Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ইংল্যান্ডে দশ বছর পরে টেস্ট, চিন্তায় কার্তিক

২০০৭-এর পরে ফের ইংল্যান্ডে টেস্ট খেলতে আসাটা তাঁর কাছে যেমন উত্তেজনার, তেমনই উদ্বেগেরও। নিজেই সে কথা স্বীকার করে নিয়ে কার্তিক শনিবার বলেন, ‘

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৯ জুলাই ২০১৮ ০৪:০০
Save
Something isn't right! Please refresh.
উদ্বেগ: চাপে রয়েছেন দীনেশ কার্তিক, আদিল রশিদরা। ফাইল চিত্র

উদ্বেগ: চাপে রয়েছেন দীনেশ কার্তিক, আদিল রশিদরা। ফাইল চিত্র

Popup Close

বুধবার থেকে শুরু ভারত ও ইংল্যান্ডের টেস্ট-যুদ্ধ। তার আগে প্রবল চাপে দুই দলের দুই তারকা। ভারতীয় উইকেটকিপার দীনেশ কার্তিক ও ইংল্যান্ডের লেগস্পিনার আদিল রশিদ। কার্তিক দশ বছর পরে ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট খেলতে নামছেন। আর দশটি টেস্ট খেলা হয়ে গেলেও ইংল্যান্ডে রশিদের এটাই প্রথম টেস্ট। দু’জনের চাপের কারণ আলাদা হলেও তাঁদের দিকে তাকিয়ে রয়েছে ক্রিকেটবিশ্ব। আসন্ন এজবাস্টন টেস্টে ভাল পারফরম্যান্স না দেখাতে পারলে যে উঠবে বিতর্কের ঝড়!

২০০৭-এর পরে ফের ইংল্যান্ডে টেস্ট খেলতে আসাটা তাঁর কাছে যেমন উত্তেজনার, তেমনই উদ্বেগেরও। নিজেই সে কথা স্বীকার করে নিয়ে কার্তিক শনিবার বলেন, ‘‘এত দিন পরে ইংল্যান্ডে টেস্ট খেলতে নামছি বলেই চাপ অনুভব করছি যেন। ইংল্যান্ডে খেলাটা বড় চ্যালেঞ্জ। তাই চাপ থাকবেই।’’ ২০০৭-এ ওভালে ৯১, ট্রেন্টব্রিজে ৭৭ ও লর্ডসে ৬০ রান করে ভারতীয় দলের স্কোরবোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন তিনি। সেই পারফরম্যান্স ফিরিয়ে আনতে পারবেন কি না, তা নিয়েই চিন্তায় রয়েছেন তিনি।

রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে সে বার যে ক’জন ইংল্যান্ড সফরে গিয়েছিলেন, তাঁদের মধ্যে শুধু কার্তিকই এই দলে আছেন। সেই সফরের অভিজ্ঞতা তাঁর খুব একটা মনে নেই বলে জানিয়ে কার্তিক বোর্ডের ওয়েবসাইটে বলেন, ‘‘আমার স্মৃতিশক্তি তেমন ভাল নয়। শুধু এটুকুই মনে আছে, ওই সিরিজটা অসাধারণ হয়েছিল। তিন টেস্টেই দুই দলে কোনও পরিবর্তন হয়নি।’’ এ বারেও সে রকমই উত্তেজনায় ভরা টেস্ট হবে বলে মনে করছেন কার্তিক। আর দশ বছর বয়স বেড়ে যাওয়া কিপারের মনে প্রশ্ন জাগছে, যদি সে বারের মতো পারফরম্যান্স এ বার না দেখাতে পারেন?

Advertisement

অন্য দিকে আদিল রশিদকে টেস্ট দলে ডাকা নিয়েই ইংল্যান্ডে চলছে সমালোচনার ঝড়। তবে তাঁর চাপ কমাতে এই বিতর্কে ঢুকে পড়েছেন ক্রিকেট কিংবদন্তি ইয়ান বোথামও। রশিদের পাশেই আছেন বোথাম। বলেছেন, ‘‘রশিদকে অবশ্যই টেস্ট দলে নেওয়া উচিত।’’ ৩০ বছর বয়সি স্পিনার এই মরসুমে ইয়র্কশায়ারের হয়ে শুধু সীমিত ওভারের ক্রিকেটই খেলছেন। যা নিয়ে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক মাইকেল ভন, নাসের হুসেনরা প্রবল সমালোচনাও করেন।

তবে বোথাম তাঁদের বিরুদ্ধে গিয়ে বলেছেন, ‘‘এই পরিবেশ রশিদের পক্ষে আদর্শ। যা গরম পড়েছে, তাতে উইকেট শুকিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা যথেষ্ট। আমি নিশ্চিত এই ধরনের উইকেট থেকে ও সুবিধা আদায় করেই ছাড়বে।’’ ওয়ান ডে সিরিজে সফল হওয়া লেগ স্পিনার রশিদের প্রশংসা করে বোথাম বলেন, ‘‘ওর মধ্যে সব সময় একটা তীব্রতা কাজ করে আর সব সময় নিজের বোলিংয়ে উন্নতি করতে চায়।’’

সেপ্টেম্বরের পর থেকে আর লাল বলে খেলা না খেলা রশিদ ভারতের বিরুদ্ধে তিনটি ওয়ান ডে ম্যাচে ছ’উইকেট নেন। বিরাট কোহালিকে অসাধারণ বলে আউট করেন তিনি। টেস্ট দলেও তাই তাঁকে রাখা হয়েছে। যদি প্রথম এগারোয় থাকেন, তা হলে ২০১৬-য় চেন্নাইয়ে খেলে যাওয়ার পরে এই প্রথম টেস্টে নামবেন তিনি।

পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডের কথায় আবার অন্য সুর। শনিবার তিনি এক ওয়েবসাইটকে বলেছেন, ‘‘উইকেট নিয়ে আগাম কিছু বলতে পারবেন না মাঠের কর্মীরাও। ক্রিকেটাররাও ঠিকমতো জানে না, কেমন হতে চলেছে উইকেট। তাই সিরিজটা বেশ জমে যাবে। ইংল্যান্ডে এমন পরিবেশে খেলা হয়নি। যারা এই পরিবেশের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নিতে পারবে, তারাই সফল হবে।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement