×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুন ২০২১ ই-পেপার

টার্নার কে আর দিত, বললেন গম্ভীর

নিজস্ব সংবাদদাতা
রাজকোট ০৭ এপ্রিল ২০১৭ ০৪:২৫

গৌতম গম্ভীরও হেসে ফেললেন! তবে এটা বাঁকা হাসি। যখন পিচ নিয়ে প্রশ্ন উঠল বৃহস্পতিবারের সাংবাদিক বৈঠকে। ‘‘হ্যাঁ দেখেছি পিচটা। একটু ঘাস আছে। তবে এ রকমই আশা করেছিলাম। আমাদের কে আর ঘূর্ণি উইকেট দেবে বলুন?’’ বললেন কেকেআর অধিনায়ক।

বরং সুরেশ রায়নাকে দেখা গেল, কিছুটা গম্ভীর। ঘরের মাঠে খেলা হওয়া সত্ত্বেও। এর এক নম্বর কারণ যদি হয় রবীন্দ্র জাডেজার অনুপস্থিতি, তবে দু’নম্বরটা ডোয়েন ব্র্যাভোকে ঘিরে অনিশ্চয়তা। জাডেজার দু’ম্যাচ পরেই ফেরার কথা। কিন্তু ব্র্যাভোকে নিয়ে বিশেষ কোনও খবর নেই রায়নাদের কাছে। গুজরাত অধিনায়ক বলছিলেন, ‘‘ব্র্যাভোকে নিয়ে আমরা খুব একটা কিছু জানি না। শুনেছি ওর রিহ্যাব চলছে। কিন্তু কবে ফিরতে পারবে তা নিয়ে কোনও ধারণা নেই আমাদের।’’

গম্ভীরের অবশ্য নিজের টিম নিয়ে পরিষ্কার ধারণা আছে। যেমন বলছিলেন, ‘‘পিচে ঘাস আছে তো কী? আমাদের হাতে পেস বিকল্পও আছে। নেথান কোল্টার নাইল, ক্রিস ওক্‌স আছে। ট্রেন্ট বোল্ট পুরোপুরি সুস্থ। ট্রেন্ট নতুন বলে উইকেট তোলার ব্যাপারে আমাদের বড় বাজি।’’ নাইট শিবির থেকে আরও একটা ব্যাপারের আঁচ পাওয়া যাচ্ছে। দীর্ঘ দিনের তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনারের ফর্মুলা থেকে সরে এসে হয়তো এ বার তিন ফাস্ট বোলারে যেতে পারে কলকাতা। দু’জন স্পিনারকে দলে রেখে। বোল্ট, ওক্‌স, কোল্টার নাইলের মধ্যে দুই। সঙ্গী অঙ্কিত রাজপুত বা ঋষি ধবন। গম্ভীর বলছিলেন, ‘‘আমাদের ভারীতয় পেস আক্রমণও ভাল। অঙ্কিত খুব বোলার, ঋষি অলরাউন্ডার। তা ছাড়া সায়ন ঘোষ একটু অন্য রকমের বোলার। আন্দ্রে রাসেল না থাকা মানে এই পেসারদের সামনে একটা সুযোগ খুলে যাওয়া। আমি ব্যাপারটাকে সে ভাবেই দেখি।’’

Advertisement

সুনীল নারাইনের সঙ্গী হিসেবে কি এ বার কুলদীপ যাদবকেই বেশি দেখা যাবে? গম্ভীর এ ক্ষেত্রেও তাঁর বক্তব্যটা পরিষ্কার করে দিতে চান, ‘‘দেখুন, আমি চাই কুলদীপকে নিয়ে যেন বেশি আলোচনা না হয়। আমি চাইব ওকে স্বাধীন ভাবে খেলতে দেওয়া হোক। তা হলেই কুলদীপ ম্যাচউইনার হয়ে উঠবে।’’



Advertisement