Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Sania Mirza Shoaib Malik

সানিয়াকে ‘তালাক’ দেননি শোয়েব, ‘খুলা’ মতে বিচ্ছেদ হয়েছে দু’জনের, ইসলাম আইনে দুইয়ের বিস্তর তফাত

শরিয়ত আইনে নারীদের অধিকার সুরক্ষিত রাখতে একাধিক নিয়ম রয়েছে। শোয়েবের ব্যাভিচার সহ্য করতে না পেরে, তেমনই একটি আইনের সাহায্য নিয়েছেন সানিয়া।

picture of Shoaib Malik and Sania Mirza

শোয়েব মালিক এবং সানিয়া মির্জ়া। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৬ জানুয়ারি ২০২৪ ০৯:০৩
Share: Save:

সানিয়া মির্জ়া-শোয়েব মালিকের বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে দীর্ঘ জল্পনার অবসান হয়েছে গত শনিবার। পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়কের তৃতীয় বিয়ের খবর জানাজানি হওয়ার পরে। সানিয়ার বাবা ইমরান মির্জ়া জানান, তাঁর মেয়ে শরিয়ত আইন মেনে শোয়েবকে ‘খুলা’ দিয়েছেন। শোয়েব অবশ্য সানিয়াকে ‘তালাক’ দেননি।

সানিয়াকে তালাক না দিয়েই পাক অভিনেত্রী সানা জাভেদকে বিয়ে করেছেন শোয়েব। পরিবারের অমতে গিয়ে তৃতীয় বিয়ে করলেও পাক অলরাউন্ডার ধর্মীয় অনুশাসনের বাইরে যাননি। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, ২০২২ সালের শেষ থেকেই আলাদা থাকতে শুরু করেন সানিয়া এবং শোয়েব। পাক ক্রিকেটারের পরিবারের সদস্যেরা তাঁদের বিচ্ছেদ চাননি। কিন্তু একাধিক নারীর প্রতি শোয়েবের আসক্তি নিয়ে ক্ষোভ বৃদ্ধি পাচ্ছিল সানিয়ার। তিনি বা পরিবারের সদস্যেরা শোয়েবকে বোঝালেও লাভ হয়নি। পরিস্থিতি অসহ্য হয়ে উঠলে ছেলে ইজ়হানকে নিয়ে আলাদা হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সানিয়া।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমের দাবি, ২০২২ সালের শেষ দিকেই শোয়েবকে ‘খুলা’ দেন সানিয়া। বেরিয়ে আসেন বৈবাহিক সম্পর্ক থেকে। শরিয়ত আইন অনুযায়ী তালাক এবং খুলা দুই পদ্ধতিতেই বিবাহবিচ্ছেদ হতে পারে। খুলা এমন একটি প্রথা, যা ব্যবহার করে মুসলিম মহিলারা তাঁদের স্বামীর থেকে একতরফা ভাবে আলাদা হতে পারেন। নারীদের অধিকার রক্ষার স্বার্থে এই প্রথা রয়েছে শরিয়ত আইনে। খারাপ ব্যবহার, যে কোনও রকম অবহেলার মতো বৈধ কারণ থাকলে মহিলারা খুলা ব্যবহার করতে পারেন। স্বামী দীর্ঘ দিন সঙ্গে না থাকলেও খুলা দিতে পারেন মহিলারা। এটি বিবাহবিচ্ছেদের প্রাথমিক ধাপ। যা আদালতের অনুমতি সাপেক্ষ। মহিলারা খুলা দিলে ‘মেহর’ (বিয়ের সময়ে যে অর্থ এক স্বামী তাঁর স্ত্রীকে দেন) ফেরত দিতে পারেন। আবার খুলার শর্ত অন্য রকমও হতে পারে। তাতে ‘মেহর’ ফেরত না দিলেও চলে। সেটা দু’তরফের বোঝাপড়ার উপর নির্ভর করে। এ ভাবে বিচ্ছেদ হলেও পুরুষেরা সন্তানদের খরচ দিতে বাধ্য থাকেন। পুত্রসন্তানের ক্ষেত্রে সাত বছর বয়স পর্যন্ত এবং কন্যা সন্তানের ক্ষেত্রে বয়ঃসন্ধি পর্যন্ত খরচ বহন করতে হয়। সন্তানেরা নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত মায়ের সঙ্গেই থাকে।

তালাকের সঙ্গে খুলার মূল পার্থক্য হচ্ছে, তালাক দিতে পারেন পুরুষেরা। খুলা ব্যবহার করেন মহিলারা। কোনও পুরুষ তাঁর স্ত্রীকে তালাক বলার সঙ্গে সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। কোনও নির্দিষ্ট পদ্ধতি বা কারণ ছাড়াই তালাক দিতে পারেন পুরুষেরা। তবে স্ত্রীকে তালাক দিলে মেহর এবং তাঁর মালিকানাধীন সম্পত্তি ফেরত দিতে হয় বাধ্যতামূলক ভাবে।

সূত্রের খবর, কোনও আর্থিক শর্ত ছাড়াই শোয়েবকে খুলা দিয়েছেন সানিয়া। শোয়েবের ব্যাভিচার মেনে নিতে পারেননি ভারতের টেনিস তারকা। ছেলে ইজ়হানকে নিয়ে আলাদা থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। প্রথম দিকে শোয়েবের পরিবারের সদস্যদের আপত্তি থাকলেও পরে তাঁরা সানিয়ার পাশেই দাঁড়ান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

talaq Tennis Cricket
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE