Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বুকির কথা চেপে গিয়ে আইসিসি-র বড় শাস্তির মুখে সাকিব?

আইসিসি-র নিয়ম অনুযায়ী, কোনও ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ, আম্পায়ার, স্কোরার যদি বুকিদের কাছ থেকে কোনও প্রস্তাব পান, তা হলে আইসিসি বা সংশ্নিষ্ট দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৯ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:১৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
শাস্তির মুখে সাকিব? ছবি— টুইটার।

শাস্তির মুখে সাকিব? ছবি— টুইটার।

Popup Close

ভারত সফরের আগে অস্বস্তি বাংলাদেশ ক্রিকেটে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল ১৮ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করতে চলেছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। এমন খবরই প্রকাশিত হয়েছে বাংলাদেশের সংবাদপত্র ‘দৈনিক সমকাল’-এ।

ওই দৈনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বছর দুয়েক আগে একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের আগে এক বুকির কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব। সেই বুকির প্রস্তাব তিনি তৎক্ষণাৎ নস্যাৎও করে দিয়েছিলেন। আইসিসি-র নিয়ম অনুযায়ী, কোনও ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ, আম্পায়ার, স্কোরার যদি বুকিদের কাছ থেকে কোনও প্রস্তাব পান, তা হলে আইসিসি বা সংশ্নিষ্ট দেশের ক্রিকেট বোর্ডের দুর্নীতি দমন কর্তাদের তা জানানো বাধ্যতামূলক। সমকাল-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বুকির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পরে সাকিব গোটা ব্যাপারটা গোপন করেন। পরবর্তী কালে আইসিসি বিষয়টি জানতে পারে। আন্তর্জাতিক জুয়াড়িদের কল রেকর্ড ট্র্যাক করে এ ব্যাপারে তথ্যও উদ্ধার করা হয়। যে বুকির কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব, সে আইসিসি-র কালো তালিকাভুক্ত।

আরও পড়ুন: গত এক দশকে জাডেজাই দেশের সেরা ফিল্ডার, বলছেন শ্রীধর

Advertisement

ওই দৈনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিষয়টি সম্পর্কে পুরোদস্তুর নিশ্চিত হওয়ার জন্যই আইসিসি-র অ্যান্টি করাপশন অ্যান্ড সিকিউরিটি ইউনিট-এর প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ ক্রিকেটের ‘পোস্টার বয়’-এর সঙ্গে আলাদা করে কথাও বলেন। ওই প্রতিবেদন বলছে, সাকিব নাকি তাঁদের কাছে নিজের ভুল স্বীকার করে নেন। বুকির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পরে বিষয়টিকে খুব একটা গুরুত্ব তিনি দেননি। বিষয়টিকে হাল্কা ভাবে নেওয়াতেই সাকিব এখন বিপন্ন বলে দাবি করছে ওই প্রতিবেদন। এ ক্ষেত্রে আইসিসি-র নিয়ম অনুযায়ী, সর্বনিম্ন ছ’ মাস আর সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হতে পারে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে। অ্যান্টি করাপশন-এর প্রতিনিধিদের জিজ্ঞাসাবাদে সাকিব সহযোগিতা করায় তাঁর উপর ১৮ মাসের শাস্তি নেমে আসতে চলেছে বলে সেই দৈনিকের খবর। আইসিসি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবে।

‘সমকাল’-এর খবর অনুযায়ী, সাকিব যে শাস্তির মুখে, সেই ব্যাপারে সবটাই জানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিসিবি-র প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন সপ্তাহখানেক আগে এক সাংবাদিক বৈঠকে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। সাকিব যে ভারত সফরে খেলতে আসবেন না, তা-ও বিসিবি প্রেসিডেন্ট এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন। ভারত সফরে নতুন অধিনায়ক নিয়ে নিজের দুশ্চিন্তার কথাও উল্লেখ করেছিলেন পাপন।

ওই সংবাদপত্রের দাবি, জাতীয় দলের সঙ্গে সাকিব যাতে অনুশীলন না করেন, সেই নির্দেশ বিসিবি-কে দিয়েছে আইসিসি। সেই কারণেই জাতীয় দলের সঙ্গে এখন অনুশীলন করছেন না বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। গোটা ঘটনায় বিসিবি সাকিবের পাশেই রয়েছে বলে ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, আইসিসি-র কাছে তিনি ক্ষমা চাইবেন। ১৮ মাসের নিষেধাজ্ঞা সাকিবের উপরে নেমে এলে, তা কমানোর প্রতিশ্রুতি নাকি পাওয়া গিয়েছে। আইসিসি-র দুর্নীতি দমন বিভাগের নিয়ম মেনে চললে শাস্তির মেয়াদ কমেও আসতে পারে।

আপাতত ভারত সফর চলে গিয়েছে পিছনের সারিতে। বাংলাদেশ ক্রিকেট উত্তাল সাকিবকে নিয়ে।

আরও পড়ুন: ভারত সফরে অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা বিসিবি প্রেসিডেন্টের, আঙুল তুললেন নিজের দলের ক্রিকেটারদের দিকেই



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement