Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ডিআরএস নিয়ে সানির তোপ স্মিথদের

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৮ মার্চ ২০১৭ ০৪:০৫
দাপট: সোমবার ধর্মশালায় চতুর্থ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার লায়নের উইকেট তুলে উমেশের উচ্ছ্বাস। ছবি: পিটিআই

দাপট: সোমবার ধর্মশালায় চতুর্থ টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার লায়নের উইকেট তুলে উমেশের উচ্ছ্বাস। ছবি: পিটিআই

ধৌলাধার পাহাড়ের কোলে ভারত-অস্ট্রেলিয়া ধুন্ধুমার থ্রিলার অবশেষে ক্লাইম্যাক্সের মুখে। আর শেষ দিনে যদি পাহাড়ে আগুনের ফুল্কি উড়ে দাবানল লেগে যায়, অবাক হওয়ার থাকবে না।

এর মধ্যে আবার বেঙ্গালুরুতে স্টিভ স্মিথের সেই ডিআরএস বিতর্ক উস্কে দিলেন সুনীল গাওস্কর।

প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক একটি চ্যানেলে বলেন, ‘‘বেঙ্গালুরুতে স্মিথের ডিআরএস নিয়ে সেই ঘটনার পর ১২টা রেফারেল নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তার মধ্যে সফল হয়েছে মাত্র একটায়। ওই ঘটনার আগে মনে হয় ওরা ১৬টার মধ্যে সাতটা রেফারেলে সফল হয়েছিল। আমি নিশ্চিত নই, তবে এই ব্যাপারটায় নজর রাখতে হবে।’’ পাশাপাশি বিরাট কোহালিকে অস্ট্রেলীয় শিবিরের টানা আক্রমণ করে যাওয়া নিয়েও সমালোচনা করতে ছাড়েননি গাওস্কর। তিনি বলেছেন, ‘‘এ সব কথায় গুরুত্ব দেওয়াই উচিত নয়। ওরা হতাশায় এ সব বলছে।’’

Advertisement

দু’দলের মধ্যে সম্পর্ক ফের তিক্ত হয়ে উঠেছে এবং উত্তরোত্তর খারাপ হচ্ছে। নমুনা? রবীন্দ্র জাডেজার সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ ঝামেলা চলল অস্ট্রেলিয়ার উইকেটকিপার ম্যাথু ওয়েডের। মাঠের আম্পায়ারকে হস্তক্ষেপ করে থামাতে হল। সেই সময় এক বার স্টিভ স্মিথের সঙ্গেও ঝামেলা লাগে তাঁর। দেখে তখন কে বলবে যে, বিরাট কোহালি এই টেস্টে অধিনায়কত্ব করছেন না। মনে হবে কোহালি না থাকলেও তাঁর সেই আগ্রাসন ফেরত পেয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটারেরা। যেটা ধর্মশালায় প্রথম দু’দিন অজিঙ্ক রাহানের নেতৃত্বে দেখা যায়নি।

ঝামেলার পর জাডেজা তুলোধনা করলেন অস্ট্রেলীয় বোলারদের। ৬৩ রান করে তিনিই প্রথম ইনিংসে দলের সর্বোচ্চ স্কোরার। ইনিংসে চারটি চার, চারটি ছক্কা। তাঁর আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের জন্যই প্রথম ইনিংসে ৩২ রানের মহামূল্যবান ‘লিড’ পায় ভারত। জাড্ডু ব্যাট বাগিয়ে তাঁর প্রিয় তলোয়ারের খেলাও দেখিয়ে দেন হাফ সেঞ্চুরির পর। তাতে স্মিথদের গাত্রদাহ আরও বেড়ে যায়। জাডেজাকে যোগ্য সঙ্গত করলেন ঋদ্ধিমান সাহা (৩১)।

এর পর বল হাতেও তিন উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলীয়দের জোরাল ধাক্কা দেন জাডেজা। সোমবার ধর্মশালায় তিনিই ছিলেন দিনের নায়ক। ঐতিহাসিক জয় থেকে আর মাত্র ৮৭ রান দূরে ভারত। হাতে দশ উইকেটই রয়েছে। দুর্দান্ত ভাবে ম্যাচে প্রত্যাবর্তনের কৃতিত্ব প্রাপ্য বোলারদের। উমেশ যাদব, জা়ডেজা এবং অশ্বিন তিন জনে নিলেন তিনটি করে উইকেট।

নতুন বলে আগুন ঝরালেন উমেশ। শুরুতে ওয়ার্নারকে অসাধারণ ডেলিভারিতে ফিরিয়ে তিনিই মোক্ষম আঘাত দেন। ইয়ান চ্যাপেল উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করলেন উমেশের। প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটকে বলেন, ‘‘শুধু এই টেস্ট বলেই নয়, গোটা গ্রীষ্ম ধরে দুর্দান্ত বল করে গিয়েছে উমেশ।’’

ভুবনেশ্বর কুমার আবার যখন প্যাট কামিন্সের বলে ব্যাট করছিলেন, ওয়ার্নার স্লেজ করে বলেছিলেন, ‘‘বল খুব ফাস্ট যাচ্ছে?’’ উত্তপ্ত আবহে শান্তশিষ্ট ভুবনেশ্বরও বুকে আঘাত করে ওয়ার্নারকে পাল্টা জিজ্ঞেস করলেন, কী রে বল বেশি লাফাচ্ছে? দিনের খেলা শেষে ভুবনেশ্বর আর উমেশ মিলে একটি ভিডিও পোস্ট করলেন বোর্ডের সরকারি ওয়েবসাইটে। সেটা দেখলে আরওই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠতে পারেন স্মিথ-রা। সেখানে একে অন্যের ইন্টারভিউ নিলেন দু’জনে। উমেশ বললেন, ‘‘আমি স্লেজিং করি না। বরাবর বলকেই কথা বলতে দিয়েছি।’’ তার পরেই শোনাতে ছাড়লেন না, ‘‘ওয়ার্নারকে কিছু বলব কী, ও তো ক্রিজেই থাকছে না বেশিক্ষণ।’’ ভুবনেশ্বর বললেন স্মিথকে আউট করা নিয়ে। দুরন্ত ফর্মে থাকা স্মিথকে শর্ট বলে ফেরান ভুবি। স্মিথ বাউন্স আশা করে পুল মারতে গিয়েছিলেন। বল খুব একটা ওঠেনি। ব্যাটের ভিতরের দিকের কাণায় লেগে বোল্ড হয়ে যান তিনি। ম্যাচের নিষ্পত্তি বোধ হয় ওখানেই হয়ে গেল।

দু’জনের কথোপকথন মনে করাচ্ছিল বেঙ্গালুরুতে জেতার পরে চেতেশ্বর পূজারা এবং অশ্বিনের ভিডিওকে। সে দিন অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে দু’জনে হাসাহাসি করেছিলেন। এটা কি তা হলে কফিনে শেষ পেরেক?

আরও পড়ুন

Advertisement