×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৬ মে ২০২১ ই-পেপার

লিভারপুলের বিদায়ে ক্রুদ্ধ ক্লপ, দুষলেন বিপক্ষের কৌশলকে

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৩ মার্চ ২০২০ ০৪:৫৫
নায়ক: লিভারপুলের বিরুদ্ধে জোড়া গোল লোরেন্তের। এএফপি

নায়ক: লিভারপুলের বিরুদ্ধে জোড়া গোল লোরেন্তের। এএফপি

গত বারের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিল আতলেতিকো দে মাদ্রিদের কাছে ৩-২ হেরে। দুই ম্যাচ মিলিয়ে স্পেনের ক্লাবের পক্ষে ফল ৪-২। হতাশ লিভারপুলের ম্যানেজার য়ুর্গেন ক্লপের কথা, ‘‘যা ঘটেছে, তা ঠিক হল না।’’ কেন এ রকম বলছেন তার ব্যাখা করতে গিয়ে ক্লপ দুষলেন বিপক্ষের ‘অতি-রক্ষণাত্মক’ ফুটবলকে। তাঁর দাবি, ‘‘এই রকম একটা দলের বিরুদ্ধে খেলা যে কতটা কঠিন তা বলে বোঝানো যাবে না।’’

ক্লপ যোগ করলেন, ‘‘ওদের তো ভাল ফুটবলারের অভাব নেই। তার পরেও কেন এই রকম খেলল মাথায় ঢুকল না। সারাক্ষণ চার জনের দু’টি সারি বানিয়ে নিজেদের বক্সের সামনে দাঁড় করিয়ে রাখল। ওদের খেলায় থাকার মধ্যে ছিল আকস্মিক কিছু প্রতি-আক্রমণ। আর কিচ্ছু না।’’ ক্রুদ্ধ ক্লপ এখানেই থামেননি, ‘‘মানছি, গত দুই মরসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বেশ কয়েক বার আমরাও ভাগ্যের সাহায্য পেয়েছি। এ রকম একটা টুর্নামেন্টে দু’বার ফাইনাল খেলতে সেটা একটু হলেও দরকার হয়। কিন্তু আজ নির্ণায়ক মুহূর্তে সব কিছুই আমাদের বিরুদ্ধে গিয়েছে।’’

বুধবার অ্যানফিল্ডে জর্জিনিয়ো ওয়াইনলডমের ৪৩ মিনিটে করা দুরন্ত হেডে ১-০ করে লিভারপুল। দুই ম্যাচ মিলিয়ে গোল গড় দাঁড়ায় ১-১। অতিরিক্ত সময়ে (৯৪ মিনিটে) গোল করে লিভারপুলকে সুবিধেজনক অবস্থায় পৌঁছে দেন রবের্তো ফির্মিনো। কিন্তু লিভারপুলের গোলরক্ষক আদ্রিয়ানের ভুলে বাইরে মাঠে মহামূল্যবান গোল করে দেন আতলেতিকোর পরিবর্ত মার্কোস লরেন্তে। মহম্মদ সালাহরা তখন গোলের জন্য মরিয়া। যার পুরো সুবিধে নিয়ে প্রতিআক্রমণ থেকে আরও দু’টি গোল করে আতলেকিকোই। নিজের দ্বিতীয় গোল করেন লোরেন্তে। শেষ গোল আলভারো মোরাতার।

Advertisement

ইপিএল মুঠোয় চলে এলেও লিভারপুলের জয়ের রথ আগেই থেমে গিয়েছে। শেষ ছ’টি ম্যাচের চারটিতে তারা হারল। ফুটবল বিশ্লেষকদের বক্তব্য, বুধবারের হারের জন্য আতলেতিকো ম্যানেজার দিয়েগো সিমিয়োনের রণনীতি দায়ী হলে, বাকি তিন ম্যাচে কী হয়েছিল? আতলেতিকো ম্যানেজার সিমিয়োনে বলে গেলেন, ‘‘ক্লপকে শ্রদ্ধা করি। লিভারপুল অসাধারণ। এর মধ্যেই আমাদের খুঁজতে হয়েছে, কোথায় ওদের দুর্বলতা। সেই জায়গাটা কাজে লাগিয়েই জেতার চেষ্টা করেছি।’’ সিমিয়োনে অবশ্য বলেছেন, বাইরের মাঠে খেলা হলে গোল করার জন্য অতিরিক্তি তিরিশ মিনিট পাওয়াটা যে কোনও ক্লাবের সুবিধে। তাঁর মন্তব্য, ‘‘এটা খারাপ নিয়ম। আমি আগেও সেটা বলেছি। লিভারপুলের জন্য আমারও তাই খারাপ লেগেছে।’’

Advertisement