Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শেহনাজের লাল কার্ড, গোয়া থেকে খালি হাতে ফিরছে ইস্টবেঙ্গল

গোয়া থেকে এক পয়েন্ট নিয়েও ফেরা হল না ইস্টবেঙ্গলের। যে সালগাওকরকে দু’দিন আগেই সহজে হারাল মোহনবাগান সেই সালগাওকরের কাছেই ৩-১ গোলে হেরে গেল ইস্

০১ মার্চ ২০১৬ ১৫:২৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

সালগাওকর ৩ (হাওকিপ-৩, এমবারগা)

ইস্টবেঙ্গল ১ (র‌্যান্টি)

লাল কার্ড- শেহনাজ সিংহ (ইস্টবেঙ্গল)

Advertisement

গোয়া থেকে এক পয়েন্ট নিয়েও ফেরা হল না ইস্টবেঙ্গলের। যে সালগাওকরকে দু’দিন আগেই সহজে হারাল মোহনবাগান সেই সালগাওকরের কাছেই ৩-১ গোলে হেরে গেল ইস্টবেঙ্গল। ২১ ফেব্রুয়ারি এই সালগাওকরকেই ঘরের মাঠে ২-১ গোলে হারিয়েছিল বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দল। কিন্তু গোয়ায় গিয়ে সেই খেলার একটু দেখা গেল না। ঘটনা বহুল ম্যাচে, ড্যারেল ডাফির চোট পেয়ে বেড়িয়ে যাওয়া কাজে লাগাতে পারল না ইস্টবেঙ্গল। সঙ্গে বক্সের মধ্যে ফাউল করে সালগাওকরকে পেনাল্টি পাইয়ে দিলেন সামাদ আলি। অন্যদিকে, সামাদ আলির পরিবর্তে খেলতে নামা শেহনাজ সিংহও লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লেন। যার পর আর ম্যাচে ফেরা সম্ভব ছিল না ইস্টবেঙ্গলের। ফিরতেও পারেনি। বরং ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজার ঠিক আগে আরও একটা গোল হজম করে শেষ করলেন র‌্যান্টিরা।

• খেলা শেষ। সালগাওকর ৩, ইস্টবেঙ্গল ১।

• কেভিন লোবোর মিস পাস ধরে হাওকিপের গোলে শট। ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজার কয়েক সেকেন্ড আগেই ব্যবধান বাড়াল সালগাওকর।

৯০+৫ মিনিট, গোওওওল... আবার গোল সালগাওকরের। আবার হাওকিপ।

• ৯০+৪ আবার সুযোগ সালগাওকরের। কিন্তু গোল এল না।

•৯০+৩ মিনিট, লোবোর ফ্রিকিকে মেন্ডির হেড সরাসরি গেল করনজিতের হাতে।

• ৯০+২ মিনিট, ২৫ গজ দূরে ফ্রিকিক পেল ইস্টবেঙ্গল।

• ৯০ মিনিট, চার মিনিট অতিরিক্ত সময়।

• ৮৮ মিনিট, লিগ তালিকার সব থেকে নিচে থাকা দলের কাছেও এভাবে কেন আটকে গেল এখন এটাই বড় প্রশ্ন। এর আগে সালগাওকর জিতেছে ১৫ দিন আগে।

• ৮৬ মিনিট, সালগাওকরে পরিবর্তন। কেলভিনের জায়গায় এলেন ক্লিফটন ডায়াস।

• ডাফিহীন সালগাওকরের কাছে বার বার আটকে যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল।

• ৮৫ মিনিট, এডারের রক্ষণের আটকে রয়েছে ইস্টবেঙ্গল। কেভিন লোবো ও সঞ্জুর ক্রস পর পর ক্লিয়ার করলেন তিনি।

• ৮২ মিনিট, সঞ্জুর কর্নার ক্লিয়ার করলেন এডার।

• ৮০ মিনিট, একগোলে পিছিয়ে থাকা ইস্টবেঙ্গলকে এখন খেলতে হবে ১০ জনে।

• ৭৮ মিনিট, লাল কার্ড শেহনাজের। ইস্টবেঙ্গল বক্সের বাইরে অন্যায়ভাবে জ্যাকিচাঁদকে ট্যাকেল করে মাঠের বাইরে চলে গেলেন শেহনাজ সিংহ।

• ৭৬ মিনিট, ব্যারেটোর দারুণ সেভ।

• ৭৪ মিনিট, র‌্যান্টির বুকে পা তুলে দিয়েও বেঁচে গেলেন এডার। কোনও ফাউল দিলেন না রেফারি।

• ৭২ মিনিট, সরণের বিরুদ্ধে হ্যান্ড বলের আবেদন। যদিও রেফারি সেই আবদনে কান দিলেন না।

• ৬৯ মিনিট, রক্ষণ সামলানোর পাশাপাশি গোলের জন্যও ঝাপাতে হবে ইস্টবেঙ্গলকে। এক পয়েন্টের জন্য অন্তত খেলতে হবে এই মুহূর্তে।

• ৬৭ মিনিটে, হাওকিপের সহজ সুযোগ নষ্টের জন্য বিরক্ত কোচ সন্তোষ কাশ্যপ।

• ৬৪ মিনিট, হাওকিপের নিশ্চিত সুযোগ নষ্ট। বাঁদিক থেকে ক্রস রেখেছিলেন ব্রায়ান। একহাত দূর থেকেও সেই বল গোলে পাঠাতে ব্যর্থ হাওকিপ। ফিরতি বলে জ্যাকিচাঁদের শট বাঁচিয়ে দেন ব্যারেটো।

• ৬২ মিনিট, জ্যাকিচা‌ঁদের শট সরাসরি জমা হল ব্যারেটোর হাতে।

• সালগাওকরে পরিবর্তন। অ্যালেশ সাবন্তের জায়গায় এলেন ব্রায়ান মাসকারেনহাস।

• ৬১ মিনিট, শেহনাজের দূরপাল্লার শট বেড়িয়ে গেল গোলের উপর দিয়ে।

• ৬০ মিনিট, অ্যালেশ বেগ দিচ্ছে ইস্টবেঙ্গল রক্ষণকে।

• ৫৯ মিনিট, আক্রমনে সালগাওকর। সহজ সুযোগ নষ্ট। হাওকিপের ক্রস অ্যালেশ দখলে নিতে ব্যর্থ।

• ৫৫ মিনিট, কেভিন লোবোর শট বাইরে গেল।

• ৫৪ মিনিট, সালগাওকর রক্ষণকে ভরসা দিচ্ছেন এডার। র‌্যান্টির ক্রস হেড দিয়ে বাইরে পাঠালেন তিনি।

• মেহতাব হোসেনের জায়গায় এলেন কেভিন লোবো।

• ৫২ মিনিট, তিন নম্বর পরিবর্তনটিও করে ফেললেন ইস্টবেঙ্গল কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য।

• ৫২ মিনিট, মেহতাব হোসেনের ফ্রিকিকে খাবরার হেড ক্লিয়ার করলেন সরণ।

• ৫০ মিনিট, পাস না দিয়ে গোলের সুয়োগ নষ্ট করলেন এমবারগা। মেন্ডি, শেহনাজের পায়ের জটলায় আটকে গেলেন তিনি।

• ৪৯ মিনিট, এমবারগাকে ফেলে সালগাওকরকে ফ্রিকিক পাইয়ে দিলেন অর্ণব। সরণের ফ্রিকিকে হাওকিপের হেড সরাসরি জমা হল ব্যারেটোর হাতে।

• ৪৭ মিনিট, হাউকিপের শট কে ক্লিয়ার করবে সেই নিয়ে কিছুটা সংশয় দেখা গেল অর্ণব ও মেন্ডির মধ্যে। শেষ পর্যন্ত ব্যারেটো এগিয়ে এসে সেই বল বাইরে পাঠালেন।

• দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু।

একগোলে পিছিয়েই প্রথমার্ধ শেষ করল ইস্টবেঙ্গল। প্রথমে গোল করে এগিয়ে গিয়েছিল সালগাওকর। কিছুক্ষণের মধ্যেই ব্যবধান কমান র‌্যান্টি মার্টিন্স। কিন্তু সামাদ আলির ভুলে পেনাল্টি পেয়ে যায় সালগাওকর। সেখান থেকে আবার এগিয়ে যায় গোয়ান দল। প্রথমার্ধ শেষে সালগাওকর ২, ইস্টবেঙ্গল ১। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই গোল তুলে নিতে হবে ইস্টবেঙ্গলকে।

• দলের খেলায় খুশি নয় কোনও কোচই। খারাপ গোল হজম। ফাউল করে পেনাল্টি দেওয়া। এই ম্যাচে সবই হয়ে গেল প্রথমার্ধে।

• হাফ টাইম। সালগাওকর ২-১ ইস্টবেঙ্গল।

• ৪৫+১ মিনিট, ডানদিক থেকে রফিকের ক্রস ক্লিয়ার করে দিলেন এডার।

• ৪৫ মিনিট, দু’মিনিট অতিরিক্ত সময়।

• ৪৪ মিনিট, জ্যাকির ক্রস অর্ণবের গায়ে লেগে প্রায় গোলেই ঢুকে যাচ্ছি্ল। ফিস্ট করে সেই বল ক্লিয়ার করলেন গোলকিপার ব্যারেটো।

• ৪২ মিনিট, সঞ্জুর কর্নারে রফিকের হেড ক্লিয়ার করলেন মার্টিন স্কট।

• ৪১ মিনিট, ইস্টবেঙ্গলের দ্বিতীয় পরিবর্তন। বেলো রজাকের জায়গায় এলেন হরমনজ্যোত খাবরা।

• ৩৮ মিনিট, ইস্টবেঙ্গলের প্রথম পরিবর্তন। সামাদ আলির জায়গায় এলেন শেহনাজ সিংহ।

• পেনাল্টি থেকে গোল করে সালগাওকরকে এগিয়ে দিলেন কেলভিন এমবারগা।

• ৩৬ মিনিট, গোওওওওল... আবার এগিয়ে গেল সালগাওকর।

• জ্যাকিচাঁদকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখলেন সামাদ আলি, পেনাল্টি পেল সালগাওকর।

• ৩৩ মিনিট, নিজেদের মধ্যে ছোট ছোট পাসে খেলে খেলা তৈরি করার চেষ্টা করছে ইস্টবেঙ্গল।

• ৩১ মিনিট, জায়গা ছেডে় বেড়িয়ে এসেছিলেন ব্যারেটো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হাওকিপের শট জমা হল তাঁর হাতেই।

• মেহতাবের শট ক্লিয়ার করতে গিয়ে র‌্যান্টির পায়ে জমা দেন কেনান।সেই সুয়োগই কাজে লাগিয়ে গোল করে গেলেন তিনি।

• ২৫ মিনিট, ইস্টবেঙ্গলকে সমতায় ফেরালেন র‌্যান্টি মার্টিন্স।

• গোওওওল....

• ২৪ মিনিট, কাউন্টার আক্রমণে বিকাশ জাইরু। কর্নারের বিনিময়ে বিকাশের শট ক্লিয়ার করলেন অগাস্টিন।

• ২৩ মিনিট, অ্যালেশ সবন্তের ক্রস ক্লিয়ার করলেন অর্ণব।

• ২২ মিনিট, পর পর দু’বার অফ সাইড হলেন র‌্যান্টি।

• ১৬ মিনিট, গোল লাইন সেভ। বিকাশ জাইরুর শট গোল লাইন থেকে বাঁচালেন এডার। করনজিৎ জায়গায় ছিলেন না।

• ডাফির জায়গায় মাঠে এলেন জ্যাকিচাঁদ সিংহ।

• ১০ মিনিট, গুরুতর আহত হয়ে মাঠ ছাড়লেন ড্যারেল ডাফি। আশঙ্কা করা হচ্ছে গ্রোয়েনে চোট।

• সঞ্জুর থেকে বল পেয়ে অগাস্টিনকে কাটিয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে গিয়েছিলেন র‌্যান্টি। কিন্তু গোলে শট নিতে পারলেন না।

• ৮ মিনিট, অল্পের জন্য সুযোগ নষ্ট র‌্যান্টির।সমতায় ফেরা হল না ইস্টবেঙ্গলের।

• তার আগেই হাওকিপের শট ক্লিয়ার করে দিয়েছিলেন অর্ণব।

• ৪ মিনিট, ড্যারেল ডাফির ক্রস এক অর্ণবের সামনেই পেয়ে গিয়েছিলেন হাওকিপ। কিন্তু সেই বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হন ইস্টবেঙ্গল অধিনায়ক।

• ৪ মিনিট, গোল করে সালগাওকরকে এগিয়ে দিলেন হাওকিপ।

• গোওওওল...

• ৩ মিনিট, ইস্টবেঙ্গলের আক্রমণ। সঞ্জু প্রধানের ক্রস বক্সের মধ্যে থেকে ক্লিয়ার করে দিলেন এডার।

• খেলা শুরু।

মোহনবাগানের বিরুদ্ধে সালগাওকরের খেলা ভাস্কোর মাঠে বসে দেখেছেন ইস্টবেঙ্গল কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য। মেপে নিয়েছেন ভাল মতোই। সেই গোয়ার মাঠেই এবার সালগাওকরে মুখোমুখি লাল-হলুদ ব্রিগেড। ঘরের মাঠে এই সালগাওকরকে হারিয়েছিল বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের ছেলেরা। গোল করেছিলেন রফিক আর বেলো। শেষ তিনটি ম্যাচ জয় নিয়েই গোয়া গিয়েছেন র‌্যান্টিরা। বেশি দিন আগের কথা নয়। সেই সালগাওকরের বিরুদ্ধে নামার আগে কিন্তু সতর্ক ইস্টবেঙ্গল। গোয়া থেকে তিন পয়েন্ট নিয়েই ফিরতে চাইছে দল। মোহনবাগানের বিরুদ্ধে লাল কার্ড দেখায় ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে খেলতে পারছেন না গিলবার্ত অলিভিয়েরা। এদিকে উইনিং কম্বিনেশনও ভাঙতে চাইবেন না ইস্টবেঙ্গল কোচ। শুধু অনূর্ধ্ব-২২ এ খেলতে দেখা যেতে সামাদ আলি মল্লিককে। ব্যক্তিগত সমস্যা কাটিয়ে বাড়ি থেকে ফিরে দলের সঙ্গে গোয়ায় যোগ দিয়েছে গোলকিপার রেহনেশও।

ইস্টবেঙ্গল দল: লুই ব্যারেটো, সামাদ আলি মল্লিক, অর্ণব মণ্ডল, বেলো রজাক, নারায়ন দাস, সঞ্জু প্রধান, মেহতাব হোসেন, রহম্মদ রফিক, বিকাশ জাইরু, মেন্ডি, র‌্যান্টি মার্টিন্স।

আরও খবর

শুরুতেই গোল চায় ইস্টবেঙ্গল

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement