×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

সাত বার পিচিচি ট্রফি জিতে নজির

দর্শকহীন মাঠে ফুটবল দুঃসহ, বলছেন মেসি

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৩ ডিসেম্বর ২০২০ ০৩:৫৬
সেরা: ফের মরসুমে সর্বোচ্চ গোল। পিচিচি ট্রফি নিয়ে মেসি। টুইটার

সেরা: ফের মরসুমে সর্বোচ্চ গোল। পিচিচি ট্রফি নিয়ে মেসি। টুইটার

গত মরসুমে সর্বোচ্চ গোল করার জন্য লিয়োনেল মেসি সপ্তমবারের জন্য পেলেন পিচিচি ট্রফি। কিন্তু সেই ট্রফি নিয়ে উৎসব করার চেয়েও হতাশা গ্রাস করছে মেসিকে। কারণ? অতিমারির জন্য ফাঁকা স্টেডিয়ামে খেলতে নামা।

স্পেনের এক পত্রিকাকে দেওয়া দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনা তারকা বলে দিলেন, ফাঁকা স্টেডিয়ামে ফুটবল দুঃসহ এবং কুৎসিত। মেসি বলেছেন, ‘‘ফাঁকা স্টেডিয়ামে খেলাটা দুঃসহ অভিজ্ঞতা। ভক্তদের ছাড়া ফুটবল কুৎসিত।’’ যোগ করছেন, ‘‘মাঠে নেমে কোনও দর্শককে দেখতে না পারাটা যেন ট্রেনিংয়ে নামার মতো। মনেই হয় না ম্যাচ খেলছি। মানিয়ে নেওয়া সত্যিই খুব কঠিন।’’

দর্শকহীন স্টেডিয়ামের এই যন্ত্রণার প্রভাব ধরা পড়েছে মেসির বার্সলোনার খেলাতে। গত বছর যখন অতিমারির জন্য ফুটবল বন্ধ হচ্ছে, লা লিগায় ১১ ম্যাচ বাকি থাকতে বার্সেলোনা ছিল শীর্ষে। সেই খেতাব তারা রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারায়। তার পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ২-৮ গোলে চূর্ণ হয়। এ বারের লা লিগায় ৩৩ বছরের মধ্যে সব চেয়ে খারাপ শুরু করেছে বার্সেলোনা। ২০০৭-’০৮ মরসুমের পরে মেসির সব চেয়ে খারাপ মরসুম যাচ্ছে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মাত্র ৯ গোল করেছেন এখনও পর্যন্ত। তার মধ্যে ৫টি পেনাল্টি থেকে।

Advertisement

মেসি বলছেন, ‘‘সত্যিটা হচ্ছে, দর্শকহীন ফুটবল কুৎসিত একটা ব্যাপার। ম্যাচগুলোতে লড়াই হচ্ছে সেই কারণেই। যাদের বিরুদ্ধেই খেলি না কেন, দর্শকহীন মাঠে জেতা খুবই কঠিন।’’ যোগ করছেন, ‘‘অতিমারি ফুটবলে পাল্টে দিয়েছে এবং সেই পরিবর্তন হয়েছে খারাপের জন্য। ম্যাচগুলোতেই এর প্রভাব সকলে দেখতে পাচ্ছে। আমি আশা করি, খুব দ্রুতই সব কিছু ঠিক হয়ে যাবে এবং আবার ভর্তি স্টেডিয়ামে ফুটবল খেলতে পারব।’’

স্প্যানিশ লিগে সেই মার্চ থেকেই ফাঁকা মাঠে খেলা হচ্ছে। তবে শোনা যাচ্ছে, টিকা আসার পরে আগামী এপ্রিল থেকে দর্শক ফিরতে পারে ফুটবল স্টেডিয়ামগুলোতে। অপেক্ষাকৃত খারাপ ফর্মের মধ্যেই মেসি অবশ্য সাতবারের জন্য পিচিচি ট্রফি জিতে ম্লান করে দিয়েছেন প্রাক্তন অ্যাথলেটিক বিলবাও দলের ফুটবলার তেলমো সারার কীর্তি। সারা ছ’বার এই ট্রফি জিতেছিলেন। মেসি বলছেন, “নিঃসন্দেহে এটা আমার কাছে খুব বড় একটা প্রাপ্তি। কখনও কল্পনা করিনি এত বার এই ট্রফি পাব এবং তেলমো সারার মতো কিংবদন্তি ফুটবলারের নজিরকে ছাপিয়ে যাব।” যোগ করেছেন, “পরের বারও এই ট্রফি পাব কি না, তা নিয়ে আমার মধ্যে কোনও উদ্বেগ নেই। আমি তার চেয়ে লা লিগা খেতাব জিততে চাই, যেটা আমরা গত মরসুমে জিততে পারিনি।” প্রয়াত দিয়েগো মারাদোনার প্রতি নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ দলের জার্সি পরে সম্মান জানানো নিয়ে বলেছেন, “আমি খুবই ভাগ্যবান যে, গোল করে ওঁর মতো ব্যক্তিত্বকে সম্মান জানাতে পেরেছি। ভেবেই রেখেছিলাম, ও ভাবে সম্মান জানাব।”

Advertisement