়েক বছরে নিয়মিত ভাবে তাঁকে সুযোগ দেওয়া হলেও শেষ তিন বছরে খেলেছিলেন মাত্র ১৪টি ম্যাচ। তিনি কুলদীপ যাদব। এ বারের আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালস দু’কোটি টাকায় নেয় তাঁকে। ১৪ ম্যাচে ২১ উইকেট নিয়ে প্রমাণ করে দেন, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তিনি এখনও ফুরিয়ে যাননি।

Advertisement

কেকেআরে থাকাকালীন সুযোগের অভাবে তাঁর আত্মবিশ্বাস অনেকটাই কমে গিয়েছিল। শেষ মরসুমে চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়ার পরে ভেবেছিলেন, টি-টোয়েন্টি ফর্ম্যাটে হয়তো আর ফিরতেই পারবেন না। কিন্তু তাঁর কোচ কপিল পাণ্ডের কাছে নিয়মিত অনুশীলন করে নিজেকে পরিণত করে ফিরেআসেন কুলদীপ।

কলকাতা নাইট রাইডার্সে থাকাকালীন সুযোগের অভাবে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলেন কুলদীপ। একটি ওয়েবসাইটকে সাক্ষাৎকারে কুলদীপ বলেছেন, ‘‘আট বছর খেলেছি কেকেআরের হয়ে। একেবারে পরিবারের মতো হয়ে গিয়েছিল। অনেক ভাল দিন দেখেছি। প্রচুর খারাপ দিনেরও সাক্ষী। তবে এটা কখনওই বলব না, কেকেআরের ম্যানেজমেন্ট খারাপ ছিল।’’ যোগ করেন, ‘‘ব্রেন্ডন ম্যাকালাম কোচ হিসেবে খুবই ভাল ছিলেন। কিন্তু শত চেষ্টা করেও কখনও না কখনও দলে জায়গা পাওয়া যায় না। সুনীল নারাইন বহু বছর ধরে নাইটদের এক নম্বর স্পিনার। বরুণ ভাল বল করছে। তাই তৃতীয় স্পিনার হিসেবে আমার জায়গা হত না।’’

সুযোগের অভাবে কতটা সমস্যায় পড়েছিলেন কুলদীপ, তাও তুলে ধরেন তিনি। বললেন, ‘‘প্রত্যেক ক্রিকেটারই চায় প্রথম একাদশে জায়গা পেতে। কিন্তু সুযোগ না পেলে নিজের উপরে সন্দেহ তৈরি হয়। আদৌ কি আমি এই পর্যায়ে খেলার যোগ্য? কোথায় ভুল হচ্ছে? কি করে সুযোগ পাব? কি ভাবে পারফর্ম করব? এই সবই ভাবতে থাকতাম। শুধুমাত্র দলে সুযোগ পাচ্ছিলাম না বলে ভেঙে পড়ি।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.