• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কন্টেনমেন্ট নজরদারিতে রাজ্যের হাতিয়ার প্রযুক্তি

pedestrian
অ্যাপের মাধ্যমে ‘অ্যাফেক্টেড’ জ়োনের উপর বাড়তি নজরদারি চালানো হচ্ছে বলে দাবি প্রশাসনের। ছবি: পিটিআই।

কন্টেনমেন্ট বিধি নতুন করে তৈরি করেছে রাজ্য সরকার। এখন গোটা পাড়া, রাস্তা বা গ্রামের বদলে বাড়ি, ফ্ল্যাট বা কোনও আবাসনে করোনা-আক্রান্তের তথ্য মিললে শুধু সেগুলোকেই কন্টেনমেন্ট বা ‘অ্যাফেক্টেড’(এ) জ়োন হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। ফলে জ়োনের সংখ্যা বেড়েছে। অ্যাপের মাধ্যমে ‘অ্যাফেক্টেড’ জ়োনের উপর বাড়তি নজরদারি চালানো হচ্ছে বলে দাবি প্রশাসনের। 

সাধারণ ভাবে কন্টেনমেন্ট এলাকায় লকডাউন বিধি কঠোর ভাবে কার্যকর করা হয়। এখন সরকারি নিয়মে নিজের বাড়িতে সুবিধা থাকলে করোনা-আক্রান্ত সেখানেই বিধি মেনে চিকিৎসা করাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে গৃহ নিভৃতবাসের যাবতীয় নিয়মবিধি মেনে চলতে হচ্ছে। প্রশাসনিক সূত্রের দাবি, জেলাগুলিতে এমন ব্যবস্থাপনায় ‘সন্ধানে’ অ্যাপের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা সেই অ্যাপে নথিভুক্ত গৃহ নিভৃতবাসে থাকা মানুষদের ব্যাপারে নিয়মিত নজরদারি চালাচ্ছেন। পাশাপাশি পুর এলাকাগুলিতে পুর স্বাস্থ্যকর্মীদের নিয়মিত নজরদারি চলছে। 

প্রাতিষ্ঠানিকের পাশাপাশি গৃহ নিভৃতবাসের সংখ্যা বাড়ায় বর্জ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে বাড়তি নজর দিচ্ছে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর। দফতর সূত্রের খবর, এ ধরনের বাড়ি চিহ্নিত করে সেখানে বিশেষ প্লাস্টিক ব্যাগ পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট রোগী বা নিভৃতবাসে থাকা ব্যক্তির ব্যবহার করা সামগ্রী সেই ব্যাগে ভরে দেওয়ার বিধি চালু হয়েছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন