Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ফিফা প্রধানের বাঙালি সাজ

নিজস্ব সংবাদদাতা
২৫ অক্টোবর ২০১৭ ০৮:০০
নকশা: এই পোশাকই পরানোর ভাবনা ইনফান্তিনোদের।

নকশা: এই পোশাকই পরানোর ভাবনা ইনফান্তিনোদের।

মাঠের মধ্যে পর-পর তিনটি বড় ম্যাচের বরাত পেয়েই চমক শেষ হচ্ছে না কলকাতার। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে মাঠের বাইরের সেরা চমক দেওয়ার জন্যও তৈরি হচ্ছে ফুটবল নগরী।

বিশ্বকাপের ফাইনাল উপলক্ষে ফিফার প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো আসছেন কলকাতায়। ২৮ অক্টোবর ফাইনাল। ইনফান্তিনো সম্ভবত চলে আসছেন ২৬ তারিখের মধ্যেই। পরিকল্পনা চলছে, তাঁকে বাঙালি কুর্তা, পায়জামা, জওহর কোটে সাজিয়ে তোলার। ইনফান্তিনো ছাড়াও ফিফা থেকে একাধিক উচ্চ পদস্ত কর্তা-ব্যক্তিরা আসছেন। সেই দলে পুরুষ, মহিলা সকলেই আছেন। বিশেষ ভাবে তাঁদের সাজিয়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়েছে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন।

ফিফা থেকে আসা অতিথিদের জন্য বিশেষ পোশাক তৈরি করছেন কলকাতার নামী ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল। সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ) থেকে সভাপতি প্রফুল্ল পটেলই তাঁকে এই দায়িত্ব দিয়েছেন। মঙ্গলবার অগ্নিমিত্রা বললেন, ‘‘সিল্ক কুর্তা বানানো হচ্ছে পুরুষদের জন্য। সঙ্গে ব্রোকেড, ইক্কত বা মধুবনি জওহর কোট। চুরিদারও করা হচ্ছে। আর মেয়েদের জন্য ব্রোকেড আর মধুবনি কুর্তি। সঙ্গে জর্জেট স্কার্ট আর দোপাট্টা। আর একটা কম্বিনেশন হচ্ছে, মটকা কুর্তা, চুরিদার, দোপাট্টা।’’ মোট পঁয়ত্রিশ জন আসছেন ফিফা থেকে। তার মধ্যে উনত্রিশজন পুরুষ, ছ’জন মহিলা। তাঁদের হোটেলের ঘরে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে এই বিশেষ ধরনের পোশাক। অগ্নিমিত্রা জানালেন, পোশাকের সঙ্গে একটি চিঠি লিখে পাঠানো হবে অতিথিদের। তাতে কলকাতায় স্বাগত জানিয়ে লিখবেন, স্থানীয় সংস্কৃতির ছাপ ও ঐতিহ্য বজার রেখে এই বিশেষ পোশাক বানানো হয়েছে অতিথিদের জন্য। তাঁরা এটা পরলে কলকাতা খুশি হবে।

Advertisement

কিন্তু ইনফান্তিনোকে কোথায় দেখা যাবে এই পোশাকে? শোনা যাচ্ছে, ফাইনালের আগের রাতেই বিশেষ ডিনার রয়েছে ফিফার। সেখানে প্রফুল্ল পটেলের অনুরোধে ফিফা প্রেসিডেন্ট-সহ সব অতিথিরা বাঙালি সাজে আবির্ভূত হতে পারেন। আবার কেউ কেউ মনে করছেন, যুবভারতীতে ফাইনালের সময়েই যদি ফিফা প্রেসিডেন্ট স্থানীয় মানুষদের মধ্যে জনপ্রিয় কুর্তা-পায়জামা-জওহর কোট চাপিয়ে মাঠে ঢোকেন, কেমন হয়? ইনফান্তিনো এসে পৌঁছনোর পরে এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে জানা গেল। এ ব্যাপারে ফিফার প্রথা কী বলছে, সেটাও দেখে নিতে চান আয়োজকরা। ফিফা পরিচালিত ফাইনালে স্থানীয় পোশাকে মাঠে আসার উদাহরণ আগে আছে কি না, পরিষ্কার নয়। যদি সংস্থার রীতি বলে, স্যুট পরেই আসতে হবে তা হলে হয়তো ডিনারেই শুধু ইনফান্তিনো এই পোশাক পরতে পারবেন।

যা দাঁড়াচ্ছে, এক দিকে গুয়াহাটি থেকে পড়ে পাওয়া চোদ্দো আনার মতো ব্রাজিলের আরও একটি ম্যাচ উপহার পাওয়া নিয়ে হইচই তো আছেই। পাশাপাশি, দামামা বেজে গিয়েছে বিশ্বকাপ ফাইনালেরও। আর ২৮ অক্টোবর প্রথম বারের জন্য কলকাতায় উপস্থিত হচ্ছেন ফিফার প্রেসিডেন্ট। শুধু তা-ই নয়, ২৭ তারিখেই ফিফার গুরুত্বপূর্ণ কাউন্সিল বৈঠকও হচ্ছে।

আরও পড়ুন

Advertisement