Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

চেন্নাই সিটির রূপকথার নেপথ্য নায়ক কে? চিনে নিন তাঁকে 

চেন্নাইয়ের আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আনন্দ ছুঁয়ে যাচ্ছে জর্ডি ভিলাকেও। ভারতে না থাকলেও তাঁর মনে প্রাণে চেন্নাই সিটি। চেন্নাইয়ের রূপকথার দৌড়ের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ মার্চ ২০১৯ ২১:৩২
Save
Something isn't right! Please refresh.
দাভিদ ভিয়ার সঙ্গে জর্ডি ভিলা। চেন্নাই সিটির সাফল্যের পিছনে তাঁর অবদান কম নয়। —নিজস্ব চিত্র

দাভিদ ভিয়ার সঙ্গে জর্ডি ভিলা। চেন্নাই সিটির সাফল্যের পিছনে তাঁর অবদান কম নয়। —নিজস্ব চিত্র

Popup Close

অন্ধকার থেকে আলোয় চেন্নাই সিটি এফসি। শনিবার মিনার্ভা পঞ্জাবকে হারিয়ে ভারতসেরা হয়েছে তারা। অথচ, গত বারের আই লিগে ইস্টবেঙ্গলের কাছে সাত গোলের লজ্জায় মুখ ঢাকতে হয়েছিল চেন্নাইকে। এ বার তার মধুর প্রতিশোধ নিলেন নেস্টর, স্যান্ড্রোরা। দুটো সাক্ষাতেই ইস্টবেঙ্গলকে মাটি ধরিয়েছে দক্ষিণের ক্লাব। শেষ ম্যাচেও অবলীলায় জিতে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় তারা।

চেন্নাইয়ের আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আনন্দ ছুঁয়ে যাচ্ছে জর্ডি ভিলাকেও। ভারতে না থাকলেও তাঁর মনে প্রাণে চেন্নাই সিটি। চেন্নাইয়ের রূপকথার দৌড়ের পিছনে তাঁর অবদানই সব চেয়ে বেশি। নেস্টর-স্যান্ড্রোদের তিনিই যে নিয়ে এসেছেন চেন্নাই সিটিতে! চেন্নাই সিটি কী ভাবে খুঁজে পেল নেস্টরদের মতো দুরন্ত ফুটবলারকে? রহস্য ফাঁস করে নিউ ইয়র্ক থেকে জর্ডি ভিলা আনন্দবাজারকে বলেন, ‘‘আকবরকে (নওয়াস) সঙ্গে করে স্পেনে বসে নেস্টরদের ম্যাচ দেখেছিলাম। তার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, নেস্টর-স্যান্ড্রো-পেদ্রো মানজিদের সই করানো হবে চেন্নাই সিটিতে।’’

খেলার কুইজ

Advertisement

এই মুহূর্তে মেজর লিগ সকারের ক্লাব নিউ ইয়র্ক সিটির সহকারী প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করছেন জর্ডি। চেন্নাইয়ের ভারতসেরা হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলছেন, ‘‘আমি খুব খুশি এবং চেন্নাই সিটি এফসির এই সাফল্যের জন্য গর্বিতও। ক্লাবের সাফল্য প্রমাণ করছে ছেলেরা ঠিক পথেই এগিয়েছে। আমরা যে আইডিয়া নিয়ে এগিয়েছিলাম, তা একদম সঠিক ছিল।’’

আরও পড়ুন: দ্বিতীয়ার্ধে কেন তুলে নেওয়া হল তিন বিদেশি, কাসিমের প্রশ্নে উঠছে বিতর্ক

আরও পড়ুন: মোহনবাগান তাঁবুতে অবহেলায় ধ্বংস গোষ্ঠ পালের ট্রফি-মেডেল, কাঁদতে কাঁদতে থানায় গেলেন ছেলে

নেস্টর-স্যান্ড্রো-মানজিদের আগে থেকেই চিনতেন জর্ডি। বলেন, ‘‘ক্যানারি আইল্যান্ডে ওরা থাকত। বার্সেলোনার স্কাউট হিসেবে যখন কাজ করেছি, তখন থেকেই ওদের কোয়ালিটি জানতাম। একটা সুযোগের অপেক্ষায় ওরা ছিল। নিজেদের প্রমাণ করার একটা মঞ্চ খুঁজছিল। চেন্নাই সিটি ওদের সেই সুযোগ দিয়েছে।’’

আই লিগের শুরু থেকেই এক্সপ্রেস গতিতে ছুটেছে চেন্নাই সিটি। দৃষ্টিনন্দন পাসিং ফুটবল খেলেছে। আক্রমণে ঝড় তুলেছে। জর্ডি আরও বলেন, ‘‘বার্সা যে পদ্ধতিতে খেলে থাকে, আমরাও সেই পদ্ধতি অনুসরণ করেছিলাম। আকবর পাসিং ফুটবলে বিশ্বাস রেখেছিল। তার ফলও পেল।’’

দেশের দক্ষিণ প্রান্তের ক্লাবের দুরন্ত জয়ের জন্য অবশ্য জর্ডি ভিলা কৃতিত্ব দিচ্ছেন সবাইকে। বলেন, ‘‘ফুটবল তো টিমগেম। স্প্যানিশ ফুটবলারদের সঙ্গে স্থানীয় ফুটবলাররাও খুবই ভাল খেলেছে। ওদেরও স্কাউট করেছিলাম আমরা। এই জয়ের পিছনে সবার অবদান রয়েছে।’’

বড় বাজেটের দল না গড়েও যে চ্যাম্পিয়ন হওয়া সম্ভব, তা দেখিয়ে দিয়েছে চেন্নাই সিটি। জর্ডি বলেন, ‘‘রোহিত রমেশের মতো মালিক থাকলে কাজটা খুব সহজ হয়ে যায়। সব সময়ে প্রেরণা জুগিয়েছেন রোহিত। কম বাজেটে দল তৈরি করেও যে চ্যাম্পিয়ন হওয়া সম্ভব সেটাই দেখিয়ে দিয়েছে চেন্নাই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement