Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ATK Mohun Bagan: প্রায় দু’সপ্তাহ ঘরবন্দি থাকার পর বৃহস্পতিবার কেরলের বিরুদ্ধে নামছে এটিকে মোহনবাগান

প্রথমে ওড়িশা এফসি, তারপরে বেঙ্গালুরু এফসি। সবুজ-মেরুনের পরপর দু’টি ম্যাচ বাতিল হয়ে গিয়েছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৯ জানুয়ারি ২০২২ ১৯:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
বুধবার অনুশীলনে কৃ্ষ্ণ।

বুধবার অনুশীলনে কৃ্ষ্ণ।
নিজস্ব চিত্র

Popup Close

তাদের দলেই এ বারের আইএসএল-এ প্রথম ছড়িয়ে পড়েছিল করোনা সংক্রমণ। ধীরে ধীরে অন্যান্য দলেও তা ছড়িয়ে পড়ায় ইতিমধ্যেই আইএসএল-এর একাধিক ম্যাচ বাতিল করতে হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে এটিকে মোহনবাগানের দু’টি ম্যাচও। প্রথমে ওড়িশা এফসি, তারপরে বেঙ্গালুরু এফসি। সবুজ-মেরুনের পরপর দু’টি ম্যাচ বাতিল হয়ে গিয়েছে। অবশেষে ১১ দিন ঘরবন্দি থাকার পর অনুশীলনে নেমেছেন এটিকে মোহনবাগান ফুটবলাররা। বৃহস্পতিবার তাঁরা লিগের শীর্ষে থাকা কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে খেলতে নামছেন।

পরপর দু’টি ম্যাচ বাতিল হওয়ায় ইতিমধ্যেই প্রথম চার থেকে সরে গিয়েছে এটিকে মোহনবাগান। ৯টি ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে এই মুহূর্তে তারা লিগ তালিকায় ৬ নম্বরে। কেরলের বিরুদ্ধে জিতলে প্রথম চারে আবার ঢুকে পড়বে তারা। কিন্তু এই মুহূর্তে কেরলও টানা ১০ ম্যাচে অপরাজিত। দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন তাদের ফুটবলার আদ্রিয়ানা লুনা। এই আইএসএল-এ তিনি ছ’টি অ্যাসিস্ট করেছেন। পাশাপাশি গোলকিপার প্রভসুখন গিল দারুণ খেলছেন। তিনি ছাড়া এই আইএসএল-এ এখনও কোনও গোলকিপারই দু’টির বেশি ক্লিনশিট রাখতে পারেননি।

Advertisement

এটিকে মোহনবাগানের পক্ষে আশার খবর হল, দলে ফিরেছেন সন্দেশ জিঙ্ঘন। ক্রোয়েশিয়ার ক্লাব এইচএনকে সিবেনিকের থেকে ছাড়পত্র পেয়ে সবুজ-মেরুনে যোগ দিয়েছেন তিনি। এ মরসুমের প্রথম ম্যাচেই কেরলের মুখোমুখি হয়েছিল এটিকে মোহনবাগান। সেই ম্যাচে ৪-২ ব্যবধানে জিতেছিল তারা। তবে সেই ম্যাচে কোচ ছিলেন আন্তোনিয়ো লোপেস হাবাস। এখন সবুজ-মেরুনের হট সিটে জুয়ান ফেরান্দো। সন্দেশের প্রথম একাদশে থাকার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন এটিকে মোহনবাগান কোচ। বলেছেন, “সত্যি বলতে, প্রত্যেক ফুটবলারই তৈরি আছে। এখনও আমাদের অনেক খেলা বাকি। সে ভাবে অনুশীলনও হয়নি। তবে শারীরিক ভাবে প্রত্যেকে সক্ষম। গতকাল এবং আজ আমরা অনুশীলন করেছি। এখন দেখার মাঠে নামলে কী হয়।”

দীর্ঘদিন পরে ম্যাচ খেলতে নামায় একটা আড়ষ্টতা থাকবে, এটা মেনে নিচ্ছেন ফেরান্দো। বলেছেন, “১১ দিন ঘরে বন্দি থাকা মোটেই সহজ কাজ নয়। কিছুই করার ছিল না আমাদের। প্রত্যেকের কাছেই সময়টা কঠিন দিয়েছে। তবে ভুললে চলবে না, এখানে আমরা ফুটবল খেলতে এসেছি। তাই মাঠে নামলে নিজের সেরাটা দিতে হবে।” মোহনবাগান দলের একাধিক ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। সুস্থ হওয়ার পর মাঠে নামা কতটা কঠিন, সেটা উঠে এল ফেরান্দোর কথায়। বলেছেন, “মাত্র দু’দিনে ভাল করে পরিকল্পনা করা যায় না। কিন্তু দলটা খুবই ভাল। বাকিদের মতো আমাদেরও পেশাদার ফুটবলার রয়েছে। ফলে ওরা জানে মাঠে নেমে ঠিক কী কাজ করতে হবে। আমি আশাবাদী যে ভাল ফলই হবে।”



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement