Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২৩
Martina Navratilova

নতুন বছরে দুঃসংবাদ, জোড়া ক্যানসারে আক্রান্ত প্রাক্তন টেনিস খেলোয়াড় নাভ্রাতিলোভা

গত নভেম্বরে ঘাড়ে অস্বস্তি লক্ষ্য করেন মার্টিনা। তার পরে পরীক্ষা করাতেই ধরা পড়ে একটি টিউমার। এর পর সারা শরীরে পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, ক্যানসার ছড়িয়ে পড়েছে স্তনেও।

খেলা থেকে অবসর নেওয়ার পর টেনিস বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাজ করেন মার্টিনা।

খেলা থেকে অবসর নেওয়ার পর টেনিস বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাজ করেন মার্টিনা। ছবি: টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০২ জানুয়ারি ২০২৩ ২০:৪৬
Share: Save:

নতুন বছর পড়তে না পড়তেই খেলাধুলোয় খারাপ খবর। মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা গলা এবং স্তনের ক্যানসারে আক্রান্ত। সোমবার নিজেই সে খবর জানিয়েছেন। প্রাক্তন টেনিস তারকার আশা, দ্রুত চিকিৎসা করে সুস্থ হয়ে উঠবেন তিনি।

গত নভেম্বরে ঘাড়ে অস্বস্তি লক্ষ্য করেন মার্টিনা। তার পরে পরীক্ষা করাতেই ধরা পড়ে একটি টিউমার। এর পর সারা শরীরে পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, ক্যানসার ছড়িয়ে পড়েছে স্তনেও। ১৩ বছর আগে রেডিয়েশন থেরাপি করে স্তন ক্যানসার থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন মার্টিনা। তখন বলা হয়েছিল, আর এই রোগ ফেরার সম্ভাবনা নেই। দেখা যাচ্ছে, আবার মার্টিনার শরীরে থাবা বসিয়েছে মারণরোগ।

চিকিৎসা সম্পর্কে বলতে গিয়ে মার্টিনা বলেছেন, “এই জোড়া উপহার আমার কাছে খুবই উদ্বেগের। কিন্তু আশার কথা হল, এটা সারানো যায়। আশা করি ভাল কিছুই হবে। কয়েক দিন হয়তো কষ্ট হবে। কিন্তু যে শক্তি আমার মধ্যে রয়েছে তাই দিয়েই লড়াই করব।” মার্টিনার এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রাথমিক স্তরে ক্যানসার ধরা পড়ায় ভাবনার কিছু নেই। সম্পূর্ণ সেরে ওঠার সম্ভাবনাই বেশি।

এই মাসেই গলার ক্যানসারের চিকিৎসা শুরু করবেন মার্টিনা। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, গলায় ক্যানসার একদম প্রাথমিক স্তরে ধরা পড়লে ৯০ শতাংশ ক্ষেত্রে রোগী পাঁচ বছর বা তার বেশি বাঁচেন। তবে স্তনের ক্যানসারের চিকিৎসা কবে শুরু হবে, সে ব্যাপারে কোনও তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি। সূত্রের দাবি, গলার ক্যানসারের সঙ্গে স্তনের ক্যানসারের কোনও যোগাযোগ নেই।

খেলা থেকে অবসর নেওয়ার পর টেনিস বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাজ করেন মার্টিনা। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ধারাভাষ্য দিতে কিছু দিন পরেই মেলবোর্নের উদ্দেশে উড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আর যাওয়া হচ্ছে না তাঁর। একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ফ্লোরিডায় নিজের বাড়ি থেকেই ভিডিয়োর সাহায্যে বিশেষজ্ঞের কাজ করতে পারেন তিনি।

১৯৭৪ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত টেনিস খেলেছেন মার্টিনা। সিঙ্গলস, ডাবলস, মিক্সড ডাবলস মিলিয়ে ৫৯টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম রয়েছে। যে কোনও মহিলা খেলোয়াড়ের থেকে বেশি উইম্বলডন (৯) জিতেছেন তিনি। মার্গারেট কোর্ট এবং ডোরিস হার্টের পাশাপাশি মার্টিনাই একমাত্র মহিলা টেনিস খেলোয়াড় যাঁর সিঙ্গলস, ডাবলস এবং মিক্সড ডাবলসে কেরিয়ার গ্র্যান্ড স্ল্যাম রয়েছে। গত বছর উইম্বলডনের শততম বর্ষে তাঁকে সংবর্ধিত করার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু প্রতিযোগিতার আগেই করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তা সম্ভব হয়নি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE