Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Sunil Chhetri

Igor Stimac: ১০০ গোল না হলে অবসর নিতে দেব না, বললেন ইগর

কলকাতায় এএফসি এশিয়ান কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্ব শুরু হওয়ার কয়েক দিন আগেই ৩৭ বছর বয়সি সুনীল অবসরের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ১৪ জুন ২০২২ ০৭:১৩
Share: Save:

ভারতীয় দলের জার্সি পরে আজ, মঙ্গলবার শেষ বার যুবভারতীতে সুনীল ছেত্রী খেলবেন কি না, তা নিয়ে তুঙ্গে চর্চা। কিন্তু ভারত অধিনায়ককে ছাড়া যে তিনি খেলার কথা ভাবতেও পারেন না, আরও এক বার স্পষ্ট করে দিলেন ইগর স্তিমাচ। জানিয়ে দিলেন, আন্তর্জাতিক ম্যাচে দেশের হয়ে ১০০তম গোল করার আগে সুনীলকে অবসর নিতেই দেবেন না!

Advertisement

কলকাতায় এএফসি এশিয়ান কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্ব শুরু হওয়ার কয়েক দিন আগেই ৩৭ বছর বয়সি সুনীল অবসরের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। হংকংয়ে বিরুদ্ধে ম্যাচের আগের দিন সোমবার দুপুরে যুবভারতীতে সাংবাদিক বৈঠকে অধিনায়ককে পাশে বসিয়েই ইগর বলে দিলেন, ‘‘আন্তর্জাতিক ম্যাচে ১০০তম গোল করার আগে আমি সুনীলকে কোনও মতেই অবসর নিতে দেব না। ওর যা মানসিকতা, তাতে ও নিজেও এই লক্ষ্য পূরণ না করে ফুটবলকে বিদায় জানাবে বলে আমি মনে করি না। অবসর নিয়ে ওকে যেন আর প্রশ্ন না করা হয়।’’ এর পরেই যোগ করেন, ‘‘ফুটবলের প্রতি সুনীলের যা দায়বদ্ধতা, তার কোনও তুলনাই হয় না। তা ছাড়া ওর শারীরিক সক্ষমতাও দুর্দান্ত। পাশাপাশি পরিবারের যে সমর্থন ও পায়, তার কোনও তুলনাই নেই।’’ এখানেই শেষ নয়। ক্যামেরুন কিংবদন্তি রজার মিল্লার উদাহরণ দিয়ে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘ভুলে যাবেন না ১৯৯০ বিশ্বকাপে ৪২ বছর বয়সে রজার মিল্লা গোল করেছিলেন।’’

তাঁর প্রতি কোচের আস্থা দেখে সুনীল অভিভূত। তবে তিনি যে এই মুহূর্তে শুধু হংকংকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে এশিয়ান কাপের মূল পর্বে যোগ্যতা অর্জন করা ছাড়া কিছুই ভাবছেন না, জানিয়ে দিয়েছেন স্পষ্ট করে। ভারত অধিনায়কের কথায়, ‘‘আগের ম্যাচে আমরা যেখানে শেষ করেছিলাম, সেখান থেকেই শুরু করতে হবে। কোচ বলে দিয়েছেন, যোগ্যতা অর্জন পর্বে আমাদের সেরা হতেই হবে। তাই অতীত ভুলে এখন আমাদের এই একটা ম্যাচেই মনোনিবেশ করতে হবে।’’ যোগ করেন, ‘‘এর আগে দু’বার আমরা মূলপর্বে খেলেছি। ফের তার পুনরাবৃত্তি ঘটাতে চাই। এই প্রতিযোগিতা এশিয়ার দেশগুলির কাছে বিশ্বকাপের মতো। এশিয়ার সেরা দেশগুলোর সঙ্গে মাঠে নামার অনুভূতিটা ঠিক কী রকম, তা জানি।’’

২০১৩ সালে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে শেষ মুহূর্তে ফ্রি-কিক থেকে গোল করে ভারতের ত্রাতা হয়ে উঠেছিলেন সুনীল। শনিবার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধেও তার পুনরাবৃত্তি দেখেছিলেন যুবভারতীর প্রায় ৪৫ হাজার দর্শক। কোন গোলটা বেশি মূল্যবান? সুনীল বলছেন, ‘‘সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে গোলটাই সেরা। কারণ, এটা এশিয়ান কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে করেছি।’’ এর পরেই ফ্রি-কিক নেওয়ার রহস্য উন্মোচন করে ভারত অধিনায়ক যোগ করলেন, ‘‘আমাদের দলে প্রধানত ব্রেন্ডন ফার্নান্দেস, রোশন সিংহ ও লিস্টন কোলাসোই সবচেয়ে ভাল ফ্রি-কিক নেয়। আমি মারি না। কিন্তু সে দিন মনে হয়েছিল, ফ্রি-কিক থেকে আমি গোল করতে পারব।’’

Advertisement

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.