×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

পাকিস্তানকে দুরমুশ করে এক নম্বর টেস্ট দল নিউজ়িল্যান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৭ জানুয়ারি ২০২১ ০৫:০০
দাপট: ২-০ ফলে সিরিজ জিতে ট্রফি নিয়ে কেন উইলিয়ামসনরা। এপি

দাপট: ২-০ ফলে সিরিজ জিতে ট্রফি নিয়ে কেন উইলিয়ামসনরা। এপি

প্রত্যাশিত ভাবেই দ্বিতীয় টেস্টে পাকিস্তানকে এক ইনিংস এবং ১৭৬ রানে হারাল নিউজ়িল্যান্ড। এবং তারই সঙ্গে এই প্রথম বার আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিং তালিকার শীর্ষে উঠে এল কেন উইলিয়ামসনের দল। বুধবার পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ১৮৬ রানে।

মঙ্গলবারই ম্যাচের ভবিষ্যৎ স্থির হয়ে গিয়েছিল। কাইল জেমিসন(৬-৪৮)এবং ট্রেন্ট বোল্টের (৩-৪৩) কাছে আত্মসমর্পমণ করে পাক দল। সিরিজের সেরা উইলিয়ামসন বলেছেন, “এই বছরের শুরুটা আমাদের সকলের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল হওয়াটা আমাদের কাছে খুবই গর্বের বিষয়। তবে এই সাফল্য দলীয় সংহতির। দলে কাইল জেমিসনের মতো বোলার থাকলে জয়ের কাজ অনেক সহজ হয়ে যায়। দুই ইনিংস মিলিয়ে ও ১১ উইকেট পেয়েছে। এটা আমাদের কাছে দারুণ এক প্রাপ্তি।” জেমিসন বলেছেন, “দেশের মাঠে এই সিরিজ আমা্দের কাছেও খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সকলেই জানতাম, এই টেস্ট জিততে পারলে আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর জায়গাটা আমরা দখল করে নেব। তাই সকলেই নিজের সেরা ক্রিকেট উজাড় করে দিয়েছে।” নিজের বোলিং নিয়ে তিনি বলেন, “কোনওরকম পরীক্ষার মধ্যে যেতে চাইনি। পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের দুর্বলতা নজরে রেখে সেই মতো বোলিং করেছি। তাতেই এসেছে এই সাফল্য।”

দলের বিপর্যয়ের সমস্ত দায়ভার নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন অধিনায়ক মহম্মদ রিজ়ওয়ান। তিনি বলেছেন, “অধিনায়ক হিসেবে দলের সমস্ত ধরনের ব্যর্থতার দায়ভার আমারই। টেস্ট ম্যাচ জিততে হলে ২০ উইকেট তোলা দরকার এং তার জন্য ফিল্ডিং ভাল হওয়া খুবই প্রয়োজনীয়। তা মোটেও ভাল ছিল না এই সিরিজে। তবে আমাদের লড়াই করার ব্যাপারে কোনও ঘাটতি ছিল না। শেষ পর্যন্ত সকলেই নিজের সেরা ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করেছে। এই হার থেকে দারুণ একটা শিক্ষা পেলাম। ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে আমাদের আরও পরিশ্রম করে এই ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করতে হবে।”

Advertisement

এ দিকে, পাকিস্তান দলের বিপর্যয় দেখে প্রাক্তন তারকা শাহিদ আফ্রিদি টুইট করেছেন,‘‘প্রথম টেস্টে ভাল লড়াইয়ের পরে দ্বিতীয় টেস্টে আমাদের পারফরম্যান্স দেখে খারাপ লাগল। টেস্টে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে হলে কিন্তু ক্রিকেটারদের প্রতিভা আর সাহসকে এ বার কাজে লাগাতেই হবে।’’ দুই প্রাক্তন পেসার শোয়েব আখতার এবং আকিব জাভেদ প্রশ্ন তোলেন মিসবা-উল-হক এবং ওয়াকার ইউনিসের ভূমিকা নিয়েও।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: পাকিস্তান: ২৯৭ এবং ১৮৬ (জেমিসন ৬-৪৮, বোল্ট ৩-৪৩)। নিউজ়িল্যান্ড : ৬৫৯-৬ ডিক্লেয়ার। নিউজ়িল্যান্ড জয়ী এক ইনিংস এবং ১৭৬ রানে।

Advertisement