Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
ICC World Cup 2019

গোটা পাকিস্তানের সমর্থন পাবে ভারত, বলছেন সেই বাসিত আলি

টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার ময়নাতদন্ত হচ্ছে ওয়াঘার ও পারে, তখন সীমান্তের এ পার নতুন স্বপ্নে বাঁচছে।

বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট ভারত। মনে করছেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার বাসিত আলি।

বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট ভারত। মনে করছেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার বাসিত আলি।

কৃশানু মজুমদার
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুলাই ২০১৯ ১৭:৩৭
Share: Save:

ভারত-নিউজিল্যান্ড সেমিফাইনালে কাকে সমর্থন করবেন আপনি? পাকিস্তানেরই বা সমর্থন কোন দিকে? প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার বাসিত আলি এক মুহূর্ত না ভেবে আনন্দবাজারকে বললেন, ‘‘অবশ্যই ভারতকে সমর্থন করবে পাকিস্তান। এশিয়ার একমাত্র দেশ বিশ্বকাপে বেঁচে রয়েছে। ভারতকেই তো সমর্থন করব।’’

Advertisement

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছে পাকিস্তান। মন ভাল নেই ইমরান খানের দেশের। যখন টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার ময়নাতদন্ত হচ্ছে ওয়াঘা সীমান্তের ও পারে, তখন সীমান্তের এ পার নতুন স্বপ্নে বাঁচছে। মঙ্গলবার নিউজিল্যান্ডকে হারাতে পারলেই বিশ্বকাপের ফাইনালে পৌঁছে যাবে বিরাট কোহালির দল। বিলেতে কোহালিদের দুরন্ত পারফরম্যান্স মন কেড়ে নিয়েছে পড়শি দেশের প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে শুরু করে ক্রিকেটপ্রেমীদের। ভারতীয় ক্রিকেটের আধিপত্য দেখার পরে বাসিত আলি বলছেন, ‘‘চলতি বিশ্বকাপে ভারতের মতো কোনও দলই খেলতে পারছে না।” ‘হিটম্যান’-এর ব্যাটিংয়ে উচ্ছ্বসিত বাসিত বলছেন, “ভারতীয় ব্যাটিংয়ের পুরো চাপটাই নিচ্ছে রোহিত শর্মা। এক বিশ্বকাপে পাঁচটা সেঞ্চুরি করে রোহিত বুঝিয়ে দিয়েছে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে ও।’’

তবে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালির ব্যাটিং দেখে অবাক পাকিস্তানের প্রাক্তন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তিনি বলছেন, ‘‘কোহালিকে দেখে অবাক হচ্ছি। বিশ্বকাপে ওরও চারটি সেঞ্চুরি হয়ে যাওয়ার কথা এত দিনে। আমার মনে হচ্ছে সেমিফাইনালে কোহালি জ্বলে উঠবে।’’ কারণ ব্যাখ্যা করে বসিত বলছেন, ‘‘ক্রিকেটে ল অফ অ্যাভারেজ বলে একটা কথা প্রচলিত রয়েছে। রোহিত একের পর এক সেঞ্চুরি করে চলেছে। তাই শেষ চারে অল্প রানে ফিরে যাওয়ার আশঙ্কা রোহিতেরই। কোহালি বড় রান পাচ্ছে না। তাই বিরাটেরই বড় রান পাওয়া উচিত।’’

আরও পড়ুন: ‘পাকিস্তানের শেষ চারে যাওয়া থামাতে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশের কাছে হারবে ভারত’

Advertisement

আরও পড়ুন: ইংল্যান্ডের সঙ্গে পিকনিক করল ভারত, খোঁচা সেই বসিতের

বিশ্বকাপ চলাকালীন বিতর্ক উস্কে দিয়েছিলেন বাসিত। ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচের দিন তিনেক আগে ভবিষ্যদ্বাণী করে তিনি বলেছিলেন, পাকিস্তানকে নক আউট পর্বে এড়ানোর জন্য ভারত ইচ্ছা করে হেরে যাবে ইংল্যান্ডের কাছে। অদ্ভুত ভাবে তাঁর বক্তব্য মিলে গিয়েছে। অইন মর্গ্যানের দলের কাছে হেরে গিয়েছে ভারত। কোহালিদের হার দেখার পরে ওয়াকার ইউনিস, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, নাসের হুসেনরা ভারতীয় ব্যাটিংয়ের সমালোচনা করেছেন। করাচি থেকে বাসিত বলছেন, “আমার মন্তব্যের পরে ভারতের সমর্থকরা আমার ৮০ বছর বয়সী মাকে তীব্র গালাগাল করেছেন। আমার মায়ের শারীরিক অবস্থা ভাল নয়। একটাই অনুরোধ আমার। ভারতের সমর্থকরা আমাকে যা খুশি বলুন, আমার মাকে যেন কিছু না বলেন। আমি ভুল কী বলেছিলাম? তা হলে তো সৌরভ-ওয়াকার ইউনিসরাও ভারতের সমালোচনা করেছে। ওদের তো কেউ কিছু বলছে না?” এক নিঃশ্বাসে কথাগুলো বলে চলেন অভিমানী বাসিত।

অসুস্থ মাকে দেখতে হাসপাতালে বাসিত আলি।

বৃষ্টির জন্য গ্রুপের ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ ভেস্তে গিয়েছিল। সেমিফাইনালে ফের দেখা দুই দেশের। কে ফেভারিট? বাসিত বলছেন, “এ বারের বিশ্বকাপে ভারত যে রকম খেলছে, তাতে ওদেরকেই ফেভারিট বলতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে, বিশ্বকাপ এখন নক আউট পর্বে পৌঁছে গিয়েছে। যে কেউ ম্যাচ জিততে পারে। নিউজিল্যান্ড বোলারদের ভাল ভাবে সামলাতে হবে ভারতকে। ভারতের চাপের কিছু নেই। কারণ ভারতীয় দলে গেমচেঞ্জারের সংখ্যাই বেশি।’’

এক সময়ে বলা হত, ভারত ব্যাটসম্যান তৈরি করে। আর পাকিস্তান বোলারদের জন্ম দেয়। এখন কিন্তু ছবিটা পাল্টেছে। বাসিত বলছেন, “মহম্মদ শামি আমাকে আকিব জাভেদের কথা মনে করাচ্ছে। কী দুর্দান্ত সিম ব্যবহার করছে শামি। যশপ্রীত বুমরা বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার ঠিকই কিন্তু শামি দলে ঢোকার পরে ভারতীয় বোলিংকে ভয়ঙ্কর লাগছে।’’ কিউয়িদের বিরুদ্ধে নামার আগে কোহালিদের জন্য বাসিতের পরামর্শ, “রবীন্দ্র জাডেজাকে দলে নেওয়া উচিত। ও থ্রি ডাইমেনশনাল প্লেয়ার। ভাল বল করে, ব্যাটিংয়ের হাতও বেশ ভাল। দুর্দান্ত ফিল্ডার। আমার মতে কুলদীপকে বসিয়ে জাডেজাকেই দলে নেওয়া উচিত ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের।’’ দিন কয়েক আগেই জাডেজাকে নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন প্রাক্তন ভারত ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকর। বাসিত সম্পূর্ণ অন্য মেরুতে অবস্থান করছেন।

বিশ্বকাপের জন্য এখন একটি চ্যানেলে বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ করছেন। বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেলে কী করবেন জানেন না। বলছিলেন, ‘‘চাকরি খুঁজছি। যে কোনও ধরনের চাকরি করতে চাই।’’ বিশ্বকাপ নতুন করে চাকরির সংস্থান করে দিয়েছে বাসিতকে। বেশ কয়েক বছর আগে কোচিং করাতেন। এখন আর কোচিংও করান না। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাজ আগেই চলে গিয়েছে। ভাড়া বাড়িতে থাকেন তিনি। এক সময়ের নামী ক্রিকেটারের খবর আর কে রাখেন!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.