Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১২ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Jasprit Bumrah: বুমরাকে অভিনন্দনবার্তা লারার

২০০৩-০৪ মরসুমে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্টে বাঁ-হাতি স্পিনার রবিন পিটারসেনের এক ওভারে লারা নিয়েছিলেন ২৮ রান।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৩ জুলাই ২০২২ ০৮:০৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
নায়ক: বিশ্বরেকর্ডের পরে বুমরার হাসি। শনিবার।

নায়ক: বিশ্বরেকর্ডের পরে বুমরার হাসি। শনিবার।
ছবি পিটিআই।

Popup Close

এজবাস্টন টেস্টে টস করতে নামার আগেই ইতিহাসে জায়গা করে নিয়েছিলেন যশপ্রীত বুমরা। ৩৫ বছর পরে প্রথম পেসার হিসেবে ভারতের অধিনায়ক হয়ে। আর এ বার চলতি টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ব্যাট হাতে করে বসলেন এক অবিস্মরণীয় বিশ্বরেকর্ড। ভেঙে দিলেন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি ব্রায়ান লারার রেকর্ড। যে বোলারকে এ দিন সংহার করলেন বুমরা, তাঁর নাম স্টুয়ার্ট ব্রড! যাঁর ওভার থেকে সেই ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ৩৬ রান নিয়েছিলেন যুবরাজ সিংহ।

বিশ্বরেকর্ড গড়ার পরে লারা অভিনন্দন জানিয়েছেন বুমরাকে। তাঁর টুইট, ‘‘টেস্টে এক ওভারে সর্বাধিক রান গড়ার বিশ্বরেকর্ডের জন্য তরুণ যশপ্রীত বুমরাকে অনেক অভিনন্দন। ওকে অভিনন্দন জানাতে আপনারাও আমার সঙ্গে যোগ দিন।’’

কী ছিল লারার রেকর্ড? ২০০৩-০৪ মরসুমে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্টে বাঁ-হাতি স্পিনার রবিন পিটারসেনের এক ওভারে লারা নিয়েছিলেন ২৮ রান। ছ’টি বৈধ ডেলিভারিতে তিনি মেরেছিলেন চারটে চার, দু’টো ছয়। ১৮ বছর অক্ষত ছিল ওই রেকর্ড। শনিবার এজবাস্টন টেস্টে ইংল্যান্ডের পেসার ব্রডের ওভারে ব্যাটে ২৯ রান নিলেন বুমরা। এক রান বেশি করে ভেঙে দিলেন লারার রেকর্ড। এর পাশাপাশি ব্রড ওই ওভারে ওয়াইডে পাঁচ রান এবং নো বলে এক রান দেন। যার জেরে ওই ওভারে ইংল্যান্ডের পেসার দেন ৩৫ রান। যা এর আগে কোনও বোলার টেস্ট ক্রিকেটে দেননি। ফলে ব্রডের নামও উঠে গেল বিশ্বরেকর্ডের তালিকায়! এর আগে ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এই ব্রডকেই ছ’টি ছয় মেরেছিলেন যুবরাজ সিংহ।

Advertisement

বুমরার অবিশ্বাস্য এই ব্যাটিং দেখা যায় ভারতীয় ইনিংসের ৮৪তম ওভারে। ব্রডের প্রথম বল শর্ট ছিল। বুমরার ব্যাটের উপরের দিকে লেগে ফাইন লেগ বাউন্ডারিতে চার রান আসে। পরের বলে বাউন্সার দেন ব্রড। যাতে পাঁচ রান ওয়াইডে হয়। পরের বলটাও নো বল এবং বাউন্সার। বুমরার ব্যাটের উপরের দিকে লেগে সোজা গ্যালারিতে গিয়ে পড়ে। পরের তিনটে বল মিড অন, ফাইন লেগ, স্কোয়ার লেগ দিয়ে বাউন্ডারিতে চলে যায়। ব্রডের বৈধ পঞ্চম বলটা লং লেগ দিয়ে গ্যালারিতে গিয়ে পড়ে। শেষ বলে একটা সিঙ্গল। অর্থাৎ ওভারের আটট বল হয় এ রকম— ৪, ৫ (ওয়াইড বল), ৭ (নো বল), ৪, ৪, ৪, ৬, ১। মোট ৩৫ রান! এই রকম ওভার এর আগে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে কেউ কখনও দেখেনি।

বুমরার এই অবিশ্বাস্য ব্যাটিং দেখার পরে বিস্ময় কাটছে না ক্রিকেট দুনিয়ার। এ দিন দুরন্ত সেঞ্চুরি করে ভারতকে চারশো রানের গণ্ডি পার করে দেন রবীন্দ্র জাডেজা। সেই জাডেজাও পিছনে পড়ে গিয়েছেন বুমরার ব্যাটিং তাণ্ডবে। সচিন তেন্ডুলকরের মনে পড়ে যাচ্ছে ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা। সচিন টুইট করেছেন, ‘‘এ দিন কে ব্যাট করল? যুবি না বুমরা!? ২০০৭ সালের কথা মনে পড়িয়ে দিল...’’

রবি শাস্ত্রীও সেই ৩৬ রানের প্রসঙ্গ টেনে এনে বলছিলেন, ‘‘আমি ভেবেছিলাম ক্রিকেটের সব কিছু দেখে নিয়েছিলাম। যুবরাজ এক ওভারে ৩৬ রান তুলেছিল। আমি তুলেছিলাম। কিন্তু আজ যা দেখলাম, তা অদ্ভুত। কোনও দিন ভাবিনিএ রকম হতে পারে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement