Advertisement
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
FIFA World Cup 2022

প্রমোদতরী ছেড়ে ইংল্যান্ড ফুটবলারদের স্ত্রী, বান্ধবীরা হঠাৎ কাতারের হোটেলে, কেন?

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের ফুটবলারদের স্ত্রী এবং বান্ধবীরা রয়েছেন প্রমোদতরীতে। কিন্তু হঠাৎ বিলাসবহুল সেই তরী ছেড়ে হ্যারি কেনদের স্ত্রীরা চলে এলেন হোটেলে।

ইংল্যান্ডের টিম হোটেলে ঢুকছেন হ্যারি কেনদের স্ত্রী, বান্ধবীরা।

ইংল্যান্ডের টিম হোটেলে ঢুকছেন হ্যারি কেনদের স্ত্রী, বান্ধবীরা। ছবি: টুইটার।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২২ ১৭:০৭
Share: Save:

আমেরিকার বিরুদ্ধে দলের খেলা দেখে ইংল্যান্ডের ফুটবলারদের স্ত্রী, বান্ধবীরা প্রায় ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। কেউ কেউ খেলা না দেখে মোবাইলে ব্যস্ত ছিলেন। গ্রুপের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ ওয়েলস। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে ফুটবলারদের তাতাতে নেমে পড়লেন তাঁদের স্ত্রী, বান্ধবীরা।

Advertisement

বিশ্বকাপ মানেই অনুশীলন আর ম্যাচ। অন্য দিকে মন দেওয়ার বিশেষ ফুরসত থাকে না। আমেরিকার বিরুদ্ধে জিততে না পেরে হতাশ ইংল্যান্ডের ফুটবলাররা। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্বে যেতে মঙ্গলবার ওয়েলসকে হারাতেই হবে। গ্যারেথ বেলের দলের বিরুদ্ধে ম্যাচ সহজ হবে না বলেই মনে করছে ইংল্যান্ড শিবির। সেই ম্যাচের আগে ফুটবলারদের মানসিক ভাবে তরতাজা রাখতে স্ত্রী, বান্ধবীদের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ করে দিলেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট।

দলের হোটেলে শনিবার ফুটবলারদের স্ত্রী, বান্ধবীদের আমন্ত্রণ জানান সাউথগেট। সন্ধ্যায় কোনও অনুশীলন রাখেননি। নিজেদের মতো সময় কাটিয়ে খুশি ফুটবলার এবং তাঁদের স্ত্রী, বান্ধবীরা। অধিনায়ক হ্যারি কেনের স্ত্রী কেট, জর্ডন পিকফোর্ডের স্ত্রী মেগান, জ্যাক গ্রিলিশের বান্ধবী অ্যাটউডরা দল বেধে এসেছিলেন ইংল্যান্ড দলে হোটেলে। বিকাল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ বিশেষ বাসে করে তাঁদের নিয়ে আসা হয় হোটেলে। স্বামী, প্রেমিকদের সঙ্গে রাত কাটিয়ে, সকালে প্রাতরাশ করে তাঁরা ফিরে গিয়েছেন প্রমোদতরীতে। আর ফুটবলাররা গিয়েছেন অনুশীলনে।

ইংল্যান্ডের স্ত্রী-সন্তান, বান্ধবী এবং পরিবারের সদস্য মিলিয়ে প্রায় ৫০ জন এসেছেন কাতারে। তাঁদের অবশ্য দলের হোটেলে থাকার অনুমতি নেই। কোভিড-সহ অন্য সংক্রমণ থেকে ফুটবলারদের বিশ্বকাপের সময় নিরাপদে রাখতেই এই ব্যবস্থা করেছে ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। ফুটবলারদের সঙ্গে দলের বাইরের কারও দেখা করারও অনুমতি নেই। তা হলে কেন হঠাৎ স্ত্রী, বান্ধবীদের সঙ্গে রাত কাটানোর অনুমতি দেওয়া হল? সাউথগেট বলেছেন, ‘‘দলের সকলেই খুব হতাশ হয়ে পড়েছিল। আত্মবিশ্বাসেও ঘাটতি হচ্ছিল কারও কারও। ওদের মানসিক ভাবে তরতাজা রাখতেই এই ব্যবস্থা। সারা সপ্তাহের কঠোর পরিশ্রমের পর এটুকু ছাড়া দেওয়া যেতেই পারে।’’

Advertisement

এক ফুটবলারের স্ত্রী বলেছেন, ‘‘হতাশা কখনও জয় আনতে পারে না। শেষ ম্যাচে ভাল পারফর্ম না করতে পেরে সকলেই মুষড়ে পড়েছিল। আমাদের দারুণ ভাবে স্বাগত জানিয়েছে দলের সকলে মিলে। দুর্দান্ত একটা অভিজ্ঞতা হল। আশা করব পরের ম্যাচে আমাদের দল দারুণ ফুটবল উপহার দেবে।’’ ইংল্যান্ড কোচও স্বীকার করে নিয়েছেন, শনিবার রাতে হাসি ফুটেছে ফুটবলারদের মুখে। তিনি বলেছেন, ‘‘আমাদের প্রথম লক্ষ্য গ্রুপের বাধা অতিক্রম করা। দুটো ম্যাচ হয়েছে। আরও একটা বাকি। শেষ ম্যাচে যা যা করণীয়, আমরা সব কিছু করতে প্রস্তুত।’’ দলের রক্ষণভাগের ফুটবলার কিয়েরান ট্রিপিয়ার বলেছেন, ‘‘আসল হল ফলাফল। নিজেদের পারফরম্যান্স বিশ্লেষণ করেছি আমরা। ভুলগুলো শোধরানোর চেষ্টা করছি আমরা। ওয়েলসের বিরুদ্ধে ৩ পয়েন্ট পাওয়ার জন্য আমরা তৈরি।’’

স্ত্রীর সঙ্গে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেন।

স্ত্রীর সঙ্গে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেন। ছবি: টুইটার।

উল্লেখ্য, দোহার কোনও হোটেলে থাকছেন না ফুটবলারদের স্ত্রী, বান্ধবীরা। তাঁদের থাকার ব্যবস্থা হয়েছে একটি প্রমোদতরীতে। যাতে রয়েছে ছ’টি সুইমিং পুল, বিভিন্ন রকমের ৩০টি বার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.