Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৫ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

১২জন প্রাক্তনকে নিয়ে অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের বোধন করবেন মোদী

প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, চুনী গোস্বামী, ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যায় আমন্ত্রণ পেয়েছেন। রয়েছেন ভাইচুং ভুটিয়া, সুনীল ছেত্রী, আই এম বিজয়ন। সৈয়দ নইমুদ্দিন,

রতন চক্রবর্তী
নয়াদিল্লি ০৬ অক্টোবর ২০১৭ ০৪:০৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রস্তুত: আজ, অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে অভিযান শুরু করছে ভারত। তার আগে অন্তিম মহড়ায় একাত্ম দল। ছবি: পিটিআই।

প্রস্তুত: আজ, অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে অভিযান শুরু করছে ভারত। তার আগে অন্তিম মহড়ায় একাত্ম দল। ছবি: পিটিআই।

Popup Close

অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের উদ্বোধনের সময়ে তাঁর পাশে থাকার জন্য অলিম্পিক্স ও এশিয়ান গেমসে অধিনায়কত্ব করা ১২ জন প্রাক্তন ফুটবলারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বাংলা থেকেও অনেকে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর এই তালিকায়।

প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, চুনী গোস্বামী, ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যায় আমন্ত্রণ পেয়েছেন। রয়েছেন ভাইচুং ভুটিয়া, সুনীল ছেত্রী, আই এম বিজয়ন। সৈয়দ নইমুদ্দিন, গুরদেব সিংহও আমন্ত্রিত। তাঁরা সবাই আজ, শুক্রবার দিল্লির জহওরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকবেন ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হতে। চুনী গোস্বামী এবং বদ্রু বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যে সবাই এসেও গিয়েছেন দিল্লিতে। চুনী পারিবারিক সমস্যায় আটকে গিয়েছেন। আর বদ্রুর কাছে কোনও এক অজ্ঞাত কারণে টিকিটই পৌঁছয়নি। ক্ষুব্ধ বদ্রু বলে দিলেন, ‘‘এ রকম একটা দিনে আমাকে অপমান করা হল। ইতিহাসের সাক্ষী থাকা থেকে আমাকে বঞ্চিত করা হল।’’

চুনী না এলেও ফোনে বলছিলেন, ‘‘আমাদের সময়ে তো এশিয়াড চ্যাম্পিয়নরা খেলত বিশ্বকাপে। কেন জানি না আমরা যেতে পারিনি। কী সব সাংগঠনিক ত্রুটি ছিল।’’ এশিয়ান গেমসে সোনা জেতার পরে যোগ্যতা অর্জন করেও ছেষট্টির বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পাননি। সেই আক্ষেপ এখনও যায়নি বাষট্টির জাকার্তা গেমসের অধিনায়কের।

Advertisement

আরও পড়ুন:দিল্লিতে ‘মোদীর খেলা’, কলকাতা ‘মমতাময়’, দ্বন্দ্ব জারি ফুটবল উৎসবেও

রোম অলিম্পিক্সের অধিনায়ক প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লিগামী বিমান ধরার মুখে বলে দিলেন, ‘‘কষ্ট হচ্ছে। হতাশাও হয়তো আছে। তবে আমার গর্বও হচ্ছে। আমরা সুযোগ পাইনি, ওরা খেলছে। আমাদের সময়ে অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপ টুর্নামেন্ট ছিল না। থাকলে হয়তো আফসোস মিটত।’’ বিরাশির এশিয়ান গেমসের অধিনায়ক ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যাযের মন্তব্য, ‘‘ভারত বিশ্বকাপ খেলবে, তা-ও আবার দেশের মাটিতে— এটাই তো কল্পনার অতীত ছিল। সেটা দেখতে পাওয়াও তো ভাগ্যের।’’ আই এম বিজয়ন বলছিলেন, ‘‘আমি তো টিমের সঙ্গে আছি। ছেলেদের বলেছি, এই সুযোগ আমরা পাইনি। সেরাটা দাও। আমাদের মুখ উজ্জ্বল করো।’’

এমনিতে কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রক চাইলেও উদ্বোধন নিয়ে বাড়াবাড়ি করতে বারণ করে দিয়েছে ফিফা। বা়ড়তি কোনও খরচ চায়নি তারা। ফলে কার্যত সে ভাবে কোনও অনুষ্ঠান হচ্ছে না যুব বিশ্বকাপের। প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করার সময়ে প্রাক্তন ফুটবলারদের পাশাপাশি থাকতে পারেন অমিতাভ বচ্চন।

অন্য একটা গ্যালারির দর্শকদের চোখে ‘গর্বের আলো’। দর্শকদের কেউ মণিপুরের বাজারে মাছ বিক্রি করেন, কেউ ব্যান্ডেলের রাস্তায় ভ্যান চালান, কেউ আবার পঞ্জাবের সংসারপুরের দিনমজুর। গর্বিত সেই বাবা-মায়েদের ছেলেরাই আজ, নেহরু স্টেডিয়ামে ভারতের হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে খেলতে নামবেন। এ দিন তাঁদের কয়েক জনকে দেখে মনে হল, রাজধানীর চাকচিক্য দর্শন করে তাঁরা হীরক রাজার দেশের গুপি-বাঘার মতোই চমৎকৃত। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে বসার অপেক্ষায় উত্তেজনার প্রহর গুনছেন ওঁরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement