×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

জার্সিতে তৃতীয় তারা দেখতে মরিয়া কামিন্স

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৪:৩৬
আবেগ: ছ’বছর আগে ইডেনের সংবর্ধনা এখনও মনে আছে কামিন্সের।

আবেগ: ছ’বছর আগে ইডেনের সংবর্ধনা এখনও মনে আছে কামিন্সের।

ব্রেন্ডন ম্যাকালাম তাঁর দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রধান কোচ হওয়ায় স্বস্তিতে রয়েছেন তিনি! অস্ট্রেলিয়ার সেই তারকা পেসার প্যাট কামিন্সের খুশির কারণ, ম্যাকালামের মতো বিধ্বংসী ব্যাটসম্যানকে বল করতে হবে না।

একই সঙ্গে কামিন্স  আশাবাদী, নাইটদের খেতাব জয়ের ব্যাপারেও। কেকেআর-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‍‘‍‘সম্প্রতি ভারতে এসে এক ভক্তের কাছ থেকে ২০১৫ সালের কেকেআর জার্সি উপহার পেয়েছি। যা পেয়ে ওই মরসুমের অনেক সুখস্মৃতি মনে এল। বিশেষ করে ইডেনের কথা। ছোট থেকেই ক্রিকেট খেলা দেখতাম। শুনতাম ইডেনে ভারতের হয়ে এক লক্ষ দর্শক সমর্থন করেন। ইডেনের মাহাত্ম্য বুঝতে পেরেছিলাম ২০১৪-১৫ মরসুমে কেকেআরে খেলার সময়।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘২০১৪ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরে ইডেনের সংবর্ধনা এখনও মনে আছে। আমাদের জার্সিতে দু’বার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য দু’টি তারা রয়েছে। তৃতীয় তারার জন্য অভিযান শুরু হবে এ বার।’’

এই মুহূর্তে কেকেআর শিবিরে যোগ দিয়ে নিভৃতবাসে রয়েছেন কামিন্স। দিন কয়েক পরেই অনুশীলনে নেমে পড়বেন। নিভৃতবাস থেকেই তাঁর মন্তব্য, ‍‘‍‘ব্রেন্ডন ম্যাকালাম দলের প্রধান কোচ হওয়ায় ওকে বল করতে হবে না। এটা সব চেয়ে স্বস্তির। আমার খেলোয়াড় জীবনে ওর মতো বিধ্বংসী ক্রিকেটার খুব কম দেখেছি। ম্যাচের প্রথম বল থেকেই ও ছক্কা মেরে জয় ছিনিয়ে নিতে দক্ষ।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: সুপার ওভারে সুপার রাবাডা

একই সঙ্গে কেকেআর বোলিং কোচ নিউজ়িল্যান্ডের প্রাক্তন পেসার কাইল মিলস সম্পর্কেও শ্রদ্ধাশীল কামিন্স। তাঁর সম্পর্কে কেকেআর পেসার বলছেন, ‍‘‍‘কাইল মিলস নিউজিল্যান্ড বোলিং বিভাগের অন্যতম সেরা পেসার ছিল। বিশ্বের বিভিন্ন উইকেটে বল করার অভিজ্ঞতা রয়েছে মিলসের। যা আমার বোলিংকে সমৃদ্ধ করবে।’’

কেকেআরের হয়ে পাওয়ার প্লে-র সময় গতি ও সুইং মিশিয়ে বিপক্ষ শিবিরে ধাক্কা দেওয়ায় তাঁর প্রধান রণনীতি কি না তা জানতে চাইলে কামিন্স বলছেন, ‍‘‍‘২০ ওভারের এই খেলায় বোলারদের কখনও অতি-আক্রমণাত্মক হতে হয়। আবার শেষের দিকে অতি-রক্ষণাত্মক বোলিং করতে লাগে। যে কোনও সময়েই বল করতে এলে উইকেট তুলতে হবে। এটাই আসল কথা।’’

আরও পড়ুন: শেষ সুযোগ ভেবে নামো, সতীর্থদের বার্তা কোহালির

Advertisement