Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সেমিফাইনালে মেরির সঙ্গে লভলিনা

নিজস্ব প্রতিবেদন
২১ নভেম্বর ২০১৮ ০৩:৩৬
 দুরন্ত: শেষ চারে ওঠার পরে মেরি ও লভলিনা। মঙ্গলবার। পিটিআই

দুরন্ত: শেষ চারে ওঠার পরে মেরি ও লভলিনা। মঙ্গলবার। পিটিআই

বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে নিজের সপ্তম পদক নিশ্চিত করলেন ভারতের কিংবদন্তি বক্সার মেরি কম। এর আগে তিনি পাঁচ বার সোনা জেতার পাশাপাশি এক বার রুপো জিতেছেন। একই সঙ্গে পদক পাচ্ছেনই ভারতের আর এক বক্সার লভলিনা বরগোঁহাই। মেরি ও লভলিনা, দু’জনই মঙ্গলবার জিতে সেমিফাইনালে উঠলেন।

তিন সন্তানের জননী মেরি কম লাইট ফ্লাইওয়েটের ৪৮ কেজি বিভাগে ৫-০ ফলে হারালেন চিনের য়ু ইউকে। একুশ বছর বয়সি অসমের বক্সার লভলিনা একই রকম ভাবে ৬৯ কেজি বিভাগে ৫-০ ফলেই হারিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার কে স্কটকে। প্রসঙ্গত লভলিনা এ’বছরের শুরুতে প্রথম ইন্ডিয়ান ওপেন বক্সিংয়ে সোনা জিতেছিলেন।

মেরি কম শেষবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে সোনা জেতেন ২০১০ সালে। এখন তাঁর বয়স ৩৫। এই বয়সেও স্বপ্ন দেখা ছাড়েননি তিনি। মঙ্গলবার চিনা বক্সারকে হারিয়ে মেরি বলেছেন, ‘‘দারুণ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে আমাদের। চিনের অনেক নতুন বক্সার উঠে আসছে। অতীতে চিনের অনেকের সঙ্গেই লড়েছি। কিন্তু আজ যার বিরুদ্ধে লড়লাম তার সঙ্গে আগে কখনও খেলিনি।’’ যোগ করেছেন, ‘‘নিজের ছন্দ একবার পেয়ে যেতেই ঠিক করে ফেলেছিলাম কী ভাবে ওকে বিপদে ফেলব। তারপর থেকে আর কোনও সমস্যাই হয়নি।’’

Advertisement

অলিম্পিক্সে ব্রোঞ্জ পদকজয়ী মেরি কম সেমিফাইনালে লড়বেন উত্তর কোরিয়ার কিম হিয়াং মি-র বিরুদ্ধে। গত বছর এশীয় চ্যাম্পিয়নশিপে এই কিম হিয়াংকে কিন্তু মেরি কম হারিয়েছিলেন। তিনি বলেছেন, ‘‘ওর বিরুদ্ধে জেতার ব্যাপারে আমি আশাবাদী। তবে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসীও নই।’’

মঙ্গলবার মেরি কম খুবই সহজে জিতেছেন। পাঁচ জন বিচারকই মেরির পক্ষে রায় দেন। এর আগে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে মেরি আর আয়ার্ল্যান্ডের কেটি টেলর সমান সংখ্যক পদক জিতেছিলেন। তবে মঙ্গলবার জিতে তাঁর আরও একটি পদক নিশ্চিত হওয়ায় তিনি টেলরকে এ বার ছাপিয়ে যাবেন।

লভলিনাও দাপট নিয়ে জিতেছেন। তাঁর অস্ট্রেলীয় প্রতিপক্ষ যথেষ্ট ভাল বক্সার। ২০১৬ সালে তিনি ৮১ কেজি বিভাগে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে রুপো জিতেছিলেন। সঙ্গে গোল্ড কোস্টে কমনওয়েলথ গেমসে তিনি ব্রোঞ্জও জেতেন। এত কঠিন এক প্রতিপক্ষকে হারিয়ে দারুণ খুশি লভলিনা বলেছেন, ‘‘ও দারুণ বক্সার। তবু ওকে সারাক্ষণই ঠিকঠাক সামলাতে পেরেছি। আর বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতব সত্যিই ভাবতে পারছি না। তবে আমার লক্ষ্য সোনা জেতা। অন্য কোনও পদক আমাকে সেই তৃপ্তি দেবে না।’’ সেমিফাইনালে লভলিনার সামনে চিনা তাইপেইয়ের চেন নিয়েন চিন। যাঁর সম্পর্কে অসমের নতুন বক্সিং প্রতিভা বলেছেন, ‘‘আমি ওর বিরুদ্ধে এর আগে এক বারই লড়েছি। সে বার হেরেছিলাম। তখন খুবই অনভিজ্ঞ ছিলাম। তাই এ বার ওকে হারানোর ব্যাপারে আমি খুবই আত্মবিশ্বাসী।’’

বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে এ দিন ভারতের জন্য খারাপ খবরও আছে। কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে বিদায় নিয়েছেন মনীষা মউন (৫৪ কেজি) ও ভাগ্যবতী কাচারি (৮১ কেজি বিবাগ)। মনীষাকে ৪-১ ফলে হারিয়েছেন ৫৪ কেজি বিভাগে শীর্ষ বাছাই বুলগেরিয়ার স্তয়কা পেত্রভা। পরাজিত মনীষা বলেছেন, ‘‘এটা আমার প্রথম বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ। এখান থেকে অনেক কিছুই শিখলাম। যা আগামী দিনে নিশ্চয়ই কাজে আসবে।’’ ভাগ্যবতী ভাল লড়াই করে ২-৩ ফলে হেরেছেন কলম্বিয়ার জেসিকা সিনসিসতেরার কাছে।

আরও পড়ুন

Advertisement