Advertisement
২৫ জুলাই ২০২৪
Wrestling Federation of India

অদ্ভুত সিদ্ধান্ত কুস্তিকর্তাদের, সেরা কুস্তিগিরদের অলিম্পিক্সে যাওয়া অনিশ্চিত!

কুস্তি ফেডারেশন জানিয়েছে, যে কুস্তিগিরেরা কোটা নিয়ে এসেছেন, তাঁরাই প্যারিসে যাবেন। ফলে বিভিন্ন বিভাগে এই মুহূর্তে দেশের সেরা কুস্তিগিরেরা অলিম্পিক্সে নামার সুযোগ না-ও পেতে পারেন।

Picture of Wrestling

— প্রতীকী চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ মে ২০২৪ ১৮:১৪
Share: Save:

অলিম্পিক্সে হকির পর কুস্তিতে সব থেকে বেশি পদক জিতেছে ভারত। সব মিলিয়ে এখনও সাতটি পদক জিতেছেন কুস্তিগিরেরা। ২০০৮ বেজিং অলিম্পিক্স থেকে প্রতি বার কোনও না কোনও কুস্তিগির পদক দিয়েছেন দেশকে। ২০১২ এবং ২০২০ অলিম্পিক্সে কুস্তি থেকে এসেছে একাধিক পদক। ধারাবাহিক সাফল্য সত্ত্বেও আগামী প্যারিস অলিম্পিক্সে কুস্তিতে পদক জয় নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে সর্বভারতীয় কুস্তি ফেডারেশনের এক অদ্ভুত সিদ্ধান্তের কারণে।

অলিম্পিক্সের জন্য আর কোনও ট্রায়াল হবে না। সর্বভারতীয় কুস্তি ফেডারেশন জানিয়েছে, যে কুস্তিগিরেরা কোটা নিয়ে এসেছেন দেশের জন্য তাঁরাই প্যারিসে যাবেন। এর ফলে বিভিন্ন বিভাগে এই মুহূর্তে দেশের সেরা কুস্তিগিরেরা অলিম্পিক্সে নামার সুযোগ নাও পেতে পারেন। যিনি এক বছর বা ছ’মাস আগে কোটা জিতেছেন তিনি ফর্মে না থাকলেও অলিম্পিক্সে যাবেন।

ফেডারেশনের এই সিদ্ধান্তের ফলে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে মহিলাদের ৫৩ কেজি বিভাগ নিয়ে। এই বিভাগে কোটা জেতার পর গত ১৮ মাসে কোনও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেননি অন্তিম পাঙ্ঘাল। চোটের জন্য কুস্তির রিং থেকে দূরে রয়েছেন তিনি। তাঁর ফিটনেস নিয়ে সংশয় রয়েছে। অলিম্পিক্সের জন্য নাম পাঠানোর শেষ দিন ৮ জুলাই। ট্রায়াল না হওয়ায় অন্তিমের ফিটনেস কেমন রয়েছে, তা জানার কোনও সুযোগ নেই। অথচ ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনিই যাবেন প্যারিসে।

এখনও পর্যন্ত কুস্তিতে পুরুষদের একটি বিভাগে এবং মহিলাদের পাঁচটি বিভাগে অংশগ্রহণ নিশ্চিত ভারতের। পুরুষদের ৫৭ কেজি বিভাগে আমন শেহরাওয়াত যাবেন অলিম্পিক্সে। মহিলাদের ৫০ কেজিতে বিনেশ ফোগাট, ৫৭ কেজিতে অনশু মালিক, ৬৮ কেজিতে নিশা দাহিয়া এবং ৭৬ কেজিতে রীতিকা হুডা দেশের জন্য কোটা জিতেছেন। তাঁরাই প্যারিসের বিমানে উঠবেন।

নিয়ম অনুযায়ী যে কুস্তিগির দেশের জন্য কোটা নিয়ে আসেন, অলিম্পিক্সে তাঁকেই পাঠাতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধকতা নেই। অলিম্পিক্সের সময় সেই বিভাগে দেশের সেরা কুস্তিগিরকে পাঠানোর সুযোগ থাকে। সে সেরা ফর্মে আছেন, তা বোঝার জন্যই নাম পাঠানোর আগে হয় চূড়ান্ত ট্রায়াল। কিন্তু সর্বভারতীয় কুস্তি ফেডারেশন সর্বসম্মত ভাবে ট্রায়াল না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফেডারেশনের সভাপতি সঞ্জয় সিংহ বলেছেন, ‘‘জাতীয় দলের দুই কোচের সঙ্গে আলোচনা করার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ট্রায়ালে খেলোয়াড়দের চোট পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কারণ সকলেই নিজেদের সেরাটা দিয়ে জেতার চেষ্টা করে। অলিম্পিক্সের আগে চোটের সম্ভাবনা এড়াতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তা ছাড়া যাঁরা কোটা জিতেছেন, তাঁরা যোগ্য বলেই জিতেছেন।’’

আগামী ৬ থেকে ৯ জুন হাঙ্গেরির বুডাপেস্টে হবে র‌্যাঙ্কিং সিরিজ়। সেখানে পুরুষ এবং মহিলা বিভাগে আরও একটি করে কোটা জেতার সুযোগ রয়েছে ভারতের। সেই হিসাব ধরলে প্যারিসে সর্বোচ্চ আট জন ভারতীয় কুস্তিগির অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

কোটা জিতে আনা কুস্তিগিরেরা অনুশীলনে বা কোনও ভাবে অলিম্পিক্সের আগে চোট পেলে তাঁর জায়গায় কে যাবেন? এক মাত্র তেমন ক্ষেত্রেই বিকল্প কাউকে পাঠানোর কথা ভাববেন ফেডারেশন কর্তারা। উল্লেখ্য, সর্বভারতীয় কুস্তি সংস্থার প্রাক্তন সভাপতি ব্রিজভূষণ শরণ সিংহের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত সঞ্জয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE