Advertisement
১৮ জুন ২০২৪
Sports News

চার্চিলের কাছে হারের পর ঘরের মাঠে ড্র মোহনবাগানের

মঙ্গলবারই ঘরের মাঠে চার্চিলের কাছে হারে মুখ দেখতে হয়েছিল ইস্টবেঙ্গলকে। বুধবার হারতে না হলেও কোনও রকমে ড্র করতে সক্ষম হল আর এক কলকাতার দল। রবীন্দ্র সরোবর স্টেডিয়ামে মুম্বই এফসির কাছে ২-২ গোলে আটকে গেল সঞ্জয় সেন অ্যান্ড ব্রিগেড।

-ফাইল চিত্র।

-ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০৮ মার্চ ২০১৭ ২০:৩৭
Share: Save:

মোহনবাগান ২ (প্রীতম কোটাল, বলবন্ত সিংহ)

মুম্বই এফসি ২ (থই সিংহ, ভিক্টোরিনো ফার্নান্ডেজ)

মঙ্গলবারই ঘরের মাঠে চার্চিলের কাছে হারে মুখ দেখতে হয়েছিল ইস্টবেঙ্গলকে। বুধবার হারতে না হলেও কোনও রকমে ড্র করতে সক্ষম হল আর এক কলকাতার দল। রবীন্দ্র সরোবর স্টেডিয়ামে মুম্বই এফসির কাছে ২-২ গোলে আটকে গেল সঞ্জয় সেন অ্যান্ড ব্রিগেড। বুধবার শুরুটা করেছিল মোহনবাগানই। ম্যাচ শুরুর ১২ মিনিটের মধ্যেই গোল করে মোহনবাগানকে এগিয়ে দিয়েছিল দলের রাইটব্যাক প্রীতম কোটাল। কর্নার পেয়েছিল মোহনবাগান। কর্নার নিয়েছিলেন সনি নর্ডি। দলের ফরোয়ার্ডদের আটকাতে গিয়ে বক্সে উঠে আসা প্রীতমকে ফাঁকায় ছেড়ে রেখেছিল মুম্বই এফসির রক্ষণ। সেই সুযোগেই সনির উড়ে আসা কর্নার হেডে গোলে পাঠান প্রীতম। তবে খুব অল্প সময়ের জন্য সেই এগিয়ে যাওয়া উপভোগ করতে পেরেছিল মোহনবাগান। কারণ গোল হজমের আট মিনিটের মধ্যেই সমতায় ফেরে সন্তোষ কাশ্যপের দল।

আরও খবর: ঘরের মাঠে চার্চিলের কাছে হার ইস্টবেঙ্গলের

শুধু ফেরে না, পর পর গোলে হোম টিমের থেকে ২-১এ এগিয়ে যায় অ্যাওয়ে টিম। ২০ মিনিটে থই সিংহর গোলের পর ২২ মিনিটে আবার ভিক্টোরিনো ফার্নান্ডেজ। শুধু তাই নয় প্রথমার্ধেই ৩-১ করে ফেলতে পারত মুম্বই এফসি। কিন্তু সহজ সুযোগ নষ্ট করে সেই ব্যবধান আর বাড়াতে পারেনি। বরং শেষ মুহূর্তে ভাগ্যক্রমে সমতায় ফেরে মোহনবাগান। মোহনবাগান প্রথমার্ধ শেষ করেছিল ১-২ গোলে পিছিয়ে থেকেই। তার মধ্যেই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন দলের বিশ্বস্ত গোলকিপার দেবজিৎ মজুমদার। তাঁর জায়গায় শিলটন পালকে নামাতে বাধ্য হন কোচ সঞ্জয় সেন। যদিও আর গোল হজম করতে হয়নি মোহনবাগান।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু শেহনাজ সিংহকে তুলে প্রবীর দাসকে নামান কোচ। এর পর মুম্বই এফসির ছিল ঘর বাঁচানোর লড়াই। মোহনবাগান একাধিকবার আক্রমণে ওঠে। বেশ কিছু ভাল মুভ দেখা যায় সনি নর্ডির পক্ষ থেকে। বলবন্তের শট পোস্টে লাগে ৭৫ মিনিটে। সৌভিক চক্রবর্তীকে তুলে বিক্রমজিৎ সিংহ নামান সঞ্জয় সেন। এর পরও সহজ সুযোগ নষ্ট করেন বলবন্ত। একাধিক সুযোগ নষ্ট করেও শেষ কাজটি করে যান সেই বলবন্ত সিংহই। ৮৯ মিনিটে মোহনবাগানকে এক পয়েন্ট এনে দেন বলবন্ত সিংহ। অতিরিক্ত সময়েও সুযোগ এসে গিয়েছিল কাটসুমির সামনে। এদিন যে ভাবে দু’পক্ষই গোলের সুযোগ নষ্ট করল তাতে যে কেউ জিতেই মাঠ ছাড়তে পারত। ড্র করে ১১ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানেই থেকে গেল মোহনবাগান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Mohun Bagan Mumbai FC I League 2017
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE