সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যাতায়াতের পথে

দেশ-বিদেশে কী ভাবে বেড়াবেন? রইল গাইডলাইন

Tour

Advertisement

টুর অপারেটরের সঙ্গে বেড়াতে গেলে কোথায় কী ভাবে যাবেন, সে চিন্তা থাকে না। কিন্তু নিজেরা প্ল্যানিং করলে ভাবতে হয়। দেশ হোক বা বিদেশ... শুধু গন্তব্যে পৌঁছে গেলেই হল না। বিভিন্ন জায়গায় ঘোরার জন্য কী করবেন, কী ভাবে যাবেন— সে ভাবনাও সমান জরুরি। 

 

দেশের মধ্যে

গন্তব্য নিজের দেশের মধ্যে হলে সোজা উপায় প্রাইভেট কার বা ট্যাক্সি বুক করে নেওয়া। তবে এটি খরচসাপেক্ষ। পাহাড় বা একটু প্রান্তিক অঞ্চল হলে খরচ আরও বেশি। সে ক্ষেত্রে গাড়ি শেয়ার করতে পারেন। শহরের মধ্যে ঘুরতে হলে লোকাল ট্রান্সপোর্ট সেরা উপায়। মেট্রো, রেল, বাস, অটো বা কোথাও জলপথের ব্যবস্থা থাকলে, তা-ও ট্রাই করে দেখতে পারেন। সস্তা তো বটেই, স্থানীয় মানুষদের সংস্পর্শে অভিজ্ঞতার ভাঁড়ারও ভরে উঠবে। অনেক জায়গায় সরকারের টুরিজ়ম বিভাগ থেকে টুরিস্টদের জন্য আলাদা বাসের বন্দোবস্ত থাকে। তা আগাম বুক করতে হয়। অ্যাপ ক্যাব বা টু-হুইলার এখন সারা দেশেই চালু। এগুলিও নিতে পারেন স্বচ্ছন্দে। 

 

বিদেশের পথে

ঠিক মতো পরিকল্পনা করলে বিদেশ ঘোরাও সস্তায় হতে পারে। তবে ফ্লাইট থেকে নেমে গন্তব্যে পৌঁছনোর জন্য আগাম ব্যবস্থা করে রাখুন। জার্নি করে এসে ছুটোছুটি না করাই ভাল। তবে অনেক জায়গায় বিমানবন্দর থেকেই ট্রেন বা মেট্রো পরিষেবা পাওয়া যায়। লাগেজের সমস্যা না থাকলে এই ব্যবস্থা মন্দ নয়।

বিদেশে জরুরি না হলে ট্যাক্সি নেবেন না। ইউরোপ, আমেরিকা বা সাউথ-ইস্ট এশিয়ার দেশে বেড়াতে গেলে টুরিস্ট বাসে যাওয়াই শ্রেয়। রেড বাস, বিগ বাস, হপ অন-হপ অফ বাস— নানা রকম পরিষেবা মিলবে। এগুলি টুরিস্ট জ়োনের মধ্যেই ঘুরে বেড়ায়। কয়েক দিনের রাইড পাস কিনে নিলে যত বার খুশি ব্যবহার করতে পারেন। সাইকেল, টু-হুইলারও ভাড়া পাওয়া যায়। রয়েছে অ্যাপ ক্যাবের ব্যবস্থাও।  

সব উন্নত দেশেই মেট্রো পরিষেবা রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলি মেট্রো মোটামুটি কভার করে। এখানেও প্যাকেজ টিকিট বুক করতে পারেন। সস্তা হবে। তবে বিদেশে মেট্রোর পথে ঘোরপ্যাঁচ আছে। গন্তব্যে পৌঁছতে একাধিক বার স্টেশন বদল করতে হতে পারে। লোকাল বাস, ট্রামেরও রাইড পাস কিনে নিলে সুবিধে হবে।

 

নিজেই যখন গাইড

এমন অনেক জায়গা আছে, যেখানে অ্যাপের মাধ্যমে টুরিস্টকে গাইড করা হয়। মিউজ়িয়াম, স্টুডিয়ো, প্রাচীন স্থাপত্য— ইত্যাদি জায়গায় অ্যাপ গাইডের সুবিধে পেয়ে যাবেন। ফোনে অ্যাপ ডাউনলোড করে নিন। সেখানেই জায়গার বর্ণনা মিলবে। কেউ যদি ঠিক করেন গোটা ল্যুভর মিউজ়িয়াম দেখবেন না, নির্দিষ্ট শিল্পী বা সময়কালের ছবি দেখবেন, তিনি ওই অপশনে ক্লিক করলেই হবে। 

গোটা টুরে গাইড না নিলেও প্রান্তিক বা বিপদসঙ্কুল এলাকায় যদি ঘোরার পরিকল্পনা থাকে, তা হলে পেশাদার গাইডের সাহায্য নেওয়া উচিত।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন