Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়া করা কঠিন হবে, সতর্ক করলেন গাওস্কর

ইংল্যান্ডে কখনও চতুর্ত ইনিংসে ২০০ রানের বেশি তাড়া করে টেস্ট জেতেনি ভারত। সাউদাম্পটন টেস্টে সেজন্যই চতুর্থ ইনিংসে কঠিন পরীক্ষা সামনে। কাজটা

নিজস্ব প্রতিবেদন
০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১৪:৩৩
কোহালিদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন গাওস্কর।

কোহালিদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন গাওস্কর।

ইংল্যান্ডের মাঠে চতুর্থ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ১৭৪ রান তাড়া করে জিতেছে ভারত। সেটাও ১৯৭১ সালে। অর্থাত্, ইংল্যান্ডে এসে চতুর্থ ইনিংসে ভারতের রান তাড়ার রেকর্ড মোটেই উত্সাহ জোগানোর মতো নয়। আর এখানেই থাকছে আশঙ্কা। চলতি সাউদাম্পটন টেস্টে রান তাড়া করে সিরিজে সমতা ফেরাতে পারবে তো বিরাট কোহালির দল?

চতুর্থ টেস্টের তৃতীয় দিনের শেষে ২৩৩ রানে এগিয়ে ইংল্যান্ড। যদি লিড আড়াইশো ছাড়ানোর আগে রবিবার সকালে শেষ দুই উইকেট ফেলেও দেওয়া যায়, তা হলেও তো ওই রান তুলতে হবে।

এই সিরিজে অধিনায়ক কোহালিই একমাত্র ধারাবাহিক থেকেছেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে। প্রথম ইনিংসে দুরন্ত শতরান করা চেতেশ্বর পূজারাকেও ভরসা করা যেতে পারে। কিন্তু, দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল ও শিখর ধওয়ন বড় রান পাননি। অজিঙ্ক রাহানেও নির্ভরযোগ্য হয়ে ওঠেননি। লোয়ার মিডল অর্ডারে ঋষভ পন্থ, হার্দিক পাণ্ড্য, রবিচন্দ্রন অশ্বিনরা প্রথম ইনিংসে চূড়ান্ত ব্যর্থ। এই অবস্থায় রান তাড়া সহজ হবে না বলেই মনে করেছ ক্রিকেটমহল।

Advertisement

আরও পড়ুন: স্বপ্নার জন্য বিশেষ জুতো, খরচ দেবে চেন্নাইয়ের এক কোম্পানি

আরও পড়ুন: ডার্বির লড়াইয়ে আজ জিতবে কে? লাল-হলুদ না সবুজ-মেরুন!

কিংবদন্তি ওপেনার সুনীল গাওস্করও মনে করছেন চতুর্থ ইনিংসে ব্যাটিং সহজ হবে না। নিজের কলামে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক বলেছেন, “ভারত কখনওই ১৫০-২০০ রানের বেশি তাড়া করতে চায়নি। কারণ এখানে চতুর্থ ইনিংসে ব্যাটিং কঠিন হতে চলেছে।” ইংল্যান্ডের অফস্পিনার মইন আলি প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন। গাওস্করের মতে, মইনের পাওয়া বেশ কিছু উইকেট ছিল জঘন্য ব্যাটিংয়ের কারণে। মইন ফের বিধ্বংসী হয়ে উঠতে পারেন বলে মনে করছে ক্রিকেটমহল।

চলতি সিরিজের প্রথম টেস্টে এজবাস্টনে চতুর্থ ইনিংসে ১৯৪ রান তাড়া করতে পারেননি বিরাটরা। ভারত থেমে গিয়েছিল ১৬২ রানে। ৩১ রানে জিতেছিল জো রুটের দল। এ বার তার চেয়ে বেশি রান তাড়া করতে হবে। খেলতে হবে মইনকেও। কাজটা তাই রীতিমতো কঠিন। কোহলিরা পারলে আনবেন স্মরণীয় জয়। না পারলে সিরিজে এখানেই ৩-১ করে ফেলবে ইংল্যান্ড। শেষ টেস্ট হয়ে উঠবে শুধুই নিয়মরক্ষার।

(ক্রিকেটের খবর,ফুটবলের খবর, টেনিসের খবর, হকির খবর - খেলার খবরের সেরা ঠিকানা আমাদের খেলা বিভাগ।)

আরও পড়ুন

Advertisement