Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Lionel Messi

মেসি নাকি বিপক্ষের জাতীয় পতাকায় লাথি মেরেছেন, সাজঘর সাফ করেছেন! উঠল মারাত্মক অভিযোগ

আর্জেন্টিনার ফুটবলার নিকোলাস ওটামেন্ডির পোস্ট করা একটি ভিডিয়োয় মেক্সিকোকে হারানোর পর সাজঘরের পরিবেশ ধরা পড়েছে। সেখানেই মেসির ঘটনা ধরা পড়েছে।

মেসির বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ বক্সারের।

মেসির বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ বক্সারের। ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৮ নভেম্বর ২০২২ ১৭:২৬
Share: Save:

মেক্সিকোর জাতীয় পতাকার অবমাননা করার অভিযোগ উঠল লিয়োনেল মেসির বিরুদ্ধে। জয়ের পর সাজঘরে ফিরে মেসি নাকি লাথি মেরেছেন মেক্সিকোর পতাকায়। টুইটারে পোস্ট করে এই অভিযোগ করেছেন বক্সিংয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন সাউল ‘কানেলো’ আলভারেস। তার পাল্টা দিয়েছেন আর্জেন্টিনার প্রাক্তন ফুটবলার সের্জিয়ো আগুয়েরো। কানেলোকে ঘুরিয়ে নির্বোধ বলেছেন তিনি।

কী হয়েছে ঘটনাটি?

আর্জেন্টিনার ফুটবলার নিকোলাস ওটামেন্ডির পোস্ট করা একটি ভিডিয়োয় মেক্সিকোকে হারানোর পর সাজঘরের পরিবেশ ধরা পড়েছে। সেখানে স্প্যানিশ ভাষায় একটি গানের সঙ্গে নাচছিলেন মেসি, অ্যাঙ্খেল দি মারিয়ারা। সেই ভিডিয়োরই একটি অংশে মেসিকে দেখা গিয়েছে সবুজ রঙের কোনও একটি বস্তু পা দিয়ে ঠেলে সরিয়ে দিচ্ছেন তিনি।

সেই ছবি টুইটারে তুলে ধরে কানেলো লিখেছেন, “মেসিকে দেখছি আমাদের জাতীয় পতাকা এবং জার্সি দিয়ে ঘর পরিষ্কার করছে। ও ভগবানের কাছে প্রার্থনা করুক আমি যেন কোনও দিন ওকে খুঁজে না পাই। যে ভাবে আমি আর্জেন্টিনাকে সমীহ করি, সে ভাবেই ওর মেক্সিকোকে সমীহ করা উচিত। আর্জেন্টিনার সবাই খারাপ সেটা বলছি না। কিন্তু মেসি যা করেছে, সেটা কোনও ভাবেই সহ্য করা যায় না।”

এর পাল্টা দিয়ে আগুয়েরো লিখেছেন, “মিস্টার কানেলো, সব কিছুতে সমস্যা খুঁজে বের করার চেষ্টা করবেন না। আপনি ফুটবলের ব্যাপারে কিছুই জানেন না এবং সাজঘরে কী হয় সে সম্পর্কেও ধারণা নেই। ম্যাচ হয়ে যাওয়ার পর জার্সি মাটিতেই ফেলে রাখা থাকে। কারণ সেগুলো ঘামে ভেজা থাকে। মেসি বুটটা খোলার চেষ্টা করছিল। আচমকা জার্সিতে ওর পা লেগে গিয়েছে।”

কানেলো সমাজমাধ্যমেও কোনও সমর্থন পাননি। নিজের দেশের সমর্থকরাই তাঁকে ব্যঙ্গ করেছেন। তাঁদের মতে, মেসি এমন মানুষই নন বিপক্ষ দেশকে অসম্মান করবেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE