Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ম্যাচ রেফারির রায়, পুণে পিচ ছিল নিম্নমানের

নিজস্ব প্রতিবেদন
০১ মার্চ ২০১৭ ০৪:০৫
বিতর্কে: পুণের এই পিচ নিয়েই রিপোর্ট ম্যাচ রেফারির।-ফাইল চিত্র

বিতর্কে: পুণের এই পিচ নিয়েই রিপোর্ট ম্যাচ রেফারির।-ফাইল চিত্র

শশাঙ্ক মনোহরের আইসিসি-র সঙ্গে এই মুহূর্তে ভারতীয় বোর্ডের কোনও সখ্যতা হওয়ার কথা নয়। হচ্ছেও না। প্রশাসনিক যুদ্ধ চলার পাশাপাশি এ বার পুণের পিচকে নিম্নমানের বলে চিহ্নিত করল মনোহরের আইসিসি।

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট পুণেতে তিন দিনে শেষ হয়ে যায়। যদিও ঘূর্ণি তৈরির সিদ্ধান্ত বুমেরাং হয় ভারতের জন্য। বিরাট কোহালিরা টেস্টটি হেরে যায়। ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড তাঁর রিপোর্টে পুণের পিচ নিয়ে রেটিং দেন ‘পুওর’। টেস্টের দ্বিতীয় ওভারেই বল করতে এসেছিলেন অশ্বিন এবং প্রথম ঘণ্টা থেকেই বল ঘুরেছে।

ম্যাচ রেফারির রেটিং নিয়ে ভারতীয় বোর্ড তাদের ব্যাখা জানাতে পারে আইসিসি-র কাছে। সেই ব্যাখ্যা খতিয়ে দেখে পুণের পিচ নিয়ে চূড়ান্ত রায় দেওয়া হবে। ঘটনা হচ্ছে, ভারতে মনোহরের রাজ্য ক্রিকেট সংস্থা নাগপুরও এর আগে পিচ নিয়ে ‘পুওর’ রেটিং পেয়েছে। তখন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘূর্ণি বানানোর পক্ষেই সওয়াল করেছিলেন মনোহর। এ বার আইসিসি প্রধান হিসেবে যে তা করবেন না, বলে দেওয়া যায়।

Advertisement

পুণে পিচ আইসিসি-র রক্তচক্ষুর আওতায় পড়ার পাশাপাশি ভারতীয় বোর্ডের চিফ কিউরেটর দলজিৎ সিংহও বড় সমস্যায়। শোনা যাচ্ছে, দলজিৎকে সরিয়ে দেওয়ার একটা ভাবনা নাকি শুরু হয়েছে। বোর্ডের দায়িত্বে থাকা প্রশাসনিক প্যানেল দলজিতের কাজে আদৌ খুশি নয়। বিসিসিআইয়ের সঙ্গে জড়িত থাকা এর কর্তা বলেছেন, ‘‘টিম ম্যানেজমেন্ট চাইলেও দলজিতের এই রকম পিচ বানানো উচিত হয়নি। ওর উচিত ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের অনুরোধ না শোনা।’’



আরও পড়ুন:

সূর্যাস্তের শোভা দেখে নতুন সূর্যোদয়ের স্বপ্ন

পুণের পিচ নিয়ে নাটকের মধ্যে চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে বেঙ্গালুরুর পিচ নিয়েও। পিচ কিউরেটর কে শ্রীরাম এর আগে বলেছিলেন, ‘‘স্পোর্টিং উইকেটই হবে এখানে। শক্ত, বাউন্সি পিচ দেওয়া হবে।’’ দ্বিতীয় টেস্ট শুরু শনিবার থেকে। তার আগে যা ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে, তাতে চিন্নাস্বামীতে স্লো টার্নার হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। পিচ নিয়ে এ রকম নাটক শুরু হওয়ার পরে মাঠকর্মীরা আর সে ভাবে মুখ খুলছেন না। তবে যতটুকু জানা গিয়েছে, বেঙ্গালুরুর পিচে জল দেওয়ার কাজ হচ্ছে। পুণের মতো অত শুকনো থাকবে না পিচ। পরের দিকে বল ঘুরতে পারে।

দ্বিতীয় টেস্ট নিয়ে এর আগে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ বলেছিলেন, ‘‘উইকেট কী রকম হবে, সেটা আমাদের মাথা ঘামানোর বিষয় নয়। যাঁরা পিচ তৈরির দায়িত্বে আছেন, তাঁরা বুঝবেন। পুণেতে এমন উইকেট তৈরি করল, যেটা আমাদের সুবিধে করে দিল। এ বার আমরা দেখতে চাই বেঙ্গালুরুতে কী রকম উইকেট হচ্ছে।’’

অস্ট্রেলিয়া শিবির আত্মবিশ্বাসী, পিচ যে রকমই হোক না কেন, তাদের বোলাররা ভারতকে পাল্টা চাপে ফেলতে তৈরি।

আরও পড়ুন

Advertisement