Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

এশিয়া কাপ খেলতে গিয়ে কিটস নিয়ে সমস্যায় সুনীলরা

ফুটবলারদের কিটস এখনও পৌঁছয়নি। ওমানের বিরুদ্ধে ভারতীয় ফুটবলাররা কোন কিটস ব্যবহার করেন তা নিয়েই এখন বেশ সংশয়। এত বড়মাপের একটি আন্তর্জাতিক টুর

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৫:৩৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
কিটস নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন সুনীল ছেত্রীরা। ফাইল ছবি।

কিটস নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন সুনীল ছেত্রীরা। ফাইল ছবি।

Popup Close

এএফসি এশিয়ান কাপ ফুটবলে অংশ নিতে ভারতীয় ফুটবল দল ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছে আমিরশাহিতে। তারই প্রস্তুতি হিসেবে আগামী বৃহস্পতিবার ওমানের বিরুদ্ধে একটি প্রীতি ম্যাচেও নামার কথা সুনীল ছেত্রীদের। কিন্তু, এত বড়মাপের একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে খেলতে গিয়ে অদ্ভুত সমস্যায় পড়েছেন তাঁরা।

ফুটবলারদের কিটস এখনও পৌঁছয়নি। ওমানের বিরুদ্ধে ভারতীয় ফুটবলাররা কোন কিটস ব্যবহার করবেন তা নিয়েই এখন বেশ সংশয়। প্রসঙ্গত, আগে জাতীয় ফুটবলারদের কিটস সরবরাহ করত বিশ্ব বিখ্যাত ক্রীড়া সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক সংস্থা নাইকে। গত অক্টোবরে ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে নতুন চুক্তি অনুযায়ী এখন সুনীল,জেজে, সন্দেশ ঝিঙ্গানদের কিটস সরবরাহের দায়িত্বে ‘সিক্সফাইভসিক্স’ নামের গুরুগ্রামের একটি সংস্থা। সংস্থাটির সঙ্গে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের পাঁচ বছরের চুক্তি হয়েছে।

পরিবেশ, আবহের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সুনীলরা গত বৃহস্পতিবারই আবু ধাবিতে গিয়ে পৌঁছে গিয়েছেন। সুনীলদের হাতে নতুন কিটস চলে আসার কথা ওমান ম্যাচের আগেই। একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, একসঙ্গে না হলেও ধাপে ধাপে ফুটবলারদের হাতে কিটস পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে সরবরাহকারী সংস্থাটি। তবে, বেশ কয়েকজন ফুটবলারের ক্ষেত্রে সেই কিটস মাপে ফিট করেনি। এমনকি, একই নম্বরের জার্সি ও শর্টস পেয়েছেন একাধিক ফুটবলার!

Advertisement

আরও পড়ুন: খাদ্যাভ্যাস বদলে আরও তীক্ষ্ণ ডিকা-জাস্টিনেরা

আরও পড়ুন: অনেক উত্থান-পতন বাকি, বলছেন ক্লপ

ফেডারেশনের তরফে সাধারণ সচিব কুশল দাস জানিয়েছেন, “এই ব্যাপারটা নিয়ে এত জলঘোলা করার কোনও কারণই নেই। খোঁজ নিয়ে দেখুন, ফুটবলারদের হাতে কিটস পৌঁছতে শুরু করে দিয়েছে। আশা করছি, মঙ্গলবারের মধ্যেই সমস্ত ফুটবলার কিটস পেয়ে যাবে। ’’

অন্যদিকে, কিটস প্রস্তুতকারক সংস্থাটি আবার দোষ চাপিয়ে দিয়েছে ফেডারেশনের ঘাড়ে। তাদের তরফে বলা হয়েছে, “এআইএফএফ একবারও আমাদের জানায়নি যে, এশিয়া কাপ ও ওমান প্রীতি ম্যাচের জন্য ফুটবলারদের আলাদা আলাদা জার্সি দরকার। ফেডারেশনের পক্ষ থেকে যে তালিকা দেওয়া হয়েছিল সেই মতোই জার্সি তৈরি করা হয়েছে। নম্বরও সেভাবেই দেওয়া হয়েছে।’’

২০১১ সালে শেষবার এশিয়া কাপের মূলপর্বে খেলেছিল ভারত। যদিও সেভাবে দাগ কাটতে পারেনি। এবার স্টিভন কনস্ট্যানটাইনের ছাত্ররা মরু দেশে ভালো কিছু করতে মরিয়া। টুর্নামেন্টে ভারতের প্রথম ম্যাচ ৬ জানুয়ারি। বিপক্ষ তাইল্যান্ড। গ্রুপ পর্যায়ে সুনীলরা বাকি দুটি ম্যাচ খেলবেন আমিরশাহি ও বাহরিনের বিরুদ্ধে যথাক্রমে ১০ ও ১৪ জানুয়ারি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement