Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Sachin Tendulkar: প্যারালিম্পিক্সের জন্য সমর্থনের আহ্বান সচিনের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৪ অগস্ট ২০২১ ০৬:৫৩
আশাবাদী: ভারতীয় দলকে উৎসাহ দিচ্ছেন সচিন। ফাইল চিত্র

আশাবাদী: ভারতীয় দলকে উৎসাহ দিচ্ছেন সচিন। ফাইল চিত্র

টোকিয়োয় মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে প্যারালিম্পিক্স। তার আগে ৫৪ জন প্যারা-অ্যাথলিটকে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠালেন কিংবদন্তি সচিন তেন্ডুলকর। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মনে করেন, বিশেষ ভাবে সক্ষম অ্যাথলিট হিসেবে দেখা উচিত নয় এই প্রতিযোগীদের। মূল স্তরের অ্যাথলিট ও ক্রিকেটারদের মতোই সম্মান জানানো উচিত তাঁদের।

সচিনের বার্তা, ‘‘প্যারালিম্পিক্স শুরু হতে চলেছে টোকিয়োয়। চাইব আমার মতোই ভারতের ৫৪ জন অ্যাথলিটকে আপনারাও সমর্থন করুন।’’ যোগ করেছেন, ‘‘সব সময়ই মনে করেছি, বিশেষ ভাবে সক্ষম অ্যাথলিট হিসেবে এদের দেখা উচিত নয়। বরং বলা যেতে পারে, তাঁদের মধ্যে অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে। প্রত্যেকেই নিজেদের জীবনে তারকা। প্রত্যেকের কাহিনি সকলকে অনুপ্রাণিত করে। নিষ্ঠা এবং মনের জোর থাকলে কত দূর যাওয়া সম্ভব, তা ওঁদের দেখেই আন্দাজ করা যায়।’’

এখানেই না থেমে সচিন লিখেছেন, ‘‘বরাবরই বলেছি, অলিম্পিক্স অ্যাথলিট এবং ক্রিকেটারেরা আমাদের সমাজে যে রকম সম্মান পান, যতটা সমর্থন পান, ঠিক একই রকম সম্মান পাওয়ার যোগ্য ভারতের এই ৫৪ জন প্রতিযোগী। সেই সম্মান দেখাতে পারলেই আমাদের সমাজে পরিবর্তন আসবে।’’

Advertisement

সচিন মনে করেন, ৫৪ জনের পক্ষেই পদক জেতা সম্ভব নয়। তবে প্রত্যেকের চেষ্টাকে সম্মান জানানো উচিত সমর্থকদের। তাঁর ব্যাখ্যা, ‘‘কেউ পদক না পেলে তাঁর প্রতি সম্মান যেন আমাদের কমে না যায়। ৫৪ জনের প্রত্যেকের পক্ষে তো পদক জেতা সম্ভব নয়। কিন্তু মনে রাখতে হবে অনেক লড়াই করে এই জায়গায় পৌঁছনো সম্ভব। সেটা যেন আমরা ভুলে না যাই।’’

গত বার রিয়ো-তে চারটি পদক জিতেছিল ভারত। এ বার সেই সংখ্যা বাড়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তাই সচিনের বার্তা, ‘‘শুনেছি এ বার ১০টি পদক জেতার সম্ভাবনা রয়েছে আমাদের। গত বার চারটি পদক পেয়েছিলাম। এ বার যদি সেই সংখ্যা আরও বাড়ে, তা হলে তার চেয়ে সুখের অনুভূতি আর কিছু হতে পারে না। আমি নিশ্চিত, এ বার সমর্থকেরাও প্যারালিম্পিক্সে নজর রাখবেন। গলা ফাটাবেন আমাদের অ্যাথলিটদের জন্য।’’

শেষে সচিন লিখেছেন, ‘‘অলিম্পিক্সের মতোই উত্তেজনা এবং উৎসাহ নিয়ে আমি প্যারালিম্পিক্সে নজর রাখব। কারণ, এটা কোনও অংশেই অলিম্পিক্সের চেয়ে কম হতে পারে না। আমাদের সরকার ও বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থাও প্যারা-অ্যাথলিটদের পাশে দাঁড়াচ্ছে। যা নিশ্চয়ই তাঁদের মনোবল বাড়াবে। আমি চাই, আপনারাও ওঁদের পাশে দাঁড়ান। নিয়মিত চোখ রাখুন প্যারালিম্পিক্সে। ওঁদের সাফল্যে সমান ভাবে উৎসাহ দেখান।’’

আরও পড়ুন

Advertisement