Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪

দাপট কমলেও রাফার বিরুদ্ধে বাজি ধরার সাহস আমার নেই

পুরুষদের শীর্ষ বাছাই হিসেবে নোভাক জকোভিচের পক্ষে ফরাসি ওপেনের এর চেয়ে ভাল প্রস্তুতি বোধহয় আর সম্ভব ছিল না! ওকে দেখে একেবারে তুঙ্গ ফর্মে আছে বলে মনে হচ্ছে। লাল মাটির রাজত্বে এ বছর পা রাখার পর থেকে মন্টে কার্লো আর রোমে খেতাব জিতেছে। আর সেই ছন্দ আর আত্মবিশ্বাসটা নিয়েই এসেছে রোলাঁ গারোয়। রোমের ফাইনালে আবার হারিয়েছে রজার ফেডেরারকে। ফিটনেসের দিক থেকেও নোভাক এই মুহূর্তে দারুণ জায়গায়। ফলে সব মিলিয়ে এ বার কিন্তু ওকেই খেতাবের অন্যতম দাবিদার বলে মনে হচ্ছে।

কোর্টে তিনি কতটা চাপে, জল্পনায় ডুবে ফরাসি ওপেন। রাফায়েল নাদাল অবশ্য ফুরফুরে বিকেল কাটালেন বান্ধবী সিস্কা পেরেলো ও ম্যানেজার কার্লোস কোস্তার সঙ্গে আড্ডা-সহ জলযোগে। ছবি: ফেসবুক।

কোর্টে তিনি কতটা চাপে, জল্পনায় ডুবে ফরাসি ওপেন। রাফায়েল নাদাল অবশ্য ফুরফুরে বিকেল কাটালেন বান্ধবী সিস্কা পেরেলো ও ম্যানেজার কার্লোস কোস্তার সঙ্গে আড্ডা-সহ জলযোগে। ছবি: ফেসবুক।

বরিস বেকার
শেষ আপডেট: ২৮ মে ২০১৫ ০৩:৩৭
Share: Save:

পুরুষদের শীর্ষ বাছাই হিসেবে নোভাক জকোভিচের পক্ষে ফরাসি ওপেনের এর চেয়ে ভাল প্রস্তুতি বোধহয় আর সম্ভব ছিল না!

ওকে দেখে একেবারে তুঙ্গ ফর্মে আছে বলে মনে হচ্ছে। লাল মাটির রাজত্বে এ বছর পা রাখার পর থেকে মন্টে কার্লো আর রোমে খেতাব জিতেছে। আর সেই ছন্দ আর আত্মবিশ্বাসটা নিয়েই এসেছে রোলাঁ গারোয়। রোমের ফাইনালে আবার হারিয়েছে রজার ফেডেরারকে। ফিটনেসের দিক থেকেও নোভাক এই মুহূর্তে দারুণ জায়গায়। ফলে সব মিলিয়ে এ বার কিন্তু ওকেই খেতাবের অন্যতম দাবিদার বলে মনে হচ্ছে।

অবশ্য জার্কো নেমিনেনের মতো ক্লে কোর্ট বিশেষজ্ঞের বিরুদ্ধে প্রথম রাউন্ডে সামান্য অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে নোভাককে। এমনিতেও জার্কো দারুণ প্লেয়ার, তায় গত বছর নোভাককে হারিয়েছিল। এ বারও দ্বিতীয় সেটে ৫-২ এগিয়ে যাওয়ার পর তো নেমিনেনকে রীতিমতো বিপজ্জনক দেখাচ্ছিল। নোভাকের সৌভাগ্য, ও সেখান থেকে খেলাটা ঘুরিয়ে টানা আটটা গেম ছিনিয়ে নিয়ে তৃতীয় সেটেরও রাশ নিজের হাতে নিতে পারল। আমি অবশ্য মনে করি, প্রথম দিকের রাউন্ডে যত কঠিন ম্যাচ পড়ে ততই ভাল। এতে ওয়ার্কআউট ঠিকঠাক হয়। নোভাকের সেটাই হল।

তবে এ বারের ফরাসি ওপেনের মেজাজটা যেন একটু আলাদা। আর সেটা একজন মানুষের জন্যই— রাফায়েল নাদাল। স্প্যানিশ মহাতারকার নিজের সাম্রাজ্য। অথচ ওকে ঘিরেই একটা অনিশ্চয়তার ছায়া। আগের বছরগুলোয় দেখেছি, টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই লোকে এখানে রাফার হাতে ট্রফি দেখতে পেত। ওর জেতাটা পূর্বনির্ধারিত ছিল। চলতি মরসুমে কিন্তু লাল মাটির কোর্ট থেকে এখনও কোনও ট্রফি নেই রাফার। মন্টে কার্লোয় না, রোমে না এমনকী মাদ্রিদেও জিততে পারেনি ও।

তবু মেনে নিচ্ছি, রোলাঁ গারোয় নাদালের বিরুদ্ধে বাজি ধরব, এত বড় বুকের পাটা আমার নেই। বিশেষ করে ও যেখানে ১০ নম্বর খেতাব জেতার অবিশ্বাস্য লক্ষ্যে নেমেছে! তবে হ্যাঁ, মানতেই হবে, ক্লে কোর্টে ওকে আর সেই আগের মতো অপ্রতিরোধ্য মনে হচ্ছে না। অবশ্য এত কিছু বলার পরেও প্রথম ম্যাচে ফরাসি কোয়ালিফায়ার কোয়েনটিন হেসকে দাপটে হারাল। এ বার এখান থেকে রাফা কেমন খেলে দেখার জন্য মুখিয়ে আছি।

ফেডেরারের ম্যাচে আবার টেনিসের চেয়ে টিনএজ ফ্যানের কোর্টে ঢুকে পড়া নিয়ে বিতর্ক তৈরি হল বেশি। নিজে প্লেয়ার হিসেবে বলতে পারি, নিরাপত্তায় ঢিলেমি তো পরের কথা। তার চেয়েও বড় হল, কোর্ট আমাদের কাছে অসম্ভব পবিত্র এক জায়গা। যেখানে প্লেয়ার আর সংশ্লিষ্ট অফিশিয়াল ছাড়া অন্য কারও ঢুকে পড়ার সামান্যতম সুযোগও থাকা উচিত নয়। সমর্থকদের আমরা সবাই ভালবাসি। কিন্তু এ ভাবে অপ্রত্যাশিত কোর্টে ঢুকে পড়লে সেটা অবশ্যই দুশ্চিন্তার। নিরাপত্তা অনেক বেশি আঁটোসাঁটো করা দরকার বলে রজার যে দাবি তুলেছে, তার সঙ্গে আমি পুরোপুরি একমত।

সেরেনা উইলিয়ামসের একতরফা দাপট সরিয়ে মেয়েদের ড্র-টাও অন্যান্য বারের তুলনায় এ বার যেন বেশি খোলা। তবে সেরেনার মতো চ্যাম্পিয়নকে হিসেবের বাইরে রাখা অসম্ভব। বিশেষ করে ও যেখানে কুড়ি নম্বর গ্র্যান্ড স্ল্যামের লক্ষ্যে নেমেছে। পূর্ণ ফিটনেসে ফরাসি ওপেন খেলবে বলে রোমে খেলেনি। তা ছাড়া এটা সবাই জানে যে, সেরেনা নিজের সেরা টেনিস তুলে রাখে গ্র্যান্ড স্ল্যামের জন্য। গত বারের চ্যাম্পিয়ন মারিয়া শারাপোভাও দারুণ ছন্দে আছে। তবে ক্লে কোর্টে সিমোনা হালেপকে কিন্তু আমি সব সময় হিসাবে রাখব।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE