Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ছন্দে থাকা ফ্রান্স বনাম ছন্দ খোঁজা তিকি তাকা

লিয়ঁ অ্যাকাডেমি থেকে উত্থান আমিনে-র। ফরাসি তারকাকে সই করাতে ঝাঁপিয়েছে আর্সেনাল। যদিও লিয়ঁ-এর সঙ্গে ২০২০ পর্যন্ত চুক্তি রয়েছে তার।

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৭ অক্টোবর ২০১৭ ০৪:০২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

আবেল রুইজ বনাম আমিনে গুইরি!

লা মাসিয়া থেকে উত্থান আবেল-এর। স্প্যানিশ ফুটবলের ভবিষ্যৎ মনে করা হচ্ছে তাকে। ইতিমধ্যেই বার্সালোনা কর্তারা আবেল-কে সিনিয়র দলে সই করিয়েছেন। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে ব্রাজিলের বিরুদ্ধে ছন্দে ছিল না স্পেনের স্ট্রাইকার। কিন্তু পরের ম্যাচেই জোড়া গোল করে নিজেকে প্রমাণ করে আবেল।

লিয়ঁ অ্যাকাডেমি থেকে উত্থান আমিনে-র। ফরাসি তারকাকে সই করাতে ঝাঁপিয়েছে আর্সেনাল। যদিও লিয়ঁ-এর সঙ্গে ২০২০ পর্যন্ত চুক্তি রয়েছে তার। তবুও হাল ছা়ড়ছেন না আর্সেন ওয়েঙ্গার। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপেও দুরন্ত ফর্মে ফরাসি স্ট্রাইকার। ইতিমধ্যেই তিন ম্যাচে পাঁচ গোল করে ফেলেছে আমিনে। আজ, মঙ্গলবার গুয়াহাটির রাজীব গাঁধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে স্পেনের বিরুদ্ধে বদলার ম্যাচে আমিনে-ই প্রধান ভরসা ফ্রান্সের।

Advertisement

আরও পড়ুন: স্যাঞ্চো নেই, ক্ষুব্ধ ইংল্যান্ড

ক্রোয়েশিয়ায় ছ’মাস আগে অনূর্ধ্ব-১৭ ইউরো কাপ কোয়ার্টার ফাইনাল। স্পেনের বিরুদ্ধে ন’মিনিটেই গোল করে ফ্রান্সকে এগিয়ে দিয়েছিল আমিনি। কিন্তু নাটকীয় ভাবে সেই ম্যাচ ৩-১ জিতে ফ্রান্সকে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দিয়েছিল স্পেন। পেনাল্টি থেকে গোল করেছিল আবেল-ও। গুয়াহাটিতে মঙ্গলবার বদলা নিতে মরিয়া ফরাসি শিবির। কোচ লিওনেল রক্সেল বলেছেন, ‘‘মে মাসে স্পেনের বিরুদ্ধে ১-৩ হার আমরা ভুলিনি। স্পেন দারুণ শক্তাশালী দল। ওদের অনেক ফুটবলারই বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদের মতো দলে খেলে।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘আমাদের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে, এই ম্যাচে কোনও ভুল না করা।’’

অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ অন্যতম ফেভারিট স্পেন প্রথম ম্যাচেই হেরে গিয়েছিল ব্রাজিলের বিরুদ্ধে। তার পর টানা দুটো ম্যাচে তিকিতাকা-র তুফান তুলে শেষ ষোলোয় যোগ্যতা অর্জন করে তারা। ফ্রান্সের বিরুদ্ধেও তোরেস, মহম্মদ মুখিলিস-দের অস্ত্র তিকিতাকা। কিন্তু ফ্রান্সের বিরুদ্ধে দ্বৈরথের আগে স্পেন কোচ সান্তিয়াগো দেনিয়া স্যাঞ্চেজের চিন্তা ফুটবলারদের ক্লান্তি। গ্রুপ লিগে সব ম্যাচই আবেল-রা খেলেছে কোচির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে। এ বার ম্যাচ গুয়াহাটিতে। হতাশ স্পেন কোচ বলেছেন, ‘‘পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া ছাড়া কোনও উপায় নেই। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলে আমরা কোচিতেই খেলতাম। কিন্তু দ্বিতীয় স্থানে শেষ করায় গুয়াহাটিতে খেলতে হচ্ছে। আশা করব, ফুটবলাররা দ্রুত মানিয়ে নিতে সফল হবে।’’ বিশ্বকাপের শুরু থেকেই যে আবহাওয়া তাঁদের প্রধান সমস্যা, খোলাখুলিই জানিয়েছেন স্পেন কোচ। সান্তিয়াগো বলেছেন, ‘‘ব্রাজিল এই টুর্নামেন্টের অন্যতম সেরা দল। ওদের বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য মাত্র তিন দিন পেয়েছিলাম।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement