×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

বিরাটহীন ভারতে আশা নেই ভনের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১১ নভেম্বর ২০২০ ০৪:২৫
বিরাট কোহলি। ফাইল চিত্র।

বিরাট কোহলি। ফাইল চিত্র।

সন্তানসম্ভবা স্ত্রী অনুষ্কার পাশে থাকতে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম টেস্টের পরেই ফিরে আসবেন বিরাট কোহালি। ভারতীয় অধিনায়ক বাকি তিনটি টেস্টে থাকবেন না। ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক মাইকেল ভন মনে করেন, বিরাট না থাকলে অস্ট্রেলিয়াই এগিয়ে থাকবে আসন্ন টেস্ট সিরিজে।

৩২ বছর বয়সি বিরাটকে অ্যাডিলেডে গোলাপি বলে দিনরাতের প্রথম টেস্টের পরেই ফিরে আসার অনুমতি দিয়েছে বোর্ড। যে টেস্ট শুরু হবে ১৭ ডিসেম্বর থেকে। বিরাটের মতো তারকা ব্যাটসম্যান না থাকায় অস্ট্রেলিয়ার বর্ডার-গাওস্কর ট্রফি জেতার সুযোগ আরও বাড়বে বলে মনে করছেন অনেকে। তাঁদের মধ্যে ভনও আছেন। ‘‘বিরাট কোহালি তিনটি টেস্টে অস্ট্রেলিয়ায় নেই। সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে ওর এই সিদ্ধান্তটা একেবারে ঠিক। তবে এর অর্থ হল, অস্ট্রেলিয়া খুব সহজেই সিরিজটা জিতবে,’’ টুইট করেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই করোনা অতিমারির বড়সড় প্রভাব পড়ার পরে এ রকম একটা সিরিজে বিরাটের না থাকাটা সম্প্রচারকারীদের কাছেও ধাক্কা বলেও মনে করা হচ্ছে।

চলতি সপ্তাহেই অস্ট্রেলিয়ায় রওনা হওয়ার কথা ভারতীয় দলের। সেখানে পৌঁছনোর পরে সিডনিতে দু’সপ্তাহ নিভৃতবাসে থাকতে হবে বিরাটদের। এর পরে প্রথম ওয়ান ডে শুরু হবে ২৭ নভেম্বর। বিরাট অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরে আসার আগে তিনটি ওয়ান ডে, তিনটি টি-টোয়েন্টি এবং অ্যাডিলেডে দিন-রাতের টেস্টে নেতৃত্ব দেবেন।

Advertisement

দ্বিতীয় টেস্ট ২৬ ডিসেম্বর শুরু হবে মেলবোর্নে। এর পরে সিডনিতে ৭ জানুয়ারি থেকে তৃতীয় টেস্ট ও চতুর্থ টেস্ট ১৫ জানুয়ারি থেকে ব্রিসবেনে। বিশেষ জৈব সুরক্ষিত বলয়ে সিরিজ হবে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন চিফ এগজিকিউটিভ নিক হকলি অবশ্য বিরাটের সিদ্ধান্ত নিয়ে বলেছেন, ‘‘আমরা খুব খুশি বিরাট তিনটি ওয়ান ডে, তিনটি টি-টোয়েন্টি এবং ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম বার দিন-রাতের টেস্টে থাকবে। একই সঙ্গে ওর সন্তানের জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকার বিষয়টাকেও আমাদের সম্মান জানাতে হবে।’’

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, প্রথম টেস্টে অ্যাডিলেডে প্রতি দিন ২৭ হাজার দর্শক থাকতে পারবেন মাঠে। বক্সিং ডে টেস্টে মেলবোর্নে ২৫ হাজার দর্শক এবং চতুর্থ টেস্টে ব্রিসবেনে ৩০ হাজার দর্শক থাকতে পারবেন। তৃতীয় টেস্টে সিডনিতে ২৩ হাজার দর্শক থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে দেশের করোনা পরিস্থিতি যদি আরও নিয়ন্ত্রণে আসে তা হলে স্টেডিয়ামে এর চেয়েও বেশি দর্শকদের প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হতে পারে। সে ব্যাপারে আশাবাদী নিক হকলি। অবশ্য এখনও সেটা নিশ্চিত নয়, বলে জানানো হয়েছে।

Advertisement