Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জুন ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Virat Kohli: ইডেন দ্বৈরথের রণসজ্জায় নেমে পড়লেন বিরাট

ইডেনেই জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি এসেছিল বিরাটের ব্যাটে। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২০০৯ সালে। শেষ আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরিও ইডেনে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ মে ২০২২ ০৮:২২
Save
Something isn't right! Please refresh.
সতর্ক: বৃষ্টির আশঙ্কায় মাঠ ঢাকা ইডেনে। রবিবার।

সতর্ক: বৃষ্টির আশঙ্কায় মাঠ ঢাকা ইডেনে। রবিবার।
ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

Popup Close

রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের জয়ের সৌজন্যে ইডেনে ২৫ মে এলিমিনেটরে নামছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। শনিবার রাতে মুম্বইয়ে আরসিবির টিম হোটেলে মাঝ রাত পর্যন্ত চলে উৎসব। তার ভিডিয়োও তুলে ধরা হয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে। কিন্তু শুধু উৎসবেই থেমে থাকেননি বিরাট। শনিবার রাত থেকেই প্লে-অফের ছক কষা শুরু হয়ে গিয়েছে তাঁর শিবিরে।

ইডেনেই জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি এসেছিল বিরাটের ব্যাটে। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২০০৯ সালে। শেষ আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরিও ইডেনে। ২০১৯ সালের নভেম্বরে দিন-রাতের টেস্টে। এমনকি আইপিএলে শেষ সেঞ্চুরিও এখানেই। ৫৮ বলে ১০০ রান করেছিলেন সে দিন। ইডেন তাঁর বহু সাফল্যের সাক্ষী। এ বার স্মরণীয় সেই মাঠকে কিছু ফিরিয়ে দিতে মরিয়া প্রাক্তনভারতীয় অধিনায়ক।

গুজরাত টাইটান্সের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচেই ছন্দে ফিরেছেন বিরাট। ৫৪ বলে ৭৩ রান করে ম্যাচের নায়ক তিনি। আসন্ন এলিমিনেটর নিয়ে বিরাট কতটা উত্তেজিত, তাঁর টুইটার দেখলেই অনেকটা পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। প্রথম টুইটে দেখা যাচ্ছে বিমানের একটি ইমোজি দিয়ে লিখেছেন, ‘‘কলকাতা’’। দ্বিতীয় টুইটে ফ্যাফ ও ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে একটি ছবি তুলে ধরেছেন।

Advertisement

দিল্লি ম্যাচ শেষে আরসিবি শিবিরে উৎসবের ভঙ্গিও সেই ধারণা পরিষ্কার করে দেয়। রমনদীপ সিংহ চার মেরে ম্যাচ শেষ করার পরেই ফ্যাফের কোলে লাফ দিয়ে উঠে যান বিরাট। শুরু হয় জয়ধ্বনি, ‘‘আরসিবি... আরসিবি...।’’ পরে বিরাট বলেছেন, ‍‘‍‘অবিশ্বাস্য মুহূর্ত! মুম্বইয়ের জয়ের পরে আমাদের ড্রেসিংরুমে আনন্দ, আবেগ মাত্রাছাড়া হয়ে গিয়েছিল প্রায়। ধন্যবাদ মুম্বই। আমরা মনে রাখব তোমাদের এই লড়াই।’’

সেই শিবিরেই বাংলার দুই ক্রিকেটার রয়েছেন। ফ্যাফ ডুপ্লেসির অন্যতম ভরসা শাহবাজ় আহমেদ ও তরুণ পেসার আকাশ দীপ। দিল্লি ম্যাচ শেষেই নাকি তাঁদের কাছে ইডেনের পিচের রহস্য জানতে চাওয়া হয়। বিরাট ইডেনে বহু ম্যাচ খেললেও ডুপ্লেসি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, জশ হেজ্‌লউড ওয়ানিন্দু হাসরঙ্গরা এই বাইশ গজের সঙ্গে সে ভাবে পরিচিত নন। ব্যাটারদের পাশাপাশি যে বোলাররাও সমান সাহায্য পান এই পিচ থেকে, সে বিষয়ে ওয়াকিবহাল নন অনেকেই। শাহবাজ়, আকাশের থেকেই ইডেনের পিচের চরিত্র জেনে নিচ্ছেন আরসিবির ক্রিকেটারেরা।

সোমবার বিকেলে শহরে পৌঁছে যাচ্ছেন বিরাটরা। প্রথম দিন অনুশীলন করার সম্ভাবনা কম। তবে মঙ্গলবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সল্টলেক ক্যাম্পাসের মাঠে নামতে চলেছে আরসিবি। বুধবার তাঁদের ম্যাচকে কেন্দ্র করে এখন থেকেই ইডেনের বাইরে টিকিটের চাহিদা তুঙ্গে। কিন্তু কাউন্টার থেকে এ বার টিকিট দেওয়া হচ্ছে না শুনে বাড়ির দিকে রওনা দিতে বাধ্য হচ্ছেন অনেকেই। ইডেন যদিও আইপিএলের জন্য সেজে উঠছে স্বমহিমায়। রবিবার বিকেলে রোদ ওঠায় পিচের আচ্ছাদন সরিয়ে রোল করা হয়েছে। হাল্কা ঘাস রাখা হয়েছে পিচে যাতে মাটি ধরে রাখতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement