Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

চোট-আঘাতের পাশাপাশি খারাপ রেফারিং নিয়ে চিন্তিত আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাস

খারাপ রেফারিং নিয়ে দুজনেই মারাত্মক সোচ্চার। প্রকাশ্যে লাগাতার সমালোচনা করছেন। তবে বিচার মিলছে না।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ৩০ জানুয়ারি ২০২১ ২০:১৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
শুধু কেরলের বিরুদ্ধে  নয় খারাপ রেফারিং নিয়েও সরব হাবাস। ফাইল চিত্র।

শুধু কেরলের বিরুদ্ধে নয় খারাপ রেফারিং নিয়েও সরব হাবাস। ফাইল চিত্র।

Popup Close

চলতি আইএসএলে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আন্তোনিয়ো লোপেজ হাবাসরবি ফাওলারের মধ্যে মিল কোথায়? উত্তর, খারাপ রেফারিং নিয়ে দুজনেই মারাত্মক সোচ্চার। প্রকাশ্যে লাগাতার সমালোচনা করছেন। তবে বিচার মিলছে না।

এই মুহূর্তে ১৩ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকার দুই নম্বরে থাকলেও বেশ চিন্তায় রয়েছেন এটিকে মোহনবাগানের কোচ হাবাস। এর অবশ্য দুটো কারণ। এক, দলে একের পর এক ফুটবলারের চোট। দুই, খারাপ রেফারিং। তিনি এতটাই চিন্তিত যে, বিপক্ষ দল সম্পর্কেও কেমন যেন উদাসীন! দলের মিডফিল্ড জেনারেল এদু গার্সিয়া চোটের জন্য আরও প্রায় তিন সপ্তাহ মাঠের বাইরে। হাভি হারান্দেজ ও তিরি চোট নিয়েও খেলে যাচ্ছেন। লেফ্ট ব্যাক শুভাশিস বসু হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে কাবু। ফলে রবিবার তিনি খেলছেন না। নর্থইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে চোট পেয়েছিলেন স্ট্রাইকার ডেভিড উইলিয়ায়মস। চোট এতটাই গুরুতর ছিল যে, মনবীর সিংহকে মাঠে নামাতে বাধ্য হন কোচ। কেরালার বিরুদ্ধে এই অজি স্ট্রাইকার নেই। সেটা নিয়ে তাঁর কাছে প্ল্যান-বি থাকলেও খারাপ রেফারিং নিয়ে তাঁর কাছে কোনও রণনীতি নেই। সেটা স্বীকার করে চিন্তা ও ক্ষোভ প্রকাশ করলেন দুবারের আইএসএল জয়ী কোচ।

কেরালার বিরুদ্ধে ফিরতি ম্যাচে মাঠে নামার আগে রেফারিদের বিরুদ্ধে ফের ক্ষোভ উগরে দিলেন তিনি। স্পষ্ট বলে দিলেন, “বিপক্ষ নিয়ে চিন্তা করা আর খারাপ রেফারিং নিয়ে দুশ্চিন্তা করা একেবারেই ভিন্ন বিষয়। ভাল দল নিয়ে বিপক্ষের বিরুদ্ধে ভাল খেলতে না পারলে ম্যাচ হারতে পারি। সেটা মেনেও নেব। কিন্তু প্রায় প্রতি ম্যাচেই তো ভুল রেফারিংয়ের শিকার হচ্ছি। একাধিক সিদ্ধান্ত আমাদের বিরুদ্ধে গিয়েছে। ফাউল দেওয়া হয়নি। পেনাল্টি বাতিল করা হয়েছে। বাতিল হয়েছে গোল। আমার ফুটবলাররা অহেতুক কার্ড দেখেছে। এরপরেও আমরা লিগ টেবলের দুই নম্বরে রয়েছি। ওদের পারফরম্যান্স কেমন, সেটা তো সবাই দেখছে। তাই প্রতি ম্যাচে খেলতে নামার আগে বিপক্ষ নয়, বরং রেফারিদের মুখ চোখের সামনে ভেসে ওঠে। আমার দীর্ঘ কোচিং কেরিয়ারে এই প্রথমবার এমন ভয় পাচ্ছি।”

Advertisement

৭ গোল করে দলকে একাই টানছেন ফিজি তারকা। ডেভিড উইলিয়ায়মস এই ম্যাচে নেই। তাই নবাগত ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকার মার্সেলো লেইতে পেরিরাকে তৈরি রাখছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সঙ্গে রয়েছেন ডার্বিতে গোল করা মনবীর। দল যতই দুই নম্বরে থাকুক, ধাবাহিকতা থাকছে না। যদিও সেটা মানতে নারাজ হাবাস। তাই বলছেন, “আমি তো জাদুকর নই! পৃথিবীর সেরা কোচও তাঁর কেরিয়ারের সব ম্যাচ জিততে পারেননি। লাগাতার খেলার জন্য চোট বেড়েই চলেছে। মাসের পর মাস জৈব বলয়ে রয়েছি। সেগুলো নিয়ে কিন্তু কেউ আলোচনা করে না। তবে এই সব ভেবে লাভ নেই। অন্যান্য ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামব। কারণ লিগের এই পর্যায়ে সব দল নিজেদের গুছিয়ে নিয়েছে। তাই সতর্ক না থেকে উপায় নেই।”

গত নভেম্বর আইএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচেই দুজনের সাক্ষাত হয়েছিল। রয় কৃষ্ণর গোলে সেই ম্যাচে কেরালা ব্লাস্টার্সকে ১-০ গোলে হারিয়ে দেয় সবুজ মেরুন। যদিও হাবাসের দাবি কিবুর দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ভাল না হলেও এর প্রভাব রবিবারের ম্যাচে পড়বে না। শেষে তিনি যোগ করেন, “অতীত রেকর্ড নিয়ে বেশি ভেবে লাভ নেই। রবিবার নতুন ম্যাচ। সেটা জেতার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামব।”



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement